মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তেজগাঁওয়ে নিজ বাসায় ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা, গ্রেফতার ১

প্রকাশিত : ৪ জানুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর তেজগাঁওয়ে নিজ বাসায় এক ব্যবসায়ীকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। এদিকে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে রাজধানীর মগবাজারে ১৮তলা ভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে এক কিশোরী গৃহপরিচারিকা আত্মহত্যা করেছে। পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দু’জন নিহত হয়েছে। ডেমরায় বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার তেজগাঁওয়ের পূর্ব তেজতুরী বাজার সংলগ্ন ২৭ নম্বর নিজ বাসায় মোঃ কালু (৪০) নামে ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি কাওরানবাজার এলাকায় সবজির আড়তদার ছিলেন। এ ঘটনায় পুলিশ মুন্না নামে এক সবজির আড়তদারকে গ্রেফতার করেছে। তেজগাঁও থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম জানান, শনিবার বিকালে পূর্ব তেজতুরী বাজার এলাকার রাস্তার পাশ থেকে কালুর লাশ উদ্ধার করা হয়। ধারাল ক্ষুর দিয়ে কালুর গলায় আঘাত করলে তার মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থল থেকে মুন্নাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মুন্না পুলিশকে জানায়, কালু কয়েক মাস আগে তার কাছ থেকে ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা ধার নিয়েছিল। সে টাকা না দেয়ায় তিনি কালুকে ক্ষুর দিয়ে আঘাত করেছিলেন।

গৃহকর্মীর আত্মহত্যা ॥ শনিবার সকালে রমনা থানাধীন বড় মগবাজার ১৮তলা ভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে ফাতেমা আক্তার (২০)। নিহতের বাবার নাম জবান আলী। গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর থানার মধুপুরকান্দায়। রমনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ শফিউল আলম জানান, ফাতেমা বড় মগবাজার এলাকার ১১৯/১ নম্বর সেঞ্চুরী টাওয়ারের ১৭ তলায় ১৭/ডি নম্বর ফ্ল্যাটে গৃহকর্মীর কাজ করত। রমনা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান জানান, এক ছেলের সঙ্গে ফাতেমার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এক পর্যায়ে সে জানতে পারে, তার প্রেমিক বিবাহিত। তিনি জানান, ফাতেমা তার এক বান্ধবীর মাধ্যমে প্রেমিকের বিয়ের খবর জানতে পেরে অভিমান করে ১৭ তলার ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করে। ওসি জানান, সকাল ৯টায় এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে পুলিশ ওই ফ্ল্যাটের নিচ থেকে ফাতেমার লাশ উদ্ধার করে দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠায়। তিনি জানান, এই ঘটনায় কাউকে আটক করা হয়নি। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ ॥ শনিবার ভোরে যাত্রাবাড়ী থানাধীন মাতুয়াইল মাতৃসদন হাসপাতালের সামনে রাস্তায় দুটি কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে সাদ্দাম হোসেন (৩০) নামে ক্যাভার্ড ভ্যান হেলপার নিহত হয়। এ সময় চালক জাহাঙ্গীর হোসেন (২৯) গুরুতর আহত হয়েছে। নিহত সাদ্দামের গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর জেলায়। প্রত্যক্ষদর্শী সিএনজি চালক সিদ্দিক জানান, ভোরেরদিকে মাতুয়াইল মাতৃসদনের সামনের বাসস্ট্যান্ডে কাভার্ডভ্যানটি ঘোরাচ্ছিলেন। এ সময় আরেকটি কাভার্ডভ্যান বেপরোয়া গতিতে এসে ওই কাভার্ড ভ্যানটিকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে কাভার্ডভ্যানের হেলপার সাদ্দাম ও চালক জাহাঙ্গীর গুরুতর আহত হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে জরুরী বিভাগে আনা হয়। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক সাদ্দামকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত কাভার্ডভ্যান চালক জাহাঙ্গীর জানান, ভোরে মাতুয়াইলে তার কাভার্ডভ্যান ঘোরানোর সময় অপর একটি কাভার্ডভ্যান তাদের গাড়িকে ধাক্কা দেয়। যাত্রাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইমরান হোসেন জানান, ধাক্কা দেয়া কাভার্ডভ্যানটি দ্রুত পালিয়ে যায়।

বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যু ॥ শনিবার বিকেলে ডেমরায় বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়ে দুই নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এরা হচ্ছে, পারভেজ (১৯) ও আরিফুল ইসলাম (১৭)। তারা ডেমরার কোনাপাড়া এলাকায় থাকত। নিহতের বাড়ির মালিক জসিম মিয়া জানান, ডেমরার কোনাপাড়া শান্তিবাগ শামসুল হক খান স্কুল এ্যান্ড কলেজ সংলগ্ন তার চারতলা নির্মাণাধীন বাড়ির কাজ চলছিল দীর্ঘদিন। শনিবার বিকেল ৪টার দিকে বাড়ির ৪ তলায় কাজ করার সময় নিচ থেকে দড়িতে ঝুলিয়ে রড ওঠানোর কাজ করছিলেন কয়েক শ্রমিক। রড উঠানোর সময় রাস্তার বৈদ্যুতিক তারের সঙ্গে স্পর্শ লাগে। এতে শ্রমিক পারভেজ ও আরিফুল বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। পরে তাদের সহকর্মী মিজান ও অন্যরা উদ্ধার করে সন্ধ্যায় ঢামেকে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোজাম্মেল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, লাশ দু’টি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

প্রকাশিত : ৪ জানুয়ারী ২০১৫

০৪/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: