কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

হরতালে রাজপথ ছিল আওয়ামী লীগের দখলে

প্রকাশিত : ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ হরতাল বিএনপির, আর মাঠে ছিল আওয়ামী লীগ। সোমবার এমনটাই ছিল রাজধানীর রাজপথের দৃশ্য। বিএনপি জোটের ডাকা হরতালের রাজপথ ছিল আওয়ামী লীগের দখলে। সকাল থেকে দিনভর রাজধানীর বিভিন্ন ওয়ার্ড, থানা ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা খ- খ- মিছিল, সমাবেশ ও সতর্ক প্রহরায় থাকতে দেখা গেছে। ঢাকা মহানগর থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্যরাও তাঁদের নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায় হরতালবিরোধী মিছিলের নেতৃত্ব দিয়েছেন। তবে কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে হরতালবিরোধী সমাবেশে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে। বিএনপি আন্দোলনের মাঠে নেই। গণমাধ্যমই বিএনপিকে বাঁচিয়ে রেখেছে। তিনদিন টিভির ক্যামেরা না গেলে বিএনপিকে হ্যারিকেন দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না। তিনি বলেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া হরতাল হরতাল করতে করতেই নিঃস্ব হয়ে যাবেন। তিনি বলেন, ছাত্রলীগের ভয়েই বিএনপির অর্ধেক শেষ। আমরা যদি নামি কি অবস্থা হবে বুঝতেই পারছেন। তাই হুঙ্কার দিয়েন না ম্যাডাম। শুনতে শুনতে কান ঝালাপালা হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, দেশের মানুষ আর খালেদা জিয়ার কথা শোনে না, কান দেয় না। কান কেন দেবে, ওরা বোমা মারবে, বাসে আগুন দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করবে- মানুষ তা সহ্য করবে কেন? তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার রক্ত ছাড়া ভাল লাগে না। উনি যদি সত্যিকারের নেত্রী হয়ে থাকে তবে বার্ন ইউনিটে গিয়ে দেখুক কিভাবে তাঁর সন্ত্রাসীদের ছোড়া পেট্টোল বোমায় আঘাতপ্রাপ্ত মানুষ কাতরাচ্ছেন, মারা যাচ্ছেন।

খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, হরতাল ডেকে বা আন্দোলনের নামে নাশকতা ও মানুষ হত্যা করে পার পাবেন না। কোন ধরনের অরাজকতা করা হলে কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে। আর কোন ছাড় দেয়া হবে না।

এ সময় হরতালবিরোধী সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, কেন্দ্রীয় নেতা একেএম এনামুল হক শামীম, মহানগরের মুকুল চৌধুরী, ফয়েজ উদ্দিন মিয়া, শাহে আলম মুরাদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের মোল্লা মোঃ আবু কাওছার, যুবলীগের মাহবুবুর রহমান হীরন, হারুনুর রশিদ, কৃষক লীগের এ্যাডভোকেট শামসুল হক রেজা, সাবেক ছাত্রনেতা এ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শেখর, মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন প্রমুখ।

সকাল থেকেই নগরের বিভিন্ন এলাকা থেকে বের করা হরতালবিরোধী মিছিল আসতে থাকে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের দিকে। বেলা ১১টার পর পুরো কেন্দ্রীয় কার্যালয় চত্বর ও এর আশপাশ এলাকা নেতাকর্মীদের উপচেপড়া ভিড় জমে। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, জাতীয় শ্রমিক লীগ, যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ, ছাত্রলীগ মহানগর দক্ষিণ, সম্মিলিত আওয়ামী সমর্থক জোটসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা দিনভর রাজধানীতে হরতালবিরোধী মিছিল সমাবেশ করে।

বিএনপির মিথ্যাচারে বিশ্ববেহায়াও মাথা নোয়াবে- নানক ॥ বিএনপির ডাকা হরতাল প্রত্যাখ্যান করায় দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানান আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক। হরতাল চলাকালে সাংবাদিক সম্মেলন করে এ দাবি করে নানক বলেন, বিএনপির মিথ্যাচারের নমুনা দেখলে বিশ্বজনস্বীকৃত বিশ্ব বেহায়াগুলোও মাথা নোয়াবে। বিএনপির কোন কর্মকা-ে আওয়ামী লীগ বাধা দিচ্ছে না। তারেক রহমান বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি করায় যারা হৃদয়ে আঘাত পেয়েছেন তারাই বিএনপির কর্মকা-ে বাধা দিচ্ছে। ধানম-ির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর কার্যালয়ে দুপুরে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে নানক আরও বলেন, আওয়ামী লীগ গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। এই দলের অভ্যন্তরেও গণতন্ত্র চর্চা হয়। তাই কোন গণতান্ত্রিক কর্মকা-ে বাধা দেয়ার অভিপ্রায় আওয়ামী লীগের নেই। তিনি বলেন, তারেক রহমান বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি করার আগে তারা অনেক সভা সমাবেশ করেছে, কোথাও কেউ বাধা দেয়নি। এই ঘটনার পর থেকে দেশবাসীর হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে। যে কারণে মানুষ তাদের বাধা দিচ্ছে।

তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারির আগে আমরা অগ্নিপরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছি। আমরা ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছি তাই বলে এটাকে দুর্বলতা হিসেবে নেয়ার কিছু নেই। দেশকে স্বাভাবিক রাখতে যে কোন পদক্ষেপ নেয়া হবে। বিএনপি নেতা রিজভী আহমেদের এক মন্তব্যের প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, তারা (বিএনপি) কিভাবে আমাদের কর্মসূচী পালনে বাধা দেয় তা আমরা দেখতে চাই।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন হাবিবুর রহমান সিরাজ, আবদুস সাত্তার এমপি, ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, এ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি, সুজিত রায় নন্দী, আমিনুল ইসলাম আমিন, এনামুল হক শামীম, এস এম কামাল প্রমুখ।

নাশকতা করলেই গণধোলাই- ড. হাছান ॥ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীরা ডাকাত-ছিনতাইকারীদের চেয়েও ভয়ঙ্কর। এরা (বিএনপি-জামায়াত) আর রাজনৈতিক কর্মী নয়, দুষ্কৃতকারী। এদের বিরুদ্ধে পাড়া-মহল্লায় প্রতিরোধ করতে হবে। এদের যেখানেই পাবেন, গণধোলাই দেবেন। খালেদা জিয়া দুষ্কৃতকারীদের নেত্রী। পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করা কোন রাজনৈতিক কর্মীর কাজ নয়।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের হরতালবিরোধী সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ড. হাছান আরও বলেন, বিএনপির হরতাল জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে। গাজীপুরে সমাবেশ না করতে পারার লজ্জা ঢাকতেই খালেদা জিয়া হরতাল দিয়েছেন। কিন্তু রাজধানীর চিত্র দেখলে মনে হবে না হরতাল হয়েছে। ঢাকাবাসীসহ দেশের মানুষ হরতাল প্রত্যাখ্যান করেছে।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, মহানগরের নেতা হেদায়েতুল ইসলাম স্বপন, শিক্ষক নেতা অধ্যক্ষ শাজাহান আলম সাজু প্রমুখ।

প্রকাশিত : ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪

৩০/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: