রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আরও মায়ের বুক খালি হবে

প্রকাশিত : ২১ ডিসেম্বর ২০১৪
  • তেহরিক-ই-তালেবানের হিটলিস্টে এবার নওয়াজসহ পাকিস্তানের শীর্ষ কর্তাব্যক্তিদের সন্তানরা

পাকিস্তানের জঙ্গী সংগঠন তেহরিক-ই-তালেবানের (টিটিপি) টার্গেট এবার দেশটির প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর নেতা এবং সেনা অফিসারদের সন্তান। পেশোয়ারের আর্মি স্কুলে নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালানোর পর এ হুমকি দিল টিটিপি। হুমকির তালিকায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ পরিবারসহ অন্যান্য বড় রাজনৈতিক নেতা এবং সেনা অফিসারদের নাম রয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় এই হুমকি সংক্রান্ত চিঠিতে পায় পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এএফপির।

তেহরিক-ই-তালেবানের অন্যতম প্রধান নেতা মোহাম্মদ খোরাসানি লিখিত এই চিঠিতে বলা হয়েছে, সরকার যদি তাদের সংগঠন টিটিপি সদস্যদের ফাঁসিতে ঝোলানোর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করে তবেই এ ঘটনা ঘটানো হবে। ওদিকে শনিবারের এক অভিযানে পেশোয়ার হামলায় অংশ নেয়া দুই জঙ্গী নিহত হয়েছে। এই চিঠি বিষয়ে পাকিস্তান সরকারের সিনিয়র সূত্র জানিয়েছে, চিঠিটি আসলে সঠিক না ভুয়া তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, এসব শিশু এক সময় বড় হয়ে তাদের পিতা-মাতার পদাঙ্ক অনুসরণ করবে। তাই তাদের মেরে ফেলা হবে। জঙ্গী নেতা ওমর শেখের ফাঁসির বিষয়টি নিয়ে বেশ উদ্বেগে আছে তালেবান। এই জঙ্গী নেতা প্রখ্যাত সাংবাদিক ড্যানিয়েল পার্লকে অপহরণের পর হত্যা করেন। চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, বর্তমানে সরকারের হাতে আটক তালেবানের কোন সদস্যকে হত্যা করা হলে, টিটিপি আরও শিশুকে হত্যার মাধ্যমে এর কড়া প্রতিশোধ নেবে। পাকিস্তান সরকারকে আমরা সাফ জানিয়ে দিতে চাই আমাদের কোন সদস্যকে কোনপ্রকার ক্ষতি করার চেষ্টা করা হলে এর পরিণতি ভাল হবে না। এর পরিবর্তে আমরা আপনাদের শিশুদের টার্গেট করব। পরিণতিতে পাকিস্তানের রাজনৈতিক নেতা ও আর্মি অফিসারদের ঘরে ঘরে কান্নার রোল পড়বে। চিঠিতে পাকিস্তান সেনাবাহিনী এবং অত্যন্ত প্রভাবশালী গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই নিয়েও কথা বলা হয়। বিষয়ে পাকিস্তান সরকারকে দোষারোপ করে বলা হয়, সেনাবাহিনী এবং আইএসআইতে সংস্কার প্রয়োজন ছিল। কিন্তু সরকার তা করেনি। পেশোয়ারের আর্মি পাবলিক স্কুলে হামলা প্রসঙ্গে বলা হয়, মানবাধিবার সংগঠনগুলো হামলার বিষয়টি কেন জানে না। তারা কেন এই অবিশ্বাসী সরকারের সিদ্ধান্তে নিশ্চুপ থাকে। আমরা ইসলামিক শিক্ষার পক্ষে। শিশুগুলোকে হত্যা করে আমরা বুঝিয়েছি এসব শিশু একদিন বড় হয়ে তাদের পিতা-মাতার মতো ইসলাম বিরোধী কাজ করত। এ ঘটনার পর যেসব ধর্মীয় নেতা সরকারের পক্ষে কথা বলছেন আমরা তাদের সরাসরি বিতর্কের আহ্বান জানাচ্ছি। ওদিকে পাকিস্তানের জঙ্গী আস্তানায় চালানো দুই পৃথক অভিযানে ৭ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে পুলিশ ও আধা সামরিক বাহিনীর দুই সদস্য রয়েছে। শনিবার সকালে পেশোয়ারের উত্তরের শাবকদর শহরে চালানো অভিযানে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। এ অভিযানে নিহতদের মধ্যে পেশোয়ার হামলায় অংশ নেয়া দুই জঙ্গী রয়েছে। স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা ওয়ালিয়াত খান বলেন, জঙ্গিদের সঙ্গে গুলি বিনিময়কালে এক সেনা ও ফ্রন্টিয়ার সেনা নিহত হয়েছে। রশিদ খান নামে অপর এক পুলিশ কর্মকর্তা নিহতের সংখ্যা নিশ্চিত করেছে।

প্রকাশিত : ২১ ডিসেম্বর ২০১৪

২১/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: