রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ক্রুডেনও চলে যাচ্ছেন এ মাসেই বিদায় নিচ্ছেন মজেনা, আসছেন বার্নিকাট

প্রকাশিত : ১৮ ডিসেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঢাকা থেকে বিদায় নিচ্ছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজেনা ও কানাডার হাইকমিশনার হিদার ক্রুডেন। আগামী জানুয়ারিতে ঢাকায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত হয়ে আসছেন মার্সিয়া স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট, আর কানাডার হাইকমিশনার হচ্ছেন বিন্ট পিরে লারামেক।

বাংলাদেশে নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্সিয়া স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাটকে মনোনীত করেছেন প্রেসিডেন্ট ওবামা। মজেনা বিদায় নেয়ার পরেই বার্নিকাটই হবেন ঢাকায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত। হোয়াইট হাউস থেকে তাঁকে ইতোমধ্যেই মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। তিনি মার্কিন কংগ্রেসেরও অনুমোদন পেয়েছে। জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে তিনি ঢাকায় আসছেন।

তিন বছর দায়িত্ব পালনের পর এ মাসে বিদায় নিচ্ছেন মজেনা। আসছেন বার্নিকাট। তিনি আফ্রিকান বংশোদ্ভূত একজন নারী। পেশাদার এই কূটনীতিক এর আগে গিনি বিসাউ ও সেনেগালে রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের মানবাধিকার বিষয়ক ব্যুরোতে উপসহকারী সচিব হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

বার্নিকাট ঢাকায় নতুন হলেও দক্ষিণ এশিয়া নিয়ে দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা রয়েছে এই নারীর। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরে ২০০৬ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ এশিয়া ব্যুরোতে কাজ করেন তিনি। ১৯৯২ থেকে ’৯৫ সাল পর্যন্ত তিনি নয়াদিল্লী মিশনে কাজ করেন। ২০০৮ থেকে ’১১ সাল পর্যন্ত গিনি বিসাউ ও সেনেগালে রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব সামলানোর আগে বার্নিকাট বার্বাডোজ ও মালাবিতে উপরাষ্ট্রদূত ছিলেন। লাফায়েত কলেজ থেকে স্নাতক এবং জর্জটাউন ইউনিভার্সিটি থেকে স্নাতকোত্তর বার্নিকাট ’১২ সাল থেকে উপসহকারী সচিব হিসেবে পররাষ্ট্র দফতরের মানবাধিকার বিষয়ক ব্যুরোতে কাজ করছেন।

এদিকে হিদার ক্রুডেনকে পাকিস্তানে কানাডার হাইকমিশনার হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে সেদেশের সরকার। ক্রুভেনের জায়গায় আসছেন বিন্ট পিরে লারামেক। লারামেকে এ পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। বিন্ট পিরে লারামেক ঢাকায় জানুয়ারি থেকে দায়িত্ব নেবেন।

কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন বেয়ার্ড গত সপ্তাহে বাংলাদেশে কানাডা দূতাবাসের জন্য হাইকমিশনার হিসেবে বিন্ট পিরে লারামেকের নাম ঘোষণা করেছেন। এর আগে তিনি ক্যামেরুনে কানাডার হাইকমিশনার ছিলেন।

বিন্ট পিরে লারামেক একজন ভূ-তাত্ত্বিক প্রকৌশলী। তিনি ১৯৭৯ সালে কানাডার মন্ট্রিয়ল বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটেকনিক বিভাগ থেকে ভূ-তত্ত্ব প্রকৌশলে বিএসসি ডিগ্রী নেন। ’৯০ সালে তিনি মন্ট্রিয়লের কুইবেক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকল্প ব্যবস্থাপনা বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। পেশাগত জীবনে লারামেক কানাডার পক্ষে আঞ্চলিক পরিচালক, কানাডিয়ান আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা সিডার পরিচালকসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করেছেন। বিবাহিত জীবনে তিনি দুই পুত্র সন্তানের জনক।

উল্লেখ্য, কানাডা বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম রাষ্ট্র। উত্তর আমেরিকার উত্তরাঞ্চলের বেশিরভাগ এলাকাজুড়ে দেশটির অবস্থান। ১৮৬৭ সালে চারটি স্বায়ত্তশাসিত প্রদেশ নিয়ে দেশ হিসেবে কানাডা গঠন করা হয়। পরবর্তীতে ১৯৮২ সালে জারিকৃত কানাডা এ্যাক্ট অনুসারে, দশটি প্রদেশ এবং তিনটি অঞ্চল নিয়ে নতুন করে গঠিত হয় কানাডা।

প্রকাশিত : ১৮ ডিসেম্বর ২০১৪

১৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: