মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ফখরুলের বক্তব্য নিয়ে প্রেসক্লাবে বিএনপি ও সরকার সমর্থকদের মারামারি

প্রকাশিত : ৬ জানুয়ারী ২০১৫

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ মির্জা ফখরুলের একটি বক্তব্যকে কেন্দ্র করে জাতীয় প্রেসক্লাবে সোমবার সরকার ও বিরোধী দল সমর্থকদের মধ্যে মারামারি হয়েছে। বেলা সাড়ে তিনটার দিকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বিএনপি জোটের একটি সমাবেশে বক্তব্য দিয়ে বের হওয়ার সময় গেটের বাইরে যুবলীগ কর্মীদের বাধার মুখে পড়েন। সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা এবং নিজের কার্যালয়ে দলীয় চেয়ারপার্সন ‘অবরুদ্ধ’ থাকার মধ্যে সোমবার প্রেসক্লাবে বিএনপি সমর্থিত পেশাজীবীদের এক সমাবেশে বক্তব্য দিতে আসেন মির্জা ফখরুল।

সভা-সমাবেশে পুলিশের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সমাবেশের আয়োজন করে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ, যার আহ্বায়ক সাংবাদিক নেতা রুহুল আমীন গাজী।

সমাবেশের পর ফখরুল, জাগপা প্রধান শফিউল আলম প্রধানসহ কয়েকজন প্রেসক্লাবের ফটক দিয়ে বেরিয়ে আসার মুহূর্তে বাইরে অবস্থানরত সরকার সমর্থকদের বাধার মুখে পড়েন। তখন ফখরুলসহ অন্যরা প্রেসক্লাবের ভেতরে ফেরত যান।

এরপর মাথায় মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম লীগের পট্টি লাগানো একদল যুবক প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে অবস্থানরত বিএনপি সমর্থকদের ওপর চড়াও হলে মারামারি বেধে যায়। প্রায় ১৫ মিনিট ধরে মারামারির পর ইকবাল সোবহান চৌধুরী, মঞ্জুরুল আহসান বুলবুলসহ সরকার সমর্থক সাংবাদিক নেতারা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী পরে সাংবাদিকদের বলেন, প্রেসক্লাব শুধু সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনের স্থান। এখানে রাজনৈতিক অভিলাষ চরিতার্থ করতে যাঁরা এসেছেন তাঁদের চলে যেতে অনুরোধ করছি। তিনি বলেন, প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষকে বলছি আপনারা অবিলম্বে রাজনৈতিক নেতাদের বের করে দিন। অন্যথায় আমরা সারারাত বাইরে অবস্থান করব।

জাতীয় প্রেসক্লাবের ব্যবস্থাপনা কমিটি কয়েক বছর ধরে বিএনপি সমর্থক সাংবাদিকদের নিয়ন্ত্রণে। ফখরুলসহ বিরোধী নেতারা প্রেসক্লাবের ভেতরে সাধারণ সম্পাদকের কক্ষে অবস্থান নেন।

বিএফইউজে সভাপতি বুলবুল বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম একটি রাজনৈতিক দলের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি এখানে প্রেস ব্রিফিং করতে পারেন। তবে তাঁর নেতৃত্বে শত শত দলীয় কর্মী প্রেসক্লাব দখলের চেষ্টা করতে পারেন না। এরপর ইকবাল সোবহান ও বুলবুলসহ সরকার সমর্থক সাংবাদিক নেতারা প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনার জন্য ভেতরে ঢোকেন। আলোচনা শেষে বেরিয়ে ইকবাল সোবহান সাংবাদিকদের বলেন, মির্জা ফখরুল একজন জাতীয় নেতা। তিনি প্রেসক্লাবে আসতে পারেন। তবে অন্য যে রাজনৈতিক কর্মীরা প্রেসক্লাবে অবস্থান নিয়েছে তাদের বের করার বিষয়ে মতৈক্য হয়েছে।

প্রকাশিত : ৬ জানুয়ারী ২০১৫

০৬/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: