আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

প্রত্যাশার লেনদেন আজ থেকে শেয়ারবাজারে

প্রকাশিত : ১ জানুয়ারী ২০১৫
  • ফিরে দেখা-২১৪

অপূর্ব কুমার ॥ আজ থেকে শুরু হচ্ছে নতুন বছর। বহু আকাক্সক্ষা নিয়ে পুুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হবে। বিগত ২০১৪ সালটি ছিল বিনিয়োগকারীদের জন্য স্মরণীয়। নানা সংস্কার উদ্যোগের পাশাপাশি বছরটিতে সূচকের উত্থান-পতনও ছিল চোখে পড়ার মতো। বছরের শুরুতে বাজারের চাঙ্গাভাব বজায় থাকলেও শেষ হয়েছে হতাশা দিয়ে। তবে আগামী বছরটা হবে বিনিয়োগকারীদের এমনই প্রত্যাশা সবার।

গত বছরে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ(ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্যবস্থাপনা থেকে মালিকানা পৃথককরণের (ডিমিউচুয়ালাইজেশন) পর পুঁজিবাজার উন্নয়ন ও স্থিতিশীলতায় নানা উদ্যোগ নেয়া হয়। জানুয়ারিতে ডিএসইতে শরিয়াহ ইনডেক্স (সূচক) চালু হয় এবং ব্রোকারেজ এ্যাসোসিয়েশন গঠন করা হয়। ফেব্রুয়ারিতে ডিএসইর ওয়েবসাইটে বাংলা সংস্করণ চালু ও নতুন পরিচালনা পর্ষদ গঠন করা হয়। তাছাড়া স্বতন্ত্র পরিচালকদের মধ্যে থেকে বিচারপতি মোঃ সিদ্দিকুর রহমান মিয়াকে ডিএসইর চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়। এছাড়া এ মাসেই অত্যাধুনিক সার্ভিল্যান্স সফটওয়্যার সংযোজন করে ডিএসই। একইভাবে সিএসই’র পরিচালক নির্বাচনে চারজন ট্রেকহোল্ডার নির্বাচন করে এবং স্বতন্ত্র পরিচালকদের মধ্যে থেকে ড. মোহাম্মদ আব্দুল মজিদকে সিএসইর চেয়ারম্যান হিসেবে মনোনীত করা হয়। এছাড়া ১৬ ফেব্রুয়ারি সিএসইর ই-লাইব্রেরি উদ্বোধন করা হয়। মার্চ মাসের নতুন স্বয়ংক্রিয় লেনদেন ব্যবস্থা চালু করতে ম্যাচিং ইঞ্জিনের জন্য নাসডাক ওএমএক্স ও অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের জন্য ফ্লেক্সট্রেড সিস্টেমসের সঙ্গে ডিএসই’র চুক্তি, গ্লোব ফিন্যান্স এ্যান্ড ক্যাপিটাল ও বিরালা ক্যাপিটাল এ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেডের ডিএসইর পরির্দশন, বিনিয়োগকারীদের জন্য পোর্টফোলিও ম্যানেজমেন্ট এ্যান্ড সিকিউরিটিজ এ্যানালাইসিস কর্মশালার আয়োজন করে ডিএসই।

এপ্রিল মাসে ওয়ার্ল্ড ব্যাংক ডিএসই পরিদর্শন, ব্রোকারদের নিয়ে করপোরেট গবর্নেন্সের ওপর কর্মশালা, লেনদেন নিষ্পত্তির সময়সীমা টি+২ চালুর সিদ্ধান্ত নেয় ডিএসই। মে মাসে ব্রোকার ও বিনিয়োগকারীদের জন্য ফিন্যান্সিয়াল ডেরিভিটিভসের উপর কর্মশালা, ইন্টারনাল অডিট, রিক্স ম্যানেজমেন্ট এ্যান্ড কন্ট্রোলের ওপর কর্মশালা করে ডিএসই।

জুন মাসে চলতি ২০১৪-১৫ অর্থবছরের বাজেটে ডিমিউচুয়ালাইজেশন পরবর্তী স্টক এক্সচেঞ্জসমূহের ৫ বছরের কর অব্যাহতি এবং লভ্যাংশ আয়ের করমুক্ত সীমা ১৫ হাজার টাকায় উন্নীত করে। ‘প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জ’ নামে আঞ্চলিক স্টক এক্সচেঞ্জ গঠনের উদ্দেশ্যে চীনের কুনমিংয়ে সম্মেলনে অংশগ্রহণ করে ডিএসই ও সিএসই’র প্রতিনিধিরা। অক্টোবরে সিএসই শরিয়াহ ও বেঞ্চমার্ক নামে দুই ইনডেক্স (সূচক) চালু, সিএসই ইন্টারনেট ট্রেড ফেয়ার, পোর্টফোলিও ম্যানেজমেন্ট এ্যান্ড সিকিউরিটিজ এ্যানালাইসিস কর্মশালা আয়োজন করে ডিএসই। নবেম্বর মাসে ডিএসই ক্লিয়ারিং হাউস গঠনের লক্ষ্যে কোরিয়া এক্সচেঞ্জের সঙ্গে চুক্তি, ফিন্যান্সিয়াল স্টেটমেন্ট এ্যানালাইসিস কর্মশালা করে ডিএসই। চলতি বছরের ডিসেম্বর ডিএসইতে নতুন স্বয়ংক্রিয় লেনদেন ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে।

বিএসইসি’র পদক্ষেপ ॥ গত জানুয়ারি মাসে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠনের প্রজ্ঞাপন জারি, সুপ্রীমকোর্টের পরামর্শে হুমায়ুন কবিরকে বিচারক নিয়োগ দেয়া হয়। ফেব্রুয়ারিতে প্লেসমেন্ট শেয়ারহোল্ডারদের লক-ইন সময়ের বাধ্যবাধকতা প্রত্যাহার, আইপিও, পুনর্প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আরপিও) ও রাইট ইসু্যূর ক্ষেত্রে তহবিল ব্যবহার সংক্রান্ত প্রতিবেদন ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে দাখিলের সিদ্ধান্ত নেয় বিএসইসি। মার্চে পুঁজিবাজার ডেরিভিটিভস মার্কেট, ক্লিয়ারিং করপোরেশন ও কমোডিটি মার্কেট প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কমিটি গঠন, শেয়ারবাজারের উন্নয়নে পাঁচ বছরের (২০১৪-২০১৮) মধ্যে বাস্তবায়নযোগ্য ১৪ দফা কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করে বিএসইসি। সেপ্টেম্বর মাসের ৩০ তারিখে ঋণাত্মক পোর্টফোলিওগুলোকে লেনদেনযোগ্য করার লক্ষ্যে মার্জিন ঋণ বিধিমালা- ১৯৯৯-এর ৩(৫) উপধারার কার্যকারিতা স্থগিতাদেশের মেয়াদ বৃদ্ধি, ১০০ টাকার শেয়ারকে ১০ টাকায় রূপান্তর করে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি) বিল-২০১৪ জাতীয় সংসদে উত্থাপিত হয়।

নবেম্বরে আর্থিক প্রতিবেদনের গুণগত মান নিশ্চিত ও আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার লক্ষ্যে ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং এ্যাক্ট-২০১৪ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন, মোবাইল ফোনে খুদে বার্তা (এসএমএস) পাঠিয়ে লেনদেন সংক্রান্ত তথ্য প্রদান ও ইন্টারনেটে লগ-ইন পদ্ধতিতে বিও হিসাবের তথ্য সেবা প্রদান, ডিএসই ও সিএসই খসড়া লিস্টিং রেগুলেশন যাচাই-বাছাই ও সংশোধনের সিদ্ধান্ত নেয় বিএসইসি।

বিএসইসির অর্জন ॥ অক্টোবরে আইওএসসিও’র মানদে বিএসইসি ‘এ’ ক্যাটাগরিতে উন্নীত হয়ে সনদ অর্জন করে। একই মাসে ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন অব সিকিউরিটিজ কমিশনের(আইওসকো) নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে মনোনীত হন বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ফরহাদ আহমেদ। এপ্রিলে বিএসইসি’র চেয়াম্যান ড. খায়রুল হোসেন, কমিশনার হেলাল উদ্দিন নিজামী ও আরিফ খানের চাকরির মেয়াদ আরও চার বছর, কমিশনার আমজাদ হোসেনের মেয়াদ তিন বছর ১১ মাস, মোঃ আবদুস সালাম সিকদারের ২ বছর ৬ মাস বাড়ানো হয়েছে।

বিএসইসি’র এনফোর্সমেন্ট এ্যাকশন ॥ চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত অস্বাভাবিক হারে শেয়ার দর বাড়া ও কমার কারণে ওয়াটা কেমিক্যাল, সেপ্টেম্বরে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ ও শাহজিবাজার পাওয়ার, এলআর গ্লোবাল, বাংলাদেশ রেটিং এজেন্সি লিমিটেড ও জেএমআই সিরিঞ্জের বিরুদ্ধে তদন্তে কমিটি গঠন করে বিএসইসি। নবেম্বর মাসে বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকাে জড়িত থাকার অভিযোগে সিলেট মেট্রো সিটি সিকিউরিটিজ হাউসের শামীম আহমেদ ও ফার্স্ট সিকিউরিটিজ সার্ভিসসের সাইফুর ইসলামকে পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট যে কোন ধরনের কর্মকা থেকে বহিষ্কার ও জরিমানা করা হয়। একই মাসেই ২০১০ ও ২০১১ সালে শেয়ার কারসাজির অভিযোগে মোঃ গোলাম মোস্তফাকে ৩ কোটি ও মোঃ মোসাদ্দেক আলী ফালুকে ১ কোটি টাকা জরিমানা করে বিএসইসি। আগস্টে বিএসইসি সিকিউরিটিজ আইন লঙ্ঘন করে অবৈধভাবে শেয়ার ব্যবসা করার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ডিএসই’র সাবেক জিএম খন্দকার আসাদউল্লাহকে সাময়িক বরখাস্ত করে বিএসইসি।

লেনদেন নিষ্পত্তিতে বিভ্রাট ॥ অক্টোবরে সিডিবিএল নিষ্পত্তিজনিত বিভ্রাট দেখা দেয়। পরে সিডিবিএল ও ভারতীয় সফটওয়্যার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান (ভেন্ডার) সিএমসি যৌথভাবে সাড়ে ৬ ঘণ্টা চেষ্টা করে সমাধান করে।

ফেব্রুয়ারি মাসে সাবসিডিয়ারি কোম্পানির (অঙ্গ প্রতিষ্ঠান) হিসাবসহ পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা রেগুলেটরি ক্যাপিটালের ৫০ শতাংশ পুনর্নির্ধারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক। নবেম্বরে শেয়ার ধারণের উপর নির্দেশনা জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। নির্দেশনা অনুযায়ী যে সব ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান কোন বাণিজ্যিক ব্যাংকের মোট পরিশোধিত মূলধনের শতকরা ৫ ভাগের সমপরিমাণ শেয়ার ধারণ করে আছেন তাদের নতুন করে অনুমোদন নিতে হবে না।

প্রকাশিত : ১ জানুয়ারী ২০১৫

০১/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: