কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সৌন্দর্যের লীলাভূমি লালাখাল

প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৪
  • অহিদ উল্লাহ পাটোয়ারী

এবার পরিকল্পনাটা আমারই। কিন্তু মুকুলভাই, ইব্রাহীম ও চঞ্চল এলাহীর আবদার ভিন্ন। বৃষ্টির এই সময়ে প্রাকৃতিক সৌন্দের্যের লীলাভূমি লালাখালে একবার না গেলেই নয়। অতঃপর ‘ঘুরে বেড়াই বাংলাদেশ’–এর বন্ধুরা ছুটলাম লালাখালের উদ্দেশে। রাতের বাসে চেপে সিলেট পৌঁছতে পৌঁছতে ভোর হয়ে গেল। তারপর শহরের ক্লিনব্রিজের পাশে হোটেল ফেমাসে গিয়ে উঠি। ঘণ্টাখানেক বিশ্রাম নিয়ে নাস্তা সেরেই বেরিয়ে পড়লাম লালাখালের উদ্দেশে। সিলেট-জাফলং সড়কের মাঝখানে আইল্যান্ডের মতো আছে জৈন্তারানির বিশ্রামাগার। এর ডান দিক দিয়ে লালাখালের রাস্তা। রাস্তার দুই পাশের সবুজ ধানক্ষেত দেখতে দেখতে হঠাৎ যখন দূরের পাহাড়গুলো দৃশ্যমান হয়ে ওঠে, তখনই স্বপন মামা বলে উঠল, আকাশটাও বদলে গেছে। উজ্জ্বল নীল আকাশ আর তার শরীরে সাদামেঘ নানা ভঙ্গিমায় নৃত্যরত। প্রায় ৪০ মিনিটে পৌঁছে গেলাম লালাখালের মুখে। এবার ঘাটের দিকে এগোই। ঘাটে অনেক মানুষ। কিন্তু নৌকা কম। তারপরও একটি ইঞ্জিননৌকা ঠিক করা হলো জিরোপয়েন্ট পর্যন্ত। নৌকা চলতে শুরু করে। দুই দিকে পাহাড় আর টিলা। একদিকে চা-বাগান। টিলার ওপারে ওয়াচ টাওয়ারের মতো দাঁড়িয়ে আছে নাজিমগড়ের আনেকটি রিসোর্ট। খালের একটা দিক বাংলাদেশ, আরেকটা ভারতে। মাঝি মনির শংকর বলল, ‘ঘুরে বেড়াই বাংলাদেশ‘-এর বন্ধুরা চাইলে চা-বাগান থেকেও ঘুরে আসতে পারেন। চা-বাগান ঘাটে নৌকা থামিয়ে চা-বাগানে ঢুকলাম। ভেতরে দেখি একটি চা ফ্যাক্টরিও আছে। সত্যি বলতে কী, এত সুন্দর প্রকৃতিকে যে এখানে খুঁজে পাব তার জন্য এতটা প্রস্তুত ছিলাম না। আবার এসে বসলাম নৌকায়। নৌকা চলছে। মুকুলভাই বলল, যতই ভেতর দিকে যাচ্ছি ততই মুগ্ধ হচ্ছি। সত্যি, এক কথায় অসাধারণ। কিছুদূর যেতেই চোখে পড়ল বিরাট এক টিলার ওপর লম্বা লম্বা গাছের সারি। সুপারির বাগান। বাগানটি পড়েছে ভারতের সীমানায়। নানা উচ্চতায় টিলার পুরোটাতেই হাজার হাজার সুপারি গাছের সারি। নৌকা কিছুদূর এগোতেই মাঝি বলল, আর যাওয়া যাবে না। এখন আমরা জিরোপয়েন্টে আছি। নদীর টলটলে পানি দেখে ‘ঘুরে বেড়াই বাংলাদেশ’-এর বন্ধুরা লোভ সামলাতে না পেরে সঙ্গে সঙ্গে ঝাঁপ দিলাম নদীতে, আহ, কী ঠা-া পানি, উঠতে মন চায় না যেন।

কীভাবে যাবেন : সড়ক, রেল ও বিমান পথে সিলেট যাওয়া যায়। লালাখাল যেতে সিলেট থেকে বাস, টেম্পো বা ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় সারিঘাট। সারিঘাটে আছে আইল্যান্ডের মতো জৈন্তা -রানির বিশ্রামাগার। এর ডান দিক দিয়ে লালাখালের রাস্তা। সেখান থেকে রিকশা বা অটোরিকশায় যাওয়া যায় লালাখাল।

প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৪

১৯/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: