কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রুশকন্যা মারিয়ার নতুন চ্যালেঞ্জ

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪
রুশকন্যা মারিয়ার নতুন চ্যালেঞ্জ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ রাশিয়ান টেনিসের তো বটেই। বিশ্ব টেনিসের সেরা তারকার নাম মারিয়া শারাপোভা। বিশ্ব টেনিসের শীর্ষস্থান দখল করেছেন আরও আগেই। সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে জিতেছেন পাঁচটি গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট। শেষটি গত ফ্রেঞ্চ ওপেনে। শুধু কোর্টের পারফর্মেন্সেই নয় বরং অসাধারণ রূপের কারণে টেনিসের গ্ল্যামারগার্ল খ্যাতাবটাও তার দখলে। চোট-শঙ্কার মধ্যে দিয়ে ২০১৪ সালটা শুরু হলেও শেষটা ভালভাবেই কেটেছে তার। ক্যারিয়ারের পঞ্চম গ্র্যান্ডসøাম জয় ছাড়াও বেশ কয়েকটি টুর্নামেন্টেই নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ পান তিনি। সেরেনা উইলিয়ামসকে হটিয়ে টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানটা পুনরুদ্ধারের সুযোগও এসেছিল তার সামনে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হলে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থেকেই মৌসুম শেষ করেন সেরেনা। আর শারাপোভার শেষ হয় দুইয়ে থেকে।

তাই চ্যালেঞ্জ নিয়েই শুরু হবে মারিয়া শারাপোভার নতুন মৌসুম। নতুন মৌসুমে ব্রিসবেন ইন্টারন্যাশনাল টুর্নামেন্টে খেলতে নামবেন মারিয়া শারাপোভা। কিন্তু একই সপ্তাহে হোপম্যান কাপে খেলার জন্য এই ইভেন্টে অংশগ্রহণ করবেন না সেরেনা উইলিয়ামস। তাই মৌসুমের শুরুতেই শারাপোভার সামনে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। আর মৌসুমের প্রথম টুর্নামেন্টে জয়ের দেখা পেলে পরের ইভেন্টগুলোতেও নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ পাবেন মাশা। তাই ব্রিসবেনে সহজ আবহাওয়াই আশা করছেন রাশিয়ান টেনিসের গ্ল্যামারগার্ল শারাপোভা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি সবসময় ব্রিসবেনের স্বাভাবিক আবহাওয়াটাই পছন্দ করি। এখানকার ভক্ত-অনুরাগীরাও খুব ভাল। এখানকার মানুষের প্রতি আমার অসম্ভব সম্মান এবং ভালবাসা রয়েছে। এই শহরে আমি খুবই উপভোগ করি। প্রকৃতপক্ষে আমার কাছে মনে হয় দারুণ এক টুর্নামেন্ট দিয়েই বছরটা শুরু হতে যাচ্ছে।’ চলতি মৌসুমে একটি গ্র্যান্ডসøাম শিরোপা জিতেছেন শারাপোভা। তবে কোন রকমের চোট না পেয়ে বছর শেষ করতে পেরে দারুণ আনন্দিত এই রাশিয়ান কন্যা। আর নতুন মৌসুমে গ্র্যান্ডসøাম যোগ করাই তার মূল লক্ষ্য। এ বিষয়ে ২৭ বছর বয়সী এই টেনিস তারকা বলেন, ‘নতুন মৌসুমে আরও গ্র্যান্ডসøাম যোগ করাই আমার মূল লক্ষ্য। গত মৌসুমে আমি একটি বিষয়ে খুব সতর্ক ছিলাম। আর তা হলো ইনজুরি না পেয়েই বছর শেষ করা। শেষ পর্যন্ত সেটা করতে সক্ষম হয়েছি। এখন নতুন মৌসুমের নতুন চ্যালেঞ্জ গ্রহণে আমি খুবই আত্মবিশ্বাসী।’

১৯৮৭ সালের ১৯ এপ্রিল রাশিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি। বাবা উইরি শারাপোভা এবং মা ইয়েলিনা শারাপোভা। ২০০৪ সালে ১৭ বছর বয়সে পেশাদারী টেনিসে অংশগ্রহণ করেন তিনি। সেরেনা উইলিয়ামসকে উইম্বল্ডন চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে হারিয়ে প্রথম গ্র্যান্ডসøাম শিরোপা জেতেন। এরপর ২০০৬ সালে ইউএস ওপেন, ২০০৮ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন এবং ২০১২ সালে ফ্রেঞ্চ ওপেনের পর ২০১৪ সালে আবারও ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জিতেন। গত মৌসুমের মাঝামাঝি সময়ে গ্রিগর দিমিত্রোভের সঙ্গে নতুন করে সম্পর্ক হয় মারিয়া শারাপোভার। এর আগে বাস্কেট বল তারকা শাশা ভুজাসিচের সঙ্গে আংটি বদল হয়ে গিয়েছিল। অপেক্ষায় ছিল সুখের সংসার সাজানোর। কিন্তু সেই সাজানো বাগান তছনছ করেই বিচ্ছেদের সুর টানেন টেনিস বিশ্বের সবচেয়ে আকর্ষণীয় এই তারকা। শাশা ভুজাসিচের সঙ্গে সম্পর্ককে অতীত করে নতুন প্রেমে মজেন তিনি। বয়সে রুশ সুন্দরী মারিয়া শারাপোভার চেয়ে ৫ বছরের ছোট দিমিত্রোভ। কিন্তু প্রেমের ক্ষেত্রে তো বয়স আর বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে না। তবে শুরুতে তাদের সম্পর্কটা দারুণ কাটলেও প্রেমের বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বৃদ্ধি পাচ্ছে কিছু জটিলতাও। যেমন টুইটারে ফলোয়ারিং নিয়েও বিতর্ক শুরু হয় তাদের। এর আগেও দুই তারকার সম্পর্কের মধ্যে সমস্যা তৈরি হয়েছিল। টেনিসের সেরা রোমাঞ্চ ধরা হয় ’৭০ দশকের দুইজন নাম্বার ওয়ান ক্রিস এভার্ট ও জিমি কোনর্সের সম্পর্কটাকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পরিণতি পায়নি সেটা। বাস্কেটবলের তারকা শাশা ভুজাসিচের সঙ্গে দারুণ সম্পর্কটা টেকেনি শারাপোভার। গ্রিগর দিমিত্রোভের সঙ্গে কতদিন চলবে এই সম্পর্ক সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

২৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: