কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

প্রতিবন্ধী চাকরি মেলায় একশ’ জনের জীবন বৃত্তান্ত জমা

প্রকাশিত : ২ জানুয়ারী ২০১৫
  • চাকরি পাবেন ৫ জন

স্টাফ রিপোর্টর ॥ প্রশিক্ষিত প্রতিবন্ধীদের চাকরির নিশ্চয়তা দিতে এবার রাজধানীতে আয়োজন করা হলো প্রতিবন্ধী চাকরি মেলা। বৃহস্পতিবার আগারগাঁওয়ের কম্পিউটার কাউন্সিল ভবনে এ মেলার আয়োজন করা হয়। মেলায় একশ’ প্রশিক্ষিত প্রতিবন্ধী চাকরির জন্য জীবন বৃত্তান্ত জমা দেন। এদের অধিকাংশই বিভিন্ন বিষয়ে আইসিটি থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছেন বলে জানান মেলা আয়োজকরা। তাঁরা বলেন, জীবনবৃত্তান্ত জমা দেয়া একশ’ জনের মধ্যে ৫০ জনের চাকরির সুযোগ দেয়া হবে।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল বিসিসি ও সেন্টার ফর সার্ভিসেস এ্যান্ড ইনফরমেশন অন ডিসএ্যাবিলিটি (সিএসআইডি) এক ভিন্ন মেলার আয়োজন করেছে। আয়োজকরা জানান, যাঁরা চাকরির জন্য জীবনবৃত্তান্ত জমা দিয়েছেন তাদের মধ্যে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী রয়েছেন ৩০, বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী ২৫ এবং শারীরিক প্রতিবন্ধী ছিলেন ৪৫। আয়োজকরা জানান, ২৯১ প্রতিবন্ধীকে আইটি প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে ১২১ জন ইতোমধ্যেই বিভিন্ন চাকরিতে যোগ দিয়েছেন। বৃহস্পতিবারের মেলায় প্রাথমিকভাবে ১০০ প্রতিবন্ধী চাকরিপ্রার্থী নিজেদের জীবনবৃত্তান্ত মেলায় জমা দেন।

প্রতিবন্ধী এ মেলা উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। নাটোর থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি মেলার উদ্বোধন করেন। এ সময় তিনি বলেন, ২০১১ সাল থেকে বিসিসি দেশের প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের আইসিটি সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিশেষায়িত আইসিটি কোর্স পরিচালনা করছে। যেটি এখন মেলায় রূপ নিয়েছে। আমরা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য উপযোগী পরিবেশ সৃষ্টি করতে চাই। স্কাইপেতে তিনি বলেন, প্রতিবন্ধীদের তথ্যপ্রযুক্তির প্রশিক্ষণের জন্য ভবিষ্যতে সরকার আরও বড় ধরনের উদ্যোগ নেবে। তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারে দক্ষ করার মাধ্যমে মূলধারার কর্মশক্তির সঙ্গে তাদের যুক্ত করা হবে।

মেলা উদ্বোধনের আগে বিসিসি সম্মেলন কক্ষে প্রতিবন্ধীদের কর্মসংস্থান নিয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে বক্তব্য রাখেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম, সাইটসেভার্সের কান্ট্রি ডিরেক্টর গোলাম কিবরিয়া, বিসিসির নির্বাহী পরিচালক এসএম আশরাফুল ইসলাম, সিএসআইডির নির্বাহী পরিচালক খন্দকার জহুরুল ইসলামসহ অন্যরা।

অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম বলেন, বছরের শুরুতে প্রতিবন্ধীদের কর্মসংস্থানের মতো একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পেরে গর্বিত। প্রত্যেক মানুষের মধ্যে সম্ভাবনা রয়েছে। তাদের ছোট করে দেখলে তা সংবিধানের সব নাগরিকের সমান অধিকারকে অস্বীকার বলে গণ্য হবে।

মেলায় প্রতিবন্ধীরা বলেন, আমাদের অবহেলার কোন সুযোগ নেই। আইটি বিষয়ে আমরা অন্যদের চেয়ে কোন অংশে কম দক্ষ নই। মেলার সংবাদ পেয়ে ছুটে আসেন ইডেন কলেজের ছাত্রী শাম্মী আকতার। দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শাম্মী আক্তার ইডেন কলেজ থেকে ইসলামিক স্টাডিজ থেকে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম হয়েছেন। এর পাশাপাশি তিনি কম্পিউটারের ওপর বিশেষ জ্ঞান অর্জন করেছেন। মেলার আয়োজকদের তিনি জানান, মাউসের ব্যবহার ছাড়াই শুধু কিবোর্ডের সাহায্যে স্বাভাবিক মানুষের মতো কম্পিউটারে কাজ করতে পারেন। সুযোগ পেলে টাইপ করাসহ বিভিন্ন কাজে অবদান রাখতে পারবেন। কম্পিউটার পরিচালনার দক্ষতা অর্জনে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের বিশেষ প্রশিক্ষণ আয়োজনের জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান শাম্মী।

এছাড়াও ইশারা ভাষায় বাকপ্রতিবন্ধী খাদিজা আক্তার সুমি বলেন, আমরা শব্দ করে মনের ভাব প্রকাশ করতে পারি না। এটাই আমাদের সীমাবদ্ধতা। তবে হাত-পা ঠিক আছে, সব কাজ আমরা করতে পারি। যোগ্যতা অনুযায়ী কাজ পেলে খুবই উপকৃত হবো।

প্রকাশিত : ২ জানুয়ারী ২০১৫

০২/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: