আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশের রেল, বন্দর, রাস্তা, সেতু নির্মাণে সহায়তা দেবে চীন

প্রকাশিত : ১ জানুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জনগণের আশা-আকাক্সক্ষা বাস্তবায়নে বাংলাদেশ ও চীনের স্বপ্ন অভিন্ন। বাংলাদেশের দ্রুত উন্নয়ন দেখতে চায় চীন। রেলওয়ে, বন্দর, রাস্তা, সেতু নির্মাণে বাংলাদেশকে অবকাঠামো ও প্রযুক্তিগত সহায়তা দেবে চীন। এশিয়ার উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশ ও চীন একসঙ্গে কাজ করে যাবে। বাংলাদেশের ব্যাপক উন্নয়ন সম্ভাবনা রয়েছে বলেও মনে করে দেশটি। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর তিনদিন ঢাকা সফরের পর চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দেয়া বিবৃতিতে এসব তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। ২৭-২৯ ডিসেম্বর চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং আইয়ের ঢাকা সফর শেষে মঙ্গলবার এই বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ঢাকা সফরের বিষয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং আইয়ের বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে চমৎকার পারস্পরিক বোঝাপড়া রয়েছে। দুই দেশের মধ্যে একে অপরকে সমর্থনের বিষয়ে ঐকমত্যও রয়েছে। বাংলাদেশ ও চীন একসঙ্গে কাজ করে যাবে। দুই দেশের জনগণের আশাআকাক্সক্ষা বাস্তবায়নে বাংলাদেশ ও চীনের স্বপ্ন অভিন্ন বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশ মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হতে কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্য আয়ের দেশ হিসেবে পরিণত করতে পাশে থাকবে চীন। এছাড়া দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৪০ বছর পূর্তিতে বাংলাদেশ ও চীন ব্যাপক অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

চীন বাংলাদেশের কৃষি, শিল্প, অবকাঠামো নির্মাণ ও জ্বালানি খাতের উন্নয়নে সহয়তা দেবে। এসব খাতে সহায়তার মাধ্যমে বাংলাদেশের দ্রুত উন্নয়ন দেখতে চায় চীন সরকার। চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রীর ঢাকা সফরের মধ্য দিয়ে দুই দেশের সম্পর্ক আরও গভীর হবে। এছাড়া বিসিআইএম অর্থনৈতিক করিডোর গঠন প্রক্রিয়া দ্রুত করতে উভয় দেশই সম্মত হয়েছে বলে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ ও চীনের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৪০ বছর পূর্তিতে দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের এক নতুন মাত্রা যুক্ত হবে। এর মধ্য দিয়ে দুই দেশের সম্পর্ক আরও গভীর হবে। বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশ জনবহুল রাষ্ট্র। এছাড়া দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সংযোগকারী দেশ হিসেবে বাংলাদেশের ভৌগোলিক গুরুত্ব রয়েছে। ফলে বাংলাদেশের ব্যাপক উন্নয়ন সম্ভাবনা রয়েছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে চীন সহায়তা অব্যাহত রাখবে বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে। চীন বাংলাদেশকে বিভিন্ন খাতে সহযোগিতা করতে আগ্রহী। এই সহযোগিতার মাধ্যমে নিশ্চয় বাংলাদেশ স্বনির্ভরতায় পৌঁছবে বলে আশা প্রকাশ করছে দেশটি।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দেয়া অপর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের সকল রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের সঙ্গে চীন সম্পর্ক রাখতে আগ্রহী। কারণ, এর মধ্য দিয়ে দুই দেশের জনগণের মধ্যে বন্ধুত্ব গভীর হবে। বাংলাদেশের জনগণের সঙ্গে গভীরভাবে কাজ করার লক্ষ্যে চীন সব সময় প্রস্তুত। চীন মনে করে জাতীয় উন্নয়নের লক্ষ্যে স্থিতিশীলতা প্রয়োজন। বাংলাদেশের বিশ্বস্ত বন্ধু হিসেবে চীন আশা করে জাতীয় উন্নয়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশের সকল রাজনৈতিক দলের মধ্যে বোঝাপড়া থাকা প্রয়োজন।

প্রকাশিত : ১ জানুয়ারী ২০১৫

০১/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: