মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

দৈনিক ইত্তেফাকের প্রকাশনা ৬২ বছরে পা

প্রকাশিত : ২৫ ডিসেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী সংবাদপত্র দৈনিক ইত্তেফাক প্রকাশনার ৬২তম বর্ষে পদার্পণ করেছে ২৪ ডিসেম্বর। বুধবার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে রাজধানী ঢাকা ও খুলনায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। রাজধানীর ইত্তেফাক ভবনে কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

ইত্তেফাক বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী সংবাদপত্র মন্তব্য করে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, ইতিহাসের বিভিন্ন পর্যায়ে জনগণের কথা স্পষ্ট করে তুলে ধরেছিল ইত্তেফাক। তিনি বলেন, ৬২ বছর পথ চলায় বলিষ্ঠ উচ্চারণে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ উপস্থাপনে এক অনন্য সংবাদপত্র দৈনিক ইত্তেফাক।

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, মওলানা ভাসানী, শহীদ সোহরাওয়ার্দী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তোফাজ্জন হোসেন মানিক মিয়া এই চারজনের ভূমিকায় ইত্তেফাক।

তিনি বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধের গণদাবির মুখপত্র হিসেবে ইত্তেফাক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশে ইত্তেফাক বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করে এসেছে, আগামীতেও এর দাপট টিকে থাকবে বলে তিনি আশাপ্রকাশ করেন।

ব্যারিস্টার আমীরুল ইসলাম বলেন, এদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলন, ৬ দফা থেকে শুরু করে ১১ দফা, আইয়ুব-মোনায়েমের পতন এবং বাংলাদেশের ইতিহাসে ইত্তেফাকের যে ভূমিকা রেখেছে তা চিরস্মরণীয়। তিনি বলেন, ইত্তেফাকের মালিকানা প্রজন্মের পর প্রজন্ম বদলালেও এর বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশায় কোন ঘাটতি আসেনি।

ইত্তেফাক সাংবাদিক তৈরির আঁতুড় ঘর মন্তব্য করে তিনি বলেন, অনেক কলামিস্ট সাংবাদিক ইত্তেফাকের সৃষ্টি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি স্পীকার ফজলে রাব্বি মিয়া, দৈনিক ইত্তেফাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাসলিমা হোসান, সমকাল সম্পাদক গোলাম সারোয়ার, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার প্রধান সম্পাদক ও এমডি আবুল কালাম আজাদ, এটিএন নিউজের হেড অব নিউজ মুন্নী সাহা, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, এম কে আনোয়ার, ড. মঈন খান, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ, ঢাকার জেলা পরিষদ প্রশাসক হাসিনা দৌলা প্রমুখ।

এদিকে ঢাকার বাইরে খুলনাতেও আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পালিত হয় দৈনিক ইত্তেফাকের ৬২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। খুলনা ব্যুরো অফিসের উদ্যোগে বুধবার স্থানীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ উপলক্ষে সুধী সমাবেশ, র‌্যালি ও কেক কাটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য ও খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, জেলা পরিষদের প্রশাসক ও খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হারুনুর রশিদ, খুলনা বিভাগীয় প্রেসক্লাব ফেডারেশনের চেয়ারপার্সন লিয়াকত আলী কেক কেটে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন।

অনুষ্ঠানে খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি ফারুক আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক এসএম জাহিদ হোসেন, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম কাজল, সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম সোহাগ, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মকবুল হোসেন মিন্টু ও শেখ আবু হাসান, সিটি কর্পোরেশনের ২২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাহবুব কায়সারসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে প্রেসক্লাব থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে নগরীর কয়েকটি সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

প্রকাশিত : ২৫ ডিসেম্বর ২০১৪

২৫/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: