আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

নেইমার, সুয়ারেজ, মেসি অমানবিক!

প্রকাশিত : ৩ জানুয়ারী ২০১৫
নেইমার, সুয়ারেজ, মেসি অমানবিক!
  • বার্সিলোনার অধিনায়ক জাভির দাবি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শিরোনামটা দেখলে সবাই নেতিবাচক কিছুই চিন্তা করে বসতে পারেন। যে তিন তারকাকে নিয়ে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সিলোনার অধিনায়ক জাভি হার্নান্দেজ এমন মন্তব্য করেছেন তাঁরা বিশ্ব কাঁপানো আক্রমণভাগের সেরা তারকা। ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার, আর্জেন্টাইন সুপার স্টার লিওনেল মেসি আর উরুগুয়ের ভয়ঙ্কর ফরোয়ার্ড লুইস সুয়ারেজ প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগের জন্য সাক্ষাত যমদূত একেক জন। বার্সার আক্রমণভাগের এ ত্রাসোদ্দীপক ত্রয়ীর প্রশংসা করতে গিয়েই মূলত এমন বিশ্লেষণ ব্যবহার করেছেন। যেভাবে প্রতিপক্ষের শিবিরে এ তিন তারকা হানা দেন সেটা শুধু আতঙ্কেরই নামান্তর। নিজ দলের অন্যতম ভরসা হলেও প্রতিপক্ষের ওপর একেবারেই যেন নির্মম এ তিনজন। সে কারণেই তাঁদের আক্রমণের ধার ব্যাখ্যা করতে গিয়ে প্রশংসা করে ‘অমানবিক’ বলে দাবি করেছেন জাভি।

চলতি মৌসুমে পুরো ইউরোপের ঘরোয়া আসরগুলোর মধ্যে প্রতিপক্ষের জালে গোলবন্যা ঘটিয়েছে বার্সিলোনা। তাদের চেয়ে প্রতিপক্ষকে বেশি গোল দিয়েছে শুধু রিয়াল মাদ্রিদ। যে দলের আক্রমণভাগ নেইমার-মেসি-সুয়ারেজের মতো অন্যতম বিশ্বসেরা তিন তারকার সমন্বয়ে গঠিত তাদের দিয়ে প্রতিপক্ষের জন্য তীব্র আতঙ্ক তৈরি হবে এতে কোন সন্দেহ নেই। তাই রিয়াল বেশি গোল করলেও কাতালান অধিনায়ক ৩৪ বছর বয়সী জাভি মনে করছেন প্রতিপক্ষের জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি বার্সার আক্রমণভাগ। তিনি মনে করেন ফুটবল ইতিহাসের ভয়ঙ্করতম আক্রমণভাগ গড়েছে বার্সা। জাভি বলেন, ‘এটা শুধু কোন একটি ত্রিমুখী আতঙ্কই নয়, তাঁদের সঙ্গে পেড্রোও আছেন। কারণ তিনিও গোল করছেন প্রায় নিয়মিত হারে। এছাড়া মুনির আল হাত্তাদি এবং সান্দ্রোরাও গোল পাচ্ছেন। তাই সবমিলিয়ে প্রতিপক্ষকে ধসিয়ে দিতে আমাদের আক্রমণভাগের জন্য অনেক বেশি বিকল্প ব্যবস্থা জমা আছে। তবে সেরা তিনজন হচ্ছেন সবচেয়ে অমানবিক!’ শুরুর দিকে নিষেধাজ্ঞার জন্য মাঠে নামতে পারেননি সুয়ারেজ। এখন তিনিও প্রায় নিয়মিত হয়ে গেছেন নেইমার-মেসির সঙ্গে। আর সেজন্য সেরা আক্রমণভাগ হয়ে গেছে বার্সার। এ বিষয়ে জাভি বলেন, ‘অনেক ভাল ম্যাচগুলোর জন্যও আমাদের আক্রমণভাগটা খুব ধারাল। নেইমার যা খেলছেন সেটাকে নিষ্ঠুরতা বলা যেতে পারে, সুয়ারেজ ক্রমাগতভাবে উন্নতি করে চলেছেন এবং মেসি তাঁর সেরা অবস্থানে ফিরেছেন।’

চলতি মাসেই শুরু হবে শীতকালীন ট্রান্সফার শুরু হবে। নতুন করে আর বার্সার তেমন গোছানোর জন্য কাউকে প্রয়োজন নেই। তবে এ ট্রান্সফারে বার্সা নতুন করে কাউকে চুক্তিভুক্তও করতে পারবে না। কারণ ফিফা এ বছর নতুন করে দলে কাউকে চুক্তিভুক্ত করার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে বার্সিলোনার ওপর। ফিফার ক্রীড়াবিষয়ক আপোষ-নিষ্পত্তি আদালত (সিএএস) এ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। কিন্তু সিএএস’র এ সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করেছেন জাভি। তিনি বলেন, ‘আমরা সবাই সিএএস’র এমন সিদ্ধান্তে স্তব্ধ হয়ে গেছি। আমি প্রত্যাশা করব তারা এ বিষয়ে আরেকটু নমনীয় হবে। আমি এটাকে অনেক বড় অবিচার হিসেবেই বিবেচনা করছি। কারণ কোন ক্লাবই একজন তরুণ খেলোয়াড়ের জন্য সব সময় ভাল দেখাশোনা চালিয়ে যেতে পারে না। আমার মনে হয় সিএএস’র এমন সিদ্ধান্ত আমাদেরই বরং অন্যদের চেয়ে আরও বেশি শক্তিশালী করে তুলবে।’ তবে ২০১৪ সালটা বার্সার জন্য এবং নিজের জন্য অনেক কঠিন ছিল বলে মনে করেন জাভি। তবে প্রত্যয় জানিয়েছেন দলের সবাই দৃঢ়প্রতিজ্ঞ নতুন বছরে বার্সা শিরোপা ছাড়া ফিরবে না। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সহজ কোন বছর ছিল না আমার এবং দলের জন্য। সবচেয়ে ভাল সিদ্ধান্তটা ছিল আরও এক বছর এখানে থাকার। তবে আরেকটা বছর আমরা কোনভাবেই শিরোপহীন থাকতে চাই না। এটাই আমাদের মূল লক্ষ্য।’

প্রকাশিত : ৩ জানুয়ারী ২০১৫

০৩/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: