মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পরাশক্তিদের ড্রয়ের রাতে জয় আর্সেনালের

প্রকাশিত : ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪
পরাশক্তিদের ড্রয়ের রাতে জয় আর্সেনালের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বড়দিনের পর প্রথম ম্যাচে সব বড় দলই জয়ের উৎসব করেছিল। তবে এক ম্যাচ পরই প্রায় সব দল হোঁচট খেয়েছে। রবিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে আর্সেনাল বাদে সব পরাশক্তিরাই নিজ নিজ ম্যাচ ড্র করেছে।

এ্যাওয়ে ম্যাচে আর্সেনাল ২-১ গোলে পরাজিত করে স্বাগতিক ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেডকে। গানার্সদের হয়ে গোল করেন সান্টি ক্যাজোরলা ও ড্যানি ওয়েলব্যাক। ম্যাচে ঘরের মাঠে চেলসিকে ১-১ গোলে রুখে দিয়েছে সাউদাম্পটন। স্বাগতিকদের হয়ে গোল করেন মানে। আর দ্য ব্লুজদের সমতায় ফেরান ইডেন হ্যাজার্ড। দুই গোলে এগিয়ে থেকেও ঘরের মাঠে অতিথি বার্নলির সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছে ম্যানচেস্টার সিটি। আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের হয়ে গোল করেন ডেভিড সিলভা ও ফার্নান্ডিনহো। বার্নলির হয়ে গোল করেন বয়েড ও বার্নেস। আরেক ম্যাচে টটেনহ্যাম হটস্পারের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। শীর্ষে থাকা চেলসি ড্র করায় ম্যানসিটির সুযোগ ছিল পয়েন্টের ব্যবধান কমানো। কিন্তু দুইবার এগিয়ে থেকে ড্র করে আগের সেই তিন পয়েন্টের ব্যবধানেই পিছিয়ে থাকল ম্যানুয়েলে পেলেগ্রিনির দল। ১৯ ম্যাচ শেষে চেলসির ৪৬ পয়েন্টের বিপরীতে দ্বিতীয় স্থানে থাকা সিটির পয়েন্ট ৪৩। ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে ম্যানইউর অবস্থান তৃতীয়। ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে গোলগড়ে পঞ্চম স্থানে আর্সেনাল। একই পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে সাউদাম্পটন। আর্সেনাল কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গার দলের জয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেছেন, তাদের লক্ষ্য অন্ততপক্ষে শীর্ষ চারে থেকে লীগ মিশন শেষ করা।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে বার্নলির বিরুদ্ধে প্রথম পনেরো মিনিটে দুটি দারুণ সুযোগ সৃষ্টি করে এই ম্যাচের আগে টানা সাতটি জয় পাওয়া ম্যানচেস্টার সিটি। এই সুযোগগুলো কাজে লাগাতে না পারায় নিজেদের মাঠে এগিয়ে যেতে ২৩ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় তাদের। সামির নাসরির কাছ থেকে বল পান জেসুস নাভাস হয়ে গোল করেন ডেভিড সিলভা। ৩৩ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফার্নান্ডিনহো। ডি বক্সের ঠিক বাইরে থেকে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারের শট ক্রসবারের নিচে লেগে জালে জড়ায়। চলতি মৌসুমে এটাই তার প্রথম গোল। বিরতির পর দ্বিতীয় মিনিটেই ব্যবধার কমায় বার্নলি। নিজেদের অর্ধ থেকে বাড়ানো বল সতীর্থের হেডে পেয়ে যান ড্যানি ইনংস। ডি বক্সে ঢুকে বাঁ পায়ে শট নেন তিনি। ছুটে এসে সেই বলে পা ছুঁইয়ে জালে পাঠিয়ে দেন জর্জ বয়েড। এরপর একাধিক সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয় সিটি। উল্টো ৮১ মিনিটে সমতা ফেরায় বার্নলি। মাঝমাঠ থেকে আসা ফ্রিকিকে হেড করেন এ্যাশলি বার্নেস। বলটির একজনের গায়ে লেগে ফিরে আসার পর ফিরতি শটে গোল করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ড্র হয় ম্যাচটি। লীগে টানা সাত ম্যাচ জয়ের পর পয়েন্ট হারাল ম্যানসিটি। দুই গোলে এগিয়ে যেয়েও জয় না পাওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেন সিটি কোচ ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনি। প্রতিপক্ষের মাঠে ১৭ মিনিটে সাডিও মানের গোলে পিছিয়ে পড়ে চেলসি। সার্বিয়ার মিডফিল্ডার ডুসান টাডিচের লম্বা পাস মাথা দিয়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি বক্সে ঢুকে এগিয়ে আসা গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে বল জালে জড়ান সেনেগালের এই মিডফিল্ডার। এগিয়ে যায় সাউদাম্পটন। ৩৬ মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পেলেও কাজে লাগাতে পারেননি পর্তুগীজ ডিফেন্ডার জোসে ফন্টে। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে প্রথম সুযোগ পায় চেলসি। যোগ করা সময়ের সুযোগটা কাজে লাগিয়ে দলকে সমতায় ফেরান ইডেন হ্যাজার্ড। বিরতির পর কোন দলই গোল না পেলে সমতাবস্থায় শেষ হয় ম্যাচ। ওয়েস্টহ্যামের মাঠে প্রথমার্ধের শেষদিকে তিন মিনিটের ব্যবধানে দুই গোলে জয় পায় আর্সেনাল। ৪১ মিনিটে ডি বক্সের মধ্যে নিউজিল্যান্ডের ডিফেন্ডার উইন্সটন রেইড আর্সেনালের সান্টি ক্যাজোরলাকে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। তা থেকে নিজেই গোল করে দলকে এগিয়ে দেন স্পেনের এই মিডফিল্ডার। ৪৪তম মিনিটে স্বদেশী মিডফিল্ডার এ্যালেক্স অক্সলেইড-চেম্বারলেইনের আড়াআড়ি পাসে গোললাইনের খুব কাছ থেকে বল পেয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ইংলিশ ফরোয়ার্ড ড্যানি ওয়েলব্যাক। বিরতির পর ৫৪ মিনিটে এক গোল পরিশোধ করে ওয়েস্টহ্যাম। ইংলিশ ডিফেন্ডার জেমস টমকিন্সের ক্রসে হেড করে ব্যবধান কমান সেনেগালের ডিফেন্ডার সেকু কুইয়াটে।

প্রকাশিত : ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪

৩০/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: