কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চিকিৎসার জন্য অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন তামিম

প্রকাশিত : ২৪ ডিসেম্বর ২০১৪

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এবার বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম খেলা ১৮ ফেব্রুয়ারি। হাতে সময় আছে ৫৬ দিন। অর্থাৎ ৮ সপ্তাহ। বিশ্বকাপ খেলতে হলে এ সময়ের আগেই হাঁটুর ইনজুরি থেকে মুক্ত হতে হবে বাংলাদেশ ওপেনার তামিম ইকবালকে। এ জন্য আর দেরি নয়, এ সপ্তাহেই অস্ট্রেলিয়ায় উড়াল দেবেন দলের নির্ভরযোগ্য এ ওপেনার। অস্ত্রোপচার করেই ইনজুরি সমস্যার সমাধান করতে চান তামিম। অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে অস্ট্রেলিয়ার শল্যবিদ ডেভিড ইয়াংয়ের সঙ্গে দেখা করবেন। আগামী সপ্তাহের শুরুতেই তামিমের অস্ত্রোপ্রচার হয়েও যেতে পারে। বিসিবির একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে এমনই জানা গেল।

তবে বিসিবির চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী এ বিষয়টি বলতে রাজি নন। তিনি শুধু জানিয়েছেন, ‘যোগাযোগ চলছে। দ্রুতই অস্ট্রেলিয়ার চিকিৎসকের পরামর্শ পেয়ে যাব আশা করি। আসলে এখন ক্রিসমাসের প্রস্তুতি চলছে। এমন সময় কাউকে পাওয়াও কঠিন। এরপরও আশা করছি দ্রুতই একটি ফল পেয়ে যাব।’ অবশ্য তামিমের অস্ট্রেলিয়া যাওয়া নিয়ে যে ভিসার সব কাজই শেষ করে ফেলা হচ্ছে, তা ঠিকই জানিয়ে দিলেন দেবাশিষ- ‘আমরা অস্ট্রেলিয়ায় তামিমের যাওয়ার জন্য ভিসা থেকে শুরু করে সব কাজই করে রাখছি। যেতে হলে যেন দ্রুতই পাঠিয়ে দেয়া যায়, সেই কাজ সেরে রাখছি।’

যদি শেষ পর্যন্ত অস্ত্রোপচার করাই হয়, সেক্ষেত্রে তামিম কতদিনে সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরতে পারবেন? দেবাশিষ জানালেন, ‘এটা বলা কঠিন। কী রকম অপারেশন হবে এর ওপরই সব নির্ভর করছে। সেই সঙ্গে অপারেশন করছেন কে, সেটিও একটা বিষয়। তিন সপ্তাহ লাগতে পারে। চার সপ্তাহও লাগতে পারে। আবার এর চেয়ে বেশি সময়ও লাগতে পারে।’ সব মিলিয়ে ৭ সপ্তাহ লাগলেও কোন অসুবিধা নেই। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের খেলা শুরু হতেই যে বাকি ৮ সপ্তাহ। তাই বোঝাই যাচ্ছে তামিম বিশ্বকাপ দলে থাকছেনই। সাধারণত এমন ইনজুরির পর অস্ত্রোপচার করতে নাকি ৪ সপ্তাহ সর্বোচ্চ লাগে। এরপরই দৌড়ানো যায়। আর যেহেতু তামিম একজন ব্যাটসম্যান, তাই ৬ সপ্তাহেও যদি ব্যাট হাতে নিতে পারেন, তাহলেও ক্ষতি কী। তার মানে তামিম বিশ্বকাপে খেলছেন।

অস্ত্রোপচার করার পর তামিমের খেলার সম্ভাবনা থাকলেও এ ওপেনারের এমন সংবাদে সবাই ভীত। যদি শেষ পর্যন্ত কোন কারণে খেলতে না পারেন এ ওপেনার! তাহলেতো বাংলাদেশ দল বিশ্বকাপে অন্তত টপঅর্ডারে দুর্বল হয়ে পড়বে। তবে সবাই আশায় বুক বেঁধেছেন সময় নিয়ে। বিশ্বকাপ শুরু হবে ১৪ ফেব্রুয়ারি। বাংলাদেশ দলও ২৪ জানুয়ারি অস্ট্রেলিয়া যাবে। তবে বাংলাদেশের খেলা শুরু হতে এখনও ৫৬ দিন বাকি। তামিম দলের সঙ্গে গিয়ে অস্ট্রেলিয়াতেও ইনজুরিমুক্ত হওয়ার জন্য কাজ করে যেতে পারবেন।

তামিমের বাঁ হাঁটুর মিনিসকাস ছিঁড়ে গেছে। গ্রেড-১ পর্যায়ের চোট এটি। তামিম অস্ত্রোপ্রচার না করেও বিশ্রাম, পুনর্বাসন, ব্যায়াম ও ফিজিওথেরাপি নিয়ে হাঁটুর চিকিৎসা করাতে পারবেন। তবে এগুলো করার পর ফল আসতে অনেক দেরি হওয়ারও সম্ভাবনা থাকে। তাইতো দেবাশিষ বলেছেন, ‘এ ধরনের চিকিৎসার ফলাফল আগে থেকে অনুমান করা কঠিন। বরং অস্ত্রোপচার একটা সুনির্দিষ্ট চিকিৎসা। এ ধরনের চোটের অস্ত্রোপচার হলে সুস্থ হতে চার সপ্তাহের বেশি সময় লাগতে পারে।’ বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশ দল ঘোষণা করতে হবে ৭ জানুয়ারির মধ্যে। স্বাভাবিকভাবেই এখন দল ঘোষণার শেষ দিনটিই বেছে নেয়া হবে। তামিমও নিশ্চয়ই সেই দলটিতে থাকবেন। চার সপ্তাহ কেন, ৬ সপ্তাহ লাগলেও অসুবিধা নেই। তামিমের হাতে যে আছে মোট ৮ সপ্তাহ।

প্রকাশিত : ২৪ ডিসেম্বর ২০১৪

২৪/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: