কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ভালুকায় সরকারী খাল দখল করে মাছ চাষ

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪
  • ফসলহানির আশঙ্কা

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভালুকা, ময়মনসিংহ, ২৭ ডিসেম্বর ॥ ভালুকায় সরকারী খাল দখল করে বিশাল আকারের মাছের খামার তৈরি করেছেন এক প্রভাবশালী। এতে উজানের প্রায় শতাধিক একর ফসলি জমি জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে এলাকার জনসাধারণের ফসলহানিসহ ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, উপজেলার ডাকাতিয়া ও মল্লিকবাড়ি ইউনিয়নের সীমান্তবর্র্তী সোনাখালী জোকেধরা ব্রিজের পার ঘেঁষে পুরোখাল মাটি ভরাট করে মাছের খামার তৈরি করছে সোনাখালী গ্রামের আব্দুল আওয়ালের ছেলে মোতালেব মিয়া। সরকার যখন খাল বাঁচাও নদী বাঁচাও হাতে নিয়ে ব্যাপক কর্মসূচী হাতে নিয়েছে ঠিক তখনি একটি স্বার্থান্বেষী মহল সরকারী খাল ভরাট করে নিজস্ব মৎস্য খামার তৈরি করে ওই খালটি দখল করে নিচ্ছে। স্থানীয় আবুল হোসেনের ছেলে উসমান, ফজলুল হক জানান, বেশ কয়েক বছর পূর্বে ওই ব্রিজের উজানে জনৈক আলী হোসেন, আহম্মদ আলী, আব্দুল মজিদ ও আবু সাইদসহ কতিপয় লোক খাল ভরাট করে বোরো ফসল আবাদ করে আসছে। গত আড়াই বছর পূর্বে ব্রিজের ভাটি এলাকায় মমিন উদ্দিন ও তার দুই ছেলে আব্দুল মালেক ও আব্দুল মান্নান খাল ভরাট করে বোরো জমি তৈরি করে এবং গত ১৫ দিন ধরে ব্রিজের মুখসহ পুরো খাল ভরাট করে মাছের খামার তৈরি করছেন মোতালেব মিয়া।

এলাকাবাসী আরও জানান, এক সময় জোকেধরা নদী ছিল, যার প্রমান ভাটি এলাকায় যে ব্রিজটি রয়েছে তার নাম ফলকে উল্লেখ রয়েছে। স্থানীয় কিছু লোকের আস্তে আস্তে মাটি ভরাট করার কারণে খালটি এখন বিলুপ্ত হতে চলেছে।

এ ব্যাপারে খাল দখলকারী অভিযুক্ত আব্দুল মোতালেব মিয়া জানান, খালে আমার জমি রয়েছে, তাই তা ভরাট করেছি। স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার রফিকুল ইসলাম জানান, বিষয়টি চেয়ারম্যানকে জানানো হয়েছে।

ডাকাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুজ্জামান লস্কর জানান, ভালুকায় যাওয়ার আসার পথে ঘটনাটি আমার চোখে পড়েছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেয়া হচ্ছে।

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

২৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: