মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জার্মানদের গৌরব এ্যাঞ্জেলিক

প্রকাশিত : ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪
জার্মানদের গৌরব এ্যাঞ্জেলিক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্ব টেনিসে এক সময় জার্মানদের আধিপত্য ছিল। বিশেষ করে স্টেফিগ্রাফ এবং বরিস বেকারদের সময়। কিন্তু বর্তমান সময়ে জার্মানির সে রকম কোন টেনিস খেলোয়াড়দের দেখা মিলছে না। ২০১৪ সালে জার্মানির সেরা টেনিস খেলোয়াড় ছিলেন এ্যাঞ্জেলি কারবার। যিনি র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা দশে থেকে মৌসুম শেষ করতে সক্ষম হয়েছেন।

মাত্র তিন বছর বয়সেই টেনিস খেলতে শুরু করেছিলেন এ্যাঞ্জেলিক কারবার। কিন্তু কোর্টে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি সে সময়। ২০০৩ সালে এসে প্রথমবারের মতো জুনিয়র টুর্নামেন্ট জয়ের স্বাদ পান এই জার্মান খেলোয়াড়। গত চার বছর ধরে টেনিসের বিশ্ব মঞ্চে নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ পান এ্যাঞ্জেলিক কারবার। ২০১১ সালে প্রথমবারের মতো গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেনের সেমিফাইনালে উঠার রেকর্ড গড়েন তিনি। এর পরের বছর আরও একধাপ এগিয়ে আসেন এই জার্মান খেলোয়াড়। ফ্রেঞ্চ ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনাল ও উইম্বল্ডনের শেষ চারের টিকেট নিশ্চিত করেন তিনি। এবারও ব্যর্থ হন শিরোপার দেখা পেতে। তবে ২০১২ সালের অক্টোবরে প্রথমবারের মতো বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে পাঁচে জায়গা করে নিতে সক্ষম হন এ্যাঞ্জেলিক কারবার। ২০১৩ এবং ১৪ সালেও নিষ্প্রভ কাটে তার। সাফল্য কেবল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চতুর্থ পর্বের টিকেট। কিন্তু তারপরও কখনই হতাশ হননি তিনি। ধৈর্য ধরে টেনিস কোর্টে নিজের সেরাটা ঢেলে দেয়ার প্রত্যাশায় বার বারই সচেষ্ট ছিলেন এ্যাঞ্জেলিক কারবার।

আর এ কারণেই চলতি মৌসুমে তার সামনে দারুণ এক সুযোগ আসে। দীর্ঘদিন পর জার্মানিকে ফেড কাপের শিরোপা জেতানোর। ১৯৯২ সালে সর্বশেষবার ফেড কাপের শিরোপা জিতেছিল জার্মানি। সেবার টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তি স্টেফিগ্রাফ এবং আঙ্কে হুবারের জার্মানি হারিয়ে দিয়েছিল স্পেনকে। আর পেটকোভিচ-কারবারদের সামনে প্রতিপক্ষ ছিল চেক প্রজাতন্ত্র। যারা গত কয়েক বছর ধরেই ফেড কাপে এককভাবে রাজত্ব করছে। দীর্ঘদিন পর ফেড কাপের ফাইনালে ওঠার পরই দারুণ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন কারবার। এ বিষয়ে তিনি বলেছিলেন, ‘এটা সত্যিই বিশেষ একটি মুহূর্ত আমাদের জন্য। আমরা সবাই অনেক শ্রম দিয়েছি ফাইনালে ওঠার জন্য।’ এবার এই কারবারের দিকেই তাকিয়ে ছিল জার্মানদের শিরোপা-ভাগ্য। সেটা বেশ ভালভাবেই অনুধাবন করেছিলেন কারবার নিজেও। তাই তো তিনি বলেছিলেন, ‘১৯৯২ সালের পর আমরা আবারও ফাইনালে উঠেছি। এটা অনেক বড় বিষয় জার্মানির জন্য। আমাদের সবার জন্যই এটা অনেক বড় মর্যাদার।’ কিন্তু ফাইনালে চেক প্রজাতন্ত্রের কাছেই স্বপ্নভঙ্গ হয় জার্মানদের। তবে এ বছর নিজেদের সুযোগ কাজে লাগাতে না পারলেও নতুন মৌসুমে আগের চেয়ে আরও বেশি আত্মপ্রত্যয়ী জার্মান শিবির।

বর্তমানে জার্মান টেনিসের সেরা তারকার নাম এই এ্যাঞ্জেলিক কারবার। বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ে জার্মানির হয়ে সবার উপরে অবস্থান করছেন তিনি। তার বর্তমান র‌্যাঙ্কিং ৯। এ্যাঞ্জেলিক কারবারের পরেই অবস্থান করছেন আন্দ্রেয়া পেটকোভিচ। টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ে যার অবস্থান ১৩। এছাড়া আর কোন খেলোয়াড়ই নেই সেরা বিশে। ২৬তম স্থানে অবস্থান করছেন তরুণ প্রতিভাবান খেলোয়াড় সাবিনে লিসিস্কি। জার্মানির টেনিস এখন এই তারকাদের উপরই নির্ভরশীল। কারবার-পেটকোভিচদেরও প্রত্যাশা নিজেদের সেরাটা ঢেলে দিয়ে ভক্ত-অনুরাগীদের শিরোপা উপহার দেয়া।

প্রকাশিত : ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪

৩০/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: