কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বছর শেষেও ‘সি আর সেভেন’ চমক

প্রকাশিত : ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪
বছর শেষেও ‘সি আর সেভেন’ চমক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সুখকর তৃপ্তি সঙ্গী করেই বছর শেষ করলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। সোমবার রিয়াল মাদ্রিদের এই পর্তুগীজ সুপারস্টার ভক্তদের ভোটে ২০১৪ সালের বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার ‘গ্লোব সকার এ্যাওয়ার্ড’ জিতেছেন। দুবাইয়ের আটলানটিস পাম হোটেলে ‘৯ম ইন্টারন্যাশনাল স্পোর্টস কনফারেন্সে’ রোনাল্ডোকে পুরস্কৃত করেন সংগঠনের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

রোনাল্ডোর সঙ্গে বাজিমাত করেছেন তার ক্লাব দল রিয়াল মাদ্রিদের কোচ কার্লো আনচেলোত্তি। তিনি হয়েছেন বছরের সেরা কোচ। জার্মানির বিশ্বকাপজয়ী কোচ জোয়াকিম লো ও বেয়ার্ন মিউনিখের পেপ গার্ডিওলাকে পেছনে ফেলে সবার সেরা হয়েছেন আনচেলোত্তি। এছাড়া বিভিন্ন ক্ষেত্রে আরও কয়েকটি বিভাগের সেরাদের হাতে তুলে দেয়া হয় পুরস্কার। বছরের সেরা প্রতিভাবান ফুটবলার হয়েছেন রিয়ালের কলম্বিয়ান তারকা জেমস রড্রিগুয়েজ। সেরা ক্লাব সভাপতির পুরষ্কার জিতেছেন রিয়াল মাদ্রিদের ফ্লোরেন্টিনা পেরেজ। জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বিজয়ীদের হাতে ট্রফি তুলে দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উয়েফা প্রেসিডেন্ট মিশেল প্লাতিনি, ফ্যাবিও কাপেলোর মতো বরেণ্য ফুটবল ব্যক্তিত্বরা।

গ্লোব সকারের এই অ্যাওয়ার্ড ২০১০ সাল থেকে শুরু হয়। গত বছর অর্থাৎ ২০১৩ সালেও সেরা ে খলোয়াড়ের খেতাব জিতেছিলেন রোনাল্ডো। তবে এই প্রথমবারের মতো সেরা কোচের পুরস্কার জিতেছেন আনচেলোত্তি। নতুন বছরের ১২ জানুয়ারি জুরিখে ফিফা ব্যালন ডি’অর পুরস্কার দেয়া হবে। সেখানেও পরিষ্কার ফেভারিট ‘সি আর সেভেন’। চূড়ান্ত তালিকায় রোনাল্ডো ছাড়াও বাকি দু’জন হচ্ছেন লিওনেল মেসি ও ম্যানুয়েল নিউয়ের। শেষ হতে যাওয়া বছরটা রোনাল্ডোর ক্যারিয়ারের সেরা বছর। চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ইতিহাসে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়া রোনাল্ডোর নেতৃত্বে রিয়াল মাদ্রিদ রেকর্ড দশম বারের মতো শিরোপা জয় করে। স্পেনের হয়ে পাঁচ বছরে নিজেকে ক্রমেই সামনে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। এর স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৪ সালের শুরুতে ফিফা বিশ্বসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার ব্যালন ডি’অর দ্বিতীয়বারের মতো অর্জন করেন। এবারও তৃতীয়বারের মতো এ পুরস্কায় জয়ে এগিয়ে আছেন তিনি।

প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে রোনাল্ডো বলেন, এটি আমার ক্যারিয়ারের একটি বড় অর্জন। সবাই আমাকে ভোট দেয়ায় আমি সেরা খেলোয়াড় হতে পেরেছি। রিয়ালের হয়ে এ বছরটা আমার দারুণ কেটেছে। বিশেষ করে লা ডেসিমা (দশম চ্যাম্পিয়ন্স লীগ) জেতাটা স্মরণীয় হয়ে থাকবে। দুবাইয়ের এই সাফল্যের পুনরাবৃত্তি জুরিখেও দেখতে চান সিআর সেভেন। এ প্রসঙ্গে রোনাল্ডো বলেন, আশা করছি এটা বেশ ভাল ইঙ্গিত। কিন্তু এখন আমি এ সব নিয়ে চিন্তিত নই। মানুষ বেশ চিন্তা করেই ভোট দিয়েছে। পরিশ্রমের ফল হিসেবে আরেকটি ট্রফি জিততে পেরে আমি সত্যিই আনন্দিত। এজন্য আমি রিয়াল মাদ্রিদের সকল খেলোয়াড়, কোচ ও সমর্থকদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। আমরা চারটি শিরোপা জয় করেছি। এখন আমরা বিশ্বের অন্যতম সেরা দল। গ্লোব সকারের এই পুরস্কারটা জিততে পেরে আমি সত্যিকার অর্থেই গর্বিত।

সেরা কোচ হওয়া আনচেলোত্তি প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেন, কোচের কাজটা অনেক সহজ হয়ে যায় যখন দলে অনেক প্রতিভাবান ফুটবলার থাকে। ঠিক তেমনি রিয়ালে অনেক ভাল মানের ফুটবলার রয়েছে, যার কারণেই এ বছরটা আমাদের অনেক ভাল কেটেছে। আশা করছি, আগামী বছরও এ ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারব।

সারা বিশ্বের ফুটবল ভক্তদের ভোটে গ্লোব সকার অ্যাওয়ার্ড জিতেছেন রোনাল্ডো।

লিওনেল মেসি ও ম্যানুয়েল নিউয়েরকে টপকে এ পুরস্কার জেতায় উচ্ছ্বসিত পর্তুগীজ সুপারস্টার। দুবাইয়ে আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রোনাল্ডোর হাতে পুরস্কার তুলে দেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের শীর্ষ ক্রীড়া কর্মকর্তারা। আন্তর্জাতিক এ ইভেন্টটির অন্যতম স্পন্সর তারা। মূলত ২০১৪ সালে অসাধারণ ফুটবলশৈলীর কারণেই অন্যদের পেছনে ফেলে সেরা হয়েছেন রোনাল্ডো। রিয়াল মাদ্রিদ ও পর্তুগাল দুই জায়গাতেই অপ্রতিরোধ্য ছিলেন সুদর্শন এই তারকা। বিশ্বকাপ বাদ দিলে প্রতিটি ক্ষেত্রেই অপ্রতিরোধ্য ছিলেন ২৯ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড।

প্রকাশিত : ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪

৩১/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: