কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সংশয়ে জার্মান গোলরক্ষক নিউয়ের!

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪
সংশয়ে জার্মান গোলরক্ষক নিউয়ের!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সবচেয়ে মর্যাদার স্বীকৃতি একজন ফুটবলারের জন্য ব্যালন ডি’অর পুরস্কারটা হাতে পাওয়া। প্রথমবারের মতো তিনজনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় স্থান পেয়েছেন জার্মানির বিশ্বকাপজয়ী গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নিউয়ের। বিশ্বকাপে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখানোর সুবাদে সেরা গোলরক্ষক হিসেবে জিতেছেন ‘গোল্ডেন গ্লোভ’ এ্যাওয়ার্ড। এবার আরেকটি মর্যাদার পুরস্কার পাওয়ার লড়াইয়ে আছেন জার্মান জায়ান্ট বেয়ার্ন মিউনিখের এ গোলপ্রহরী। তবে সত্যটা নিজেই বুঝতে পারছেন ২৮ বছর বয়সী নিউয়ের। তাঁর সঙ্গে তিনজনের তালিকায় থাকা চারবারের ফিফা বর্ষসেরা বার্সিলোনার আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি ও দু’বারের বর্ষসেরা রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগীজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ব্যালন ডি’অর জিতে তাঁর চেয়েও অনেক এগিয়ে। এ কারণে নিজেকে নিয়ে সংশয়ে আছেন নিউয়ের। তিনি ধরেই নিয়েছেন ব্যালন ডি’অর পাবেন না।

১৯৯০ সালে সর্বশেষবার কোন জার্মান ফুটবলার ফিফা বর্ষসেরা হয়েছিলেন। সেবার পুরস্কার জুটেছিল লোথায় ম্যাথাউসের ভাগ্যে। আর সর্বশেষ কোন গোলরক্ষক বর্ষসেরা হয়েছিলেন ১৯৬৩ সালে। সেবার সোভিয়েত রাশিয়ার লেভ ইয়াশিন হয়েছিলেন বর্ষসেরা। কিন্তু এরপর আর কোন গোলরক্ষক ফিফা বর্ষসেরা হতে পারেননি। তাই দারুণ এক ইতিহাস হওয়ার সুযোগ নিউয়েরের সামনে। কিন্তু দুর্দান্ত ফর্মে থাকা গতবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী রোনাল্ডোর চেয়ে অনেক পিছিয়ে তিনি। তাঁর চেয়েও রোনাল্ডোর বড় প্রতিদ্বন্দ্বী মেসি। সত্যটা বুঝতে পারছেন নিউয়ের নিজেই। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি নিশ্চিতভাবেই ফেবারিট নই। অন্য দু’জন আন্তর্জাতিক মহাতারকা। আমি তো আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো বা লিওনেল মেসির মতো আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড নই। সে কারণেও তাঁরা বেশ সুবিধাজনক অবস্থানে আছেন। তাই মনে হচ্ছে ব্যালন ডি’অরটা আমি পাব না।’ তবে সম্প্রতি পারফর্মেন্সে যদি সেরার শিরোপা বাছাইয়ের নির্ণায়ক হয় তাহলে দেখা যাবে জার্মান এ গোলরক্ষক মেসি-রোনাল্ডোর চেয়ে কম কিছু নয়, বরং বেশি। ফুটবল বিশ্বে গোলরক্ষকের সংজ্ঞাকেই পাল্টে ফেলেছেন নিউয়ের। ব্রাজিল বিশ্বকাপ উত্তর ফুটবল তাঁকে জানে, সুইপার নিউয়ের বলে। কিন্তু তারপরেও তিনি জানেন না, আদৌ শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার তিনি পাবেন কি না। বলেছেন, ‘ব্যালন ডি’অরের একজন দাবিদার হিসেবে আমাকে ভাবা হয়েছে, তাই যথেষ্ট। আমি তাতেই গর্বিত। বাকি যে দু’জন আছে, তারা মহাতারকা, দুনিয়া জুড়ে ওদের পরিচিতি এবং সুখ্যাতি। তাই ওরা এগিয়ে আমার চেয়ে।’

নিউয়ের নিজেকে নিয়ে সংশয়ে থাকলেও জার্মান দলের বিশ্বকাপ জেতানো কোচ জোয়াকিম লো তাঁকেই বিশ্বসেরা বলে মনে করছেন। তিনিই সবচেয়ে ভালভাবে জানেন নিজের শিষ্য সম্পর্কে। এ কারণে লো বলেন, ‘ম্যানুয়েল এই পুরস্কারের প্রাপ্য। তিনি খেলাটিকে নতুন এক মাত্রায় নিয়ে গেছেন। কাজেই আমি মনে করি এবার তাঁরই এ পুরস্কারটা পাওয়া উচিত।’ চূড়ান্ত তিনজনের তালিকা করা শেষ। এবার পুরস্কার ঘোষণা বাকি। এবার জুরিখে বর্ণাঢ্য এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে। আগামী ১২ জানুয়ারি জানা যাবে শেষ পর্যন্ত মর্যাদার ব্যালন ডি’অর কার হাতে উঠছে। তবে বিভিন্ন ভোটাভুটি আর জরিপে সবাই এগিয়ে রাখছেন রোনাল্ডোকেই। গতবার বর্ষসেরা হওয়ার পর নৈপুণ্যে বিন্দুমাত্র ঘাটতি দেখা দেয়নি এ পর্তুগীজ তারকার। তাই মেসিকেও কিছুটা পিছিয়ে রাখা হচ্ছে।

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

২৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: