রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
১৭ জানুয়ারী ২০১৭, ৪ মাঘ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সবচেয়ে জনপ্রিয় আফ্রিদি!

প্রকাশিত : ১ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পাকিস্তান তো বটেই, বিশ্ব ক্রিকেটেরই অন্যতম জনপ্রিয় ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি। আফ্রিদি মানে ক্রেজি, আফ্রিদি মানে উন্মদনা, ‘বুম বুম’। সেই ১৯৯৬ সাল থেকে, উনিশ বছরে কেবলই বেড়েছে সেই জনপ্রিয়তা। কতটা বেড়েছে? জনপ্রিয়তা মাপার ব্যারোমিটার থাকলে সেটি দেখা যেত। তবে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের মতে আফ্রিদি হচ্ছেন অন্য সব পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের জনপ্রিয়তা মাপার মানদ-, বাটখারা। পাল্লার একপাশে তাঁকে তুলে দিয়ে অন্যদের পরখ করা যেতে পারে! যেখানে বাকিরা অনেক দূরে, কতটা দূরে সেটাই বিবেচ্য! টেস্ট ছেড়েছেন আগেই, বিশ্বকাপ শেষে ওয়ানডে থেকেও অবসরের আগাম সিদ্ধান্তটা জানিয়ে দিয়েছেন। মঙ্গলবার করাচীতে প্রাইভেট কোম্পানির এক অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন, ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ, শেষ আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে মহাতারকাকে বিদায় জানাতে ভক্তদের ঢল নামে সেখানে।

পাকিস্তানের প্রখ্যাত ক্রিকেট লিখিয়ে ও ইতিহাসবিদ ওসমান সামিউদ্দিন যেমন বলেন, ‘ইমরান খান- ওয়াসিম আকরাম আমাদের ক্রিকেটকে জনপ্রিয় করে তুলেছিল, আফ্রিদি তাতে ভিন্ন মাত্রা যোগ করে। ও নিজেই হয়ে ওঠে জনপ্রিয়তার মাপকাঠি!’ এর একটা কারণও ব্যাখ্যা করেছেন তিনি। সাধারণত আর সবার ক্ষেত্রে দেখা যায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর তারা জনপ্রিয়তা পান। আফ্রিদি সেখানে ব্যতিক্রম। ১৯৯৬ সালের ২ অক্টোবর নাইরোবিতে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টে স্বাগতিক কেনিয়ার বিপক্ষে বল ফেস করতে হয়নি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়ানডাউনে নেমেই সেঞ্চুরি, ৩৭ বলে গড়েন দ্রুততম সেঞ্চুরির নতুন রেকর্ড! গত বছর পর্যন্তও তা টিকে ছিল। ঠিক সেদিন থেকেই জনপ্রিয়। ক্রমশ সেই জনপ্রিয়তা ভক্ত-হৃদয়ে জ্বরে রূপ নিয়েছে। ব্যাট হাতে তার মাঠে নামা মানে মার-মার কাট-কাট অবস্থা। চার ছক্কার ফুলঝুরি। নিখাত বিনোদন।

ক্যারিয়ারের ৩৮৯ ওয়ানডেতে ৭১০টি চার ও রেকর্ড সর্বাধিক ৩৪২ ছক্কাই তার প্রমাণ। কদিন আগে আরব আমিরাতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ শেষে সেই আফ্রিদি বিশ্বকাপ খেলে ওয়ানডে থেকে অবসরের আগাম সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেন। তখন ৫৯ বছরের এক ভক্ত বলেন ‘ক্রিকেটই একমাত্র মাধ্যম যার মধ্যে আমরা সুখ খুঁজে পাই। পেশোয়ার থেকে করাচী, মুলতান থেকে লাহোর, প্রতিদিন কেবলই নৃশংসতা, খুন-হত্যা আর সন্ত্রাস। গত অর্ধশতাব্দী জুড়ে আমি এটাই দেখে আসছি। অতঙ্কিতহৃদয়ে খনিকের আনন্দ দিয়েছে কেবল ক্রিকেট। যেখানে ক্রিকেটাররা আমাদের জন্য আনন্দদায়ী দূত; ওয়াসিম আকরাম, সাঈদ আনোয়ার, শহীদ আফ্রিদি সেখানে সামনের সারিতে। বুম বুম আফ্রিদির খেলা দেখতে ট্যাক্সি গ্যারেজে রেখে কতদিন যে মাঠে গিয়েছি...। ’ যিনি গত তেরো বছর ধরে আবুধাবির রাস্তায় ট্যাক্সি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছেন।

প্রকাশিত : ১ জানুয়ারী ২০১৫

০১/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: