আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

প্রবৃদ্ধি সাড়ে ৬ শতাংশ ছাড়িয়ে যাওয়ার আশা

প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৪

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ চলতি অর্থবছরে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি সাড়ে ৬ শতাংশ ছাড়িয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংক গবর্নর ড. আতিউর রহমান। বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সে এনসিসি ব্যাংক আয়োজিত ‘বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

তিনি জানান, আজ (বৃহস্পতিবার) বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হবে। আগে রিজার্ভের সর্বোচ্চ রেকর্ড ছিল ২২ দশমিক ৩৬ বিলিয়ন ডলার। বৃহস্পতিবার দিন শেষে রিজার্ভ ২২ দশমিক ৩৬ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে। যা দিয়ে কমপক্ষে ৭ মাসের আমদানি ব্যয় মেটানো সম্ভব হবে।

গবর্নর বলেন, দেশের অর্থনীতি এগিয়ে যাচ্ছে। একজন দিনমজুর এখন একদিনের মজুরি দিয়ে গড়ে ১১ কেজি চাল কিনতে পারেন। আগে এটি কখনই সম্ভব ছিল না। বর্তমানে অর্থনীতির যে গতি রয়েছে তাতে চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধির হার সাড়ে ৬ শতাংশ ছাড়িয়ে যাবে। মেধাবীদের বৃত্তি প্রদানের জন্য এনসিসি ব্যাংকের প্রশংসা করে গবর্নর বলেন, শিক্ষা যে কোন দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের পূর্বশর্ত। দেশের মেধাবী শিক্ষার্থীদের একটি অংশ উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পায় না। তারা দারিদ্র্যের কারণে শিক্ষা গ্রহণের কোন একটি পর্যায়ে ঝরে পড়ে। এসব দরিদ্র মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী যাতে তাদের পড়ালেখার গতি অব্যাহত রাখতে পারে সে দায়িত্ব সামাজিক, আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ আমাদের সকলের।

তিনি আরও বলেন, এনসিসি ব্যাংক কয়েক বছর ধরে সামাজিক দায়বদ্ধতা কার্যক্রমের (সিএসআর) আওতায় শিক্ষা খাতে বিশেষ অবদান রাখছে। ব্যাংকটি এ বছর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পাওয়া ২৭৫ জন দরিদ্র ছাত্র-ছাত্রীকে বৃত্তি প্রদান করছে। এটি সত্যিই প্রশংসনীয়। শিক্ষার উন্নয়নে দেশের প্রতিটি আর্থিক ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান যদি এভাবে এগিয়ে আসে তাহলে বাংলাদেশ অবশ্যই একটি শিক্ষিত ও দক্ষ জাতি হয়ে উঠবে। দেশে বর্তমানে ৫৬টি ব্যাংক রয়েছে। প্রতিটি ব্যাংক গরিব মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীর লেখাপড়ার দায়িত্ব নিলে বছরে হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রীর শিক্ষাজীবন নিশ্চিত হবে।

শিক্ষাখাত ছাড়াও এনসিসি ব্যাংক চিকিৎসা খাতেও সিএসআর কর্মকা- করে যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সম্প্রতি তারা আহসানিয়া মিশন ক্যান্সার হাসপাতাল ও ফেনীর ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনকে আর্থিক অনুদান দিয়েছে। ব্যাংকটি প্রত্যন্ত অঞ্চলে বন্যাদুর্গতের মাঝে ত্রাণ, শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ এবং শহরের সৌন্দর্যবর্ধনে সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছে।

গবর্নর জানান, সিএসআর ব্যয়ের কমপক্ষে ৩০ শতাংশ যেন শিক্ষা খাতে ব্যয় হয় তার নীতিমালা তৈরি করা হচ্ছে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে সিএসআর কার্যক্রমের এ নীতিমালা মেনে কাজ করতে হবে। বিদ্যমান সিএসআর নীতিমালাকে আরও সুষ্ঠু, যুগোপযোগী এবং গতিশীল করার উদ্যোগ হিসেবে শিগগিরই নতুন নীতিমালা জারি করা হবে।

এরইমধ্যে ব্যাংকগুলো সার্বিকভাবে তাদের সিএসআর কার্যক্রমের গভীরতা অনেক বাড়িয়েছে। গত পাঁচ-ছয় বছরে ব্যাংকিং খাতে সিএসআর কার্যক্রম প্রায় দশগুণ বেড়েছে। এ বছর সিএসআর খাতের ব্যয় ৫০০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে।

এনসিসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) গোলাম হাফিজ আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, এনসিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান মোঃ নুরুল নেওয়াজ সেলিম, ভাইস চেয়ারম্যান এএসএম মাঈনউদ্দিন মোনেম, পরিচালক এমএ আউয়াল, খায়রুল আলম চাকলাদ্দার, মোঃ আমিরুল ইসলাম, সোহেলা হোসেন, মো. আবুল বাসার প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বৃত্তি প্রাপ্ত দু’জন শিক্ষার্থী তাদের অনুভূতি তুলে ধরেন। এদের মধ্যে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পাওয়া রাজধানীর জিগাতলার চৌধুরী রাবেয়া বসরী বলেন, এসএসসি পাস করার পর আমি ভেবেছিলাম অর্থের অভাবে আমার শিক্ষাজীবন শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু এ সময় এনসিসি ব্যাংক আমার পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। আমাদের দেশ দরিদ্র দেশ। এ দেশে অনেক মেধাবী অর্থের অভাবে ঝরে পড়ে। কিন্তু সামান্য সহায়তা পেলেই আমরা ঘুরে দাঁড়াতে পারি। একটু সহায়তা পেলে আমরা হার মানতে রাজি না।

প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৪

১৯/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: