আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পঞ্চগড়ে এডিবির অর্থ বণ্টন নিয়ে সভায় হট্টগোল

প্রকাশিত : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার, পঞ্চগড় ॥ পঞ্চগড়ে এডিবির উন্নয়ন প্রকল্পের অর্থ ভাগবাটোয়ারা নিয়ে সভা বর্জন করল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানরা। সোমবার দুপুরে জেলা পরিষদ হলরুমে জেলা পরিষদ কর্তৃপক্ষ প্রকল্প অনুমোদনের এই সভা আহ্বান করে। সভায় ২০১৪-১৫ অর্থবছরে এডিবি কর্তৃক বরাদ্দকৃত এক কোটি ৫৩ লাখ টাকা বিভাজন করার কথা ছিল। কিন্তু অর্থ সঠিকভাবে বণ্টন না করার অভিযোগে কমিটির সদস্য ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানরা এই সভা বর্জন করে। চেয়ারম্যানদের অভিযোগ, জেলার ৫ উপজেলায় জনসংখ্যা ও আয়তনের ওপর ভিত্তি করে বরাদ্দকৃত ১ কোটি ৫৩ লাখ টাকা বণ্টন করার কথা। সেই হিসেবে সদর উপজেলা পরিষদ ৩৪ লাখ, তেঁতুলিয়া ১৮ লাখ ৫৪ হাজার, আটোয়ারী ২০ লাখ ৫৮ হাজার, বোদা ৩৪ লাখ ২৬ হাজার এবং দেবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ ৩০ লাখ ২০ হাজার টাকা বরাদ্দ পাবে। এর মধ্যে পঞ্চগড়-১ আসনের সাংসদ ৩৭ লাখ টাকা এবং পঞ্চগড়-২ আসনের সাংসদ ৪৩ লাখ টাকার প্রকল্প প্রদান করেন। সভায় দুই সাংসদকে বণ্টনকৃত অর্থ বাদে অবশিষ্ট প্রায় ৫৭ লাখ টাকা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের মধ্যে বণ্টন করে দেয়ার অনুরোধ জানানো হয়। কিন্তু সভার সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক উপজেলা চেয়ারম্যানদের উপজেলা প্রতি মাত্র এক লাখ টাকা করে বণ্টন করে দিতে রাজি হন। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে হট্টগোলের এক পর্যায়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানগণ সভা বর্জন করে সভাস্থল ত্যাগ করেন। দেবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাসনাৎ জামান চৌধুরী জজ বলেন, এডিবির এক কোটি ৫৩ লাখ টাকা জেলা পরিষদের ১০ ভাগ এবং সংসদ সদস্যদের পাঠানো প্রকল্প বাদ দিয়ে জনসংখ্যা ও আয়তনের ভিত্তিতে আমরা বণ্টন চেয়েছিলাম। কিন্তু জেলা পরিষদ প্রশাসক আমাদের মতামতকে উপেক্ষা করে এককভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করায় আমরা সভা বর্জন করি। জেলা পরিষদ প্রশাসক এ্যাডভোকেট আবু বক্কর ছিদ্দিক অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সভায় প্রকল্প বণ্টনের কোন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। পাঁচ উপজেলার মধ্যে মাত্র তিনজন চেয়ারম্যান সভায় উপস্থিত ছিলেন। তারা কোন কিছু না বলেই সভাস্থল ছেড়ে যান বলে তিনি দাবি করেন।

সান্তাহারে চোরাই পণ্যের বস্তার ধাক্কায় তিন ট্রেনযাত্রী আহত

নিজস্ব সংবাদদাতা, সান্তাহার, ২২ ডিসেম্বর ॥ বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার রেলওয়ে জংশন স্টেশনে বেপরোয়া চোরাচালানিদের বহন করা ও ফেলে দেয়া জিরার বস্তার ধাক্কায় দুই নারীসহ তিন ট্রেন যাত্রী ট্রেনের দরজা থেকে প্লাটফর্ম ও ট্রেনের মাঝখানে পড়ে যায়। তাদের আকুতিতে অন্য যাত্রীদের সহযোগিতায় অল্পের জন্য তাঁরা প্রাণে রক্ষা পেলেও আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সান্তাহার স্টেশনে। জানা গেছে, ওই ট্রেনে আসা বিপুলসংখ্যক চোরাকারবারিরা ওপর থেকে ভারতীয় জিরার বস্তা ফেলে দেয়। ফেলে দেয়া বস্তার ধাক্কায় ট্রেনের দরজা ধরে উঠতে যাওয়া রোকেয়া বেগমসহ অজ্ঞাত আরও দুই ট্রেন যাত্রী ট্রেন ও প্লাটফর্মের মাঝের সরু অংশ দিয়ে নিচে পড়ে যায়। এ সময় ট্রেনটি ছেড়ে দিলে নিচে পড়ে থাকা তিন যাত্রী চিৎকার শুরু করেন। স্টেশন অপেক্ষমাণ যাত্রীরা তাদের চিৎকারে এগিয়ে আসেন এবং টেনেহিঁচড়ে তাদের উদ্ধার করেন।

প্রকাশিত : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৪

২৩/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: