মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানে এ্যাসিড নিক্ষেপ, থানায় মামলা ॥ গ্রেফতার ২

প্রকাশিত : ৩ জানুয়ারী ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, শরীয়তপুর, ২ জানুয়ারি ॥ জেলার সখিপুরে গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানে এ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে সখিপুর থানায় ৩ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। সখিপুর থানা পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত থাকা সন্দেহে মামলার তালিকাভুক্ত আসামি তুহিন (১৯) ও সাদ্দাম (২০) নামের দুই বখাটেকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।

বুধবার রাতে সখিপুরে গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানে দুর্বৃত্তদের এ্যাসিড নিক্ষেপে বর ও শিশুসহ ৫ জন দগ্ধ হয়। বৃহস্পতিবার রাতে বর সেলিম সরকারের ভাই ইউনুস আলী সরকার বাদী হয়ে সখিপুরের চরভাগা এলাকার জাহাঙ্গীর মাস্টারের ছেলে সিফাত, তুহিন ও সাদ্দামসহ আরও অজ্ঞাত কয়েক জনের নামে এ মামলা দায়ের করেছে।

এদিকে আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বর সেলিম সরদার ও তার ভাগিনী রাবেয়া (৬) ও ভাগিনা সিয়াম মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে বলে ভিকটিমের পরিবার সূত্রে জানা গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার সূত্রে জানা যায়, জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানার উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়নের কালামিয়া সরকারকান্দি গ্রামের ইদ্রিস সরকারের পুত্র সেলিম সরকারের সঙ্গে আনু সরকারকান্দি গ্রামের ফারুক রাঢ়ীর মেয়ে তানজিলা আক্তার শিরোমনির সঙ্গে বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। বিয়ের আগের দিন বুধবার রাতে বরের বাড়িতে গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান চলছিল। হঠাৎ করে আনুমানিক রাত সাড়ে ১২টায় জেনারেটরের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে অজ্ঞাত কয়েকজন দুর্বৃত্ত বর সেলিম সরকারকে লক্ষ্য করে এ্যাসিড নিক্ষেপ করে দ্রুত পালিয়ে যায়। এতে বর সেলিম সরকার (২৬), তার ভাগিনী রাবেয়া (৬), ভাগিনা সিয়াম (৫) ও প্রতিবেশী জহুরা বেগম (২২), শাহীনা বেগম (২৫) মারাত্মকভাবে এ্যাসিড দগ্ধ হয়। বর্তমানে আহতরা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন আছে।

বর সেলিম সরকারের ভাই ইউনুস সরকারের অভিযোগ, সখিপুরের চরভাগা এলাকার জাহাঙ্গীর মাস্টারের ছেলে সিফাত এক মাস পূর্বে শিরোমনিকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু শিরোমনি ও তার অভিভাবক তা মেনে না নেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। সখিপুর থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) সমীর সরকার বলেন, আমরা ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুইজনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করেছি। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। তবে পুলিশ ঘটনার মূল নায়ক সিফাতকে এখনও গ্রেফতার করতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে মামলার বাদী।

প্রকাশিত : ৩ জানুয়ারী ২০১৫

০৩/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: