আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মেট্রোরেল ও এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কাজ শুরু হয়েছে ॥ ও. কাদের

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যোগাযোগ ক্ষেত্রে দেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মেট্রোরেল ও এলিভেটেড এক্সপ্রেস ওয়ের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। ২০১৭-২০১৮ সালের মধ্যে এই প্রকল্পগুলোর কাজ শেষ হয়ে গেলে ঢাকা হবে হংকংয়ের মতো নয়নাভিরাম সিটি। নয়ন জুড়ানো পরিবেশ সৃষ্টি হবে এই নগরীতে। দক্ষিণাঞ্চলের সব রাস্তা ক্রমান্বয়ে চারলেনে উন্নীত করা হবে। দোতলা রাস্তার উপরে গাড়ি, নিচে রেল। এক উন্নত বাংলাদেশ। মংগাকবলিত পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা গেলে মনে হবে আপনি কোন ইউরোপের রানওয়ে অবস্থান করছেন। সেই রাস্তাগুলোর ওপর প্লেন নামতে পারবে। বর্তমানে পুরো বাংলার সর্বত্র অগ্রগতি হচ্ছে।

শনিবার রাজধানীর কাকরাইলস্থ ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ ভবনে “মহান বিজয় দিবসের আলোচনা ও আইডিইবি’র প্রতিনিধি সম্মেলন ২০১৪’’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, রাজনীতিতে বেপরোয়া ভাষার ব্যবহার, বেপরোয়া গাড়ি চালানোর মতোই বিপজ্জনক। শান্তিপূর্ণ পথে রাজনৈতিক আন্দোলন গণতান্ত্রিক অধিকার, কিন্তু আন্দোলনের নামে সহিংসতা ও বেপরোয়া রাজনীতি কেউ বরদাস্ত করবে না। সরকার তখন জানমাল রক্ষায় সচেষ্ট হবে।

যানজট প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, ফ্লাইওভারে রাজধানীর যানজট পুরোপুরি কমবে না। তবে মেট্রোরেলের কাজ শেষ হয়ে গেলে যানজট কমতে পারে। যানজট আমরা নিজেরাই তৈরি করি। ভিআইপিরা ট্রাফিক আইন মানেন না। অসচেতনভাবে তারা রঙ সাইড দিয়ে গাড়ি চালান। তখন অপরপাশে শত শত গাড়ির দীর্ঘ সারি। তাই গণ্যমান্য ব্যক্তিরা নিয়ম না মানলে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে না। যানজট নিরসনে সচেতনতা অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

মন্ত্রী আরও বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে আগামী ঈদের সময় আর কোন জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হবে না। কোন কাজ শুরু করতে গেলে এর সৃষ্টিকালীন সময়ে কিছু সমস্যা হয়। এটা মেনে নিতে হবে। বুয়েটের বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী আগামী ৬ মাসের মধ্যে সারা দেশের মহাসড়কের বাঁকগুলো সোজা করার প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। রাস্তায় গাড়ি চালানোর সময় “রাস্তার রাজা” হয়ে যাওয়া মনোবৃত্তি দূর করতে হবে।

এ কে এম এ হামিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের স্বাগত ও সূচনা বক্তব্যে আইডিইবির সাধারণ সম্পাদক শামসুর রহমান গত ২৩ এপ্রিল আইডিইবি’র জাতীয় সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন সরকারের উন্নয়ন-উৎপাদনের শতকরা ৮০-৮৫ ভাগ সম্পন্ন করেন দেশের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়াররা। আমরা শেখ হাসিনার সরকারের প্রতি সব সময় অত্যন্ত আন্তরিক। দেশের মূল সম্পদ হচ্ছে জনগণ। জনগণকে দক্ষ করে তুলতে পারলে বাংলাদেশ অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জিত হবে।

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

২৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: