মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তামিমের বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে শঙ্কা!

প্রকাশিত : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৪
  • বাঁ হাঁটুতে ইনজুরি, অস্ট্রেলীয় চিকিৎসকের শরণাপন্ন বিসিবি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ একাদশ বিশ্বকাপ সন্নিকটে। এখন শুধু বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নেয়া ছাড়া কোন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ব্যস্ততা নেই বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। তবে চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লীগে খেলে নিজেদের ঝালিয়ে নিচ্ছেন ক্রিকেটাররা। সম্প্রতিই সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে পূর্ণাঙ্গ একটি সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ দল। এই সিরিজে ক্রিকেটাররা নিজেদের ছন্দ ফিরে পেয়েছেন, হারানো পারফরম্যান্সও ফিরে পেয়েছেন অনেকে। দীর্ঘদিন রান খরায় থাকা বাংলাদেশের অপরিহার্য ওপেনার বাঁহাতি ড্যাশিং ব্যাটসম্যান তামিম ইকবালও নিজেকে ফিরে পেয়েছেন। সেই তামিমকে নিয়েই এখন শঙ্কার কালো মেঘ তৈরি হয়েছে। বিশ্বকাপ খেলতে পারবেন কিনাÑ সেটা নিয়েই এ শঙ্কা। দীর্ঘদিন ধরে হাঁটুর ব্যথায় ভোগা তামিমের এমআরআই রিপোর্ট হতাশার বার্তা নিয়ে এসেছে। সোমবার আসা রিপোর্টে দেখা গেছে তামিমের হাঁটুর মিনিসকাস ছিঁড়ে গেছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড থেকে (বিসিবি) অস্ট্রেলিয়ার ডাক্তারদের কাছে প্রতিবেদন পাঠিয়ে পরামর্শ চাওয়া হয়েছে। আগামী ৭ জানুয়ারির মধ্যেই বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করতে হবে। তাই বিসিবি বিনা অস্ত্রোপচারে তামিমকে এর আগেই সেরে তুলতে চাইছে। তবে অসি ডাক্তাররা অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিলেন এত দ্রুত সেরে উঠার সম্ভাবনা নেই তামিমের। সে কারণে তাঁর বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে তৈরি হয়েছে সংশয়।

বারবার সঙ্গী পাল্টালেও ইনিংস উদ্বোধনে নিয়মিতভাবেই বাংলাদেশ দলে আছেন বাঁহাতি তামিম। এর অর্থ তিনি একেবারেই অপরিহার্য দলের জন্য। কিন্তু আবার ইনজুরি সমস্যার কারণে আগামী ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিতব্য একাদশ বিশ্বকাপে তাঁর খেলা নিয়ে তৈরি হয়েছে সংশয়। সোমবার এমআরআই রিপোর্ট হাতে এসেছে কিন্তু রিপোর্ট প্রতিবেদনটা দেশের ক্রিকেটের জন্য তেমন সুখকর বার্তা বয়ে আনতে পারেনি। দীর্ঘদিন হাঁটুর সমস্যায় ভোগার কারণে অবশেষে এমআরআই করানো হয় এ বাঁহাতির হাঁটুর। তামিমের বাঁ হাঁটুর মিনিসকাস ছিঁড়ে গেছে বলে নিশ্চিত করেছে এমআরআই রিপোর্ট? এতে তামিমের বিশ্বকাপ খেলা অনিশ্চয়তায় ঢেকে গেছে। তবে এখনই বলা যাবে না তামিমের বিশ্বকাপ শেষ। কারণ বিসিবি চাইছে তাঁকে বিশ্রামে রেখেই সেরে তুলতে। অস্ত্রোপচার করানো হলে অনেক সময় লাগবে তাঁর সেরে উঠার জন্য। এ কারণে বিসিবি তামিমের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে অস্ট্রেলীয় চিকিৎসকদের দ্বারস্থ হয়েছে। এ বিষয়ে বিসিবির চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা এখানকার রিপোর্টগুলো ওদের কাছে আজকে (সোমবার) পাঠিয়েছি। ওদের কাছ থেকে একটা পরামর্শ আশা করছি শীঘ্রই পাব। এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়া থেকে যদি অস্ত্রোপচারের দিকনির্দেশনা আসে তবে যত দ্রুত সম্ভব তাঁকে অস্ট্রেলিয়ায় পাঠাতে হবে। এখন সবকিছুই নির্ভর করছে ওখানকার ডাক্তাররা কী পরামর্শ দেন তার ওপর।’

তামিমের ব্যাপারে আপাতত দুটি রাস্তাই খোলা রাখতে চাইছে বিসিবি? অস্ত্রোপচার না করিয়েই যদি আপাতত তাঁকে খেলার জন্য ফিট করে তোলা যায় সেটাই প্রথম চাওয়া? এ ধরনের অস্ত্রোপচার জটিল কিছু না হলেও পুনর্বাসন শেষে পুরো ফিট হয়ে মাঠে ফিরতে চার সপ্তাহের কিছু বেশি সময় লেগে যায়। বিশ্বকাপ শুরু হতে ৭ সপ্তাহ বাকি? আর চূড়ান্ত দল ঘোষণা করতে হবে ৭ জানুয়ারির মধ্যেই। দেবাশিষ চৌধুরী বলেন, ‘তামিম বাম হাঁটুর ব্যথায় ভুগছিল বেশ কিছুদিন ধরেই। এ জন্য আমরা ওকে (তামিম) একটু রিহ্যাব প্রোগ্রামের আওতায় নিয়ে আসি। রিহ্যাব প্রোগ্রামের আওতায় এসে বেশ উন্নতি করেছে এবং কিছুদিন আগে তামিম ম্যাচও খেলেছে। অনেক সময় এই ধরনের ইনজুরি বিশ্রামেও ভাল হয়ে যায়। আবার অনেক সময় দেখা যায় অনেক খেলোয়াড় এই ইনজুরি নিয়ে পুরো ক্যারিয়ারও পার করে দিতে পারে। এটা খুব বড় ইনজুরি নয় যে অনেক দিন খেলার বাইরে থাকতে হবে। যাই হোক না কেন আমরা আশা করি খুব শীঘ্রই সেরে উঠবে তামিম। তার যে ফিটনেস কন্ডিশন, ও (তামিম) কিন্তু এ ধরনের ব্যথা নিয়ে গত ম্যাচটাও খেলেছে। আমি মনে করি না যে এই ইনজুরি ওকে খেলা থেকে একেবারে সরিয়ে রাখবে। এটা নির্ভর করছে খেলোয়াড়দের ক্ষমতা, আত্মবিশ্বাসের ওপর।’

প্রকাশিত : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৪

২৩/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: