রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আইপিটিএল মাতালেন সেরেনা, আনা, ওজনিয়াকি ও সানিয়া

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪
  • মাহমুদা সুবর্ণা

ইন্টারন্যাশনাল প্রিমিয়ার টেনিস লীগ (আইপিটিএল) প্রথম আসরেই চমক উপহার দিয়েছে। বিশ্ব টেনিসের সব সেরা সেরা তারকারাই খেলেছেন এই ইভেন্টে। তবে শেষ হাসিটা হেসেছেন সানিয়া মির্জা, আনা ইভানোভিচ এবং রজার ফেদেরারের দল ইন্ডিয়া এইস। শনিবার টুর্নামেন্টের ফাইনালে বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তারকা নোভাক জোকোভিচের ইউএই রয়্যালসকে হারিয়ে প্রথম আসরের ট্রফি নিজেদের করে নিয়েছে সানিয়া মির্জার দল। আইপিটিএলের প্রথম আসরের শিরোপার অন্যতম দাবিদার ছিল ইউএই রয়্যালস। তবে আলাদা চারটি মঞ্চে লীগভিত্তিক খেলায় দারণ পারফর্ম করে রয়্যালসের শিরোপা জেতার পথ রুদ্ধ করে দিয়েছিল এইস। টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই বেশ ভালো পারফর্মেন্স উপহার দিয়েছে ইন্ডিয়ান এইস। কেননা বিশ্ব টেনিসের সেরা সেরা খেলোয়াড় ছিল এই দলটিতে। ইন্ডিয়ান এইসের প্রথম আসরের সদস্যরা হচ্ছেন রজার ফেদেরার, পিট সাম্প্রাস ও সার্বিয়ার প্রতিভাবান খেলোয়াড় আনা ইভানোভিচ। এ ছাড়া এই দলেই খেলেছেন এশিয়ার অন্যতম সেরা তারকা সানিয়া মির্জা ও রোহান বোপানা। আর তাদের কঠোর অনুশীলন ও অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলেই ইন্ডিয়ান এইস দারুণ একটা টুর্নামেন্ট শেষ করল। ইন্ডিয়ান এইসের দ্বিতীয় স্থানে থেকে টুর্নামেন্ট শেষ করেছেন রয়্যালস। তৃতীয় হয়েছে ম্যানিলা মাভারিকস। আর চতুর্থ হয়েছে সিঙ্গাপুর সø্যামার্স।

টেনিস বিশ্বের শীর্ষ সব তারকাদের নিয়ে বিশ্বকে রীতিমতো চমকেই আয়োজকরা। টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর তারকা সার্বিয়ার নোভাক জোকোভিচ, সুইজারল্যান্ডের রজার ফেদেরার, ব্রিটেনের এ্যান্ডি মারে খেলেছেন এই ইভেন্টে। আর মহিলা এককে টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তারকা সেরেনা উইলিয়ামস, এ্যাগ্নিয়েস্কা রাদওয়ানস্কা এবং আনা ইভানোভিচও খেলেছেন এই আসরে। ফিলিপাইনের ম্যানিলা, সিঙ্গাপুর, নিউ দিল্লী এবং দুবাইয়েÑ এই চারটি স্থানে হয় টুর্নামেন্ট। এই ইভেন্টের মাধ্যমেই টেনিস তারকাদের ভারতে আসা হয়। এতে খেলোয়াড়রা দারুণ আনন্দিত এবং রোমাঞ্চিত। সার্বিয়ার নোভাক জোকোভিচই দারুণ আনন্দিত। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই আমি পুরো টুর্নামেন্টটা দারুণ উপভোগ করেছি। এর মাধ্যমেই প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত আইপিটিএলে খেলার সুযোগ ঘটে আমার। এবং প্রথমবারের মতো ভারতে আসার সৌভাগ্য হয়। এখানে এমন অনেক গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়ের সঙ্গে খেলেছি যার জন্য আমি খুবই রোমাঞ্চিত।’

ইন্টারন্যাশনাল প্রিমিয়ার টেনিস লীগের তৃতীয় লেগে ইন্ডিয়ান এসেসের হয়ে সিঙ্গাপুর সø্যামার্সের বিপক্ষে খেলার মাধ্যমে ভারতীয় কোর্টে প্রথমবারের মতো খেলার অভিজ্ঞতা লাভ করেন ফেদেরার। নতুন দেশে এসে নতুন এই অভিজ্ঞতা সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে ফেদেরার বলেছেন, ‘ভারতে খেলতে আসা সত্যিই বিশেষ কিছু। আমি বিশ্বের অনেক স্থানে খেলেছি। কিন্তু এখানে প্রথমবারের মতো খেলার অভিজ্ঞতা অন্যরকম। ভারত পৃথিবীর অন্যতম বড় একটি দেশ। এখানকার ইতিহাস, ঐতিহ্য, কৃষ্টি-সংস্কৃতি উল্লেখযোগ্য। বিশেষ করে ভারতীয় ক্রীড়াঙ্গন অনেক সমৃদ্ধ। এটা আমার জন্য সম্পূর্ণ নতুন একটি অভিজ্ঞতা। আশা করছি এখানকার দর্শকও আমাকে ভালভাবেই গ্রহণ করবে। ভারতে টেনিসের বেশ সম্ভাবনা আছে। এখান থেকে বেশ কয়েকজন বিশ্বমানের খেলোয়াড় বেরিয়েছে। তাই এমন একটি দেশে খেলতে আসতে পেরে আমি দারুণ আনন্দিত।’

আইপিটিএল ধারণা সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে রজার ফেদেরার বলেন, ‘আমি প্রথম থেকেই আইপিটিএল উপভোগ করছি। ইন্ডিয়ান এসেসের খেলা বিশেষভাবে নজর কুড়িয়েছে। স্কোরগুলো রাখার চেষ্টা করছি। কোর্টে নামার আগে আমি প্রথমে এর ফরম্যাট সম্পর্কে বোঝার চেষ্টা করেছি। কারণ এখানকার আইন-কানুন কিছুটা পরিবর্তিত। তাই খেলতে নামার আগে সেগুলো সম্পর্কে সম্যক ধারণা থাকতে হবে। টেনিসে সবকিছই বেশ গুরুত্ব সহকারে এবং পেশাদারি মনোভাব নিয়ে দেখা হয়। আইপিটিএল সেই ধরনেরই একটি উপভোগ্য টুর্নামেন্ট। এখানে খেলোয়াড়রাও বেশ আনন্দ পাচ্ছে। এখানে বেশ কয়েকজন শীর্ষসারির খেলোয়াড় খেলতে এসেছেন। যাতে করে এর গুরুত্ব আরও বেড়েছে। এশিয়ার মতো বড় একটি মহাদেশে এই ধরনের টুর্নামেন্ট বেশ সফল হবে। খেলোয়াড়রা যখন ছুটিতে থাকে সেই সময়টা এই ধরনের টুর্নামেন্ট আয়োজিত হলে তারা বেশ উপভোগ করবে। প্রত্যেকের জড়িত হবার একটি সুযোগও এখানে সৃষ্টি হয়েছে।’

গত দুটি মৌসুমে নিজেকে মেলে ধলতে পারেননি রজার ফেদেরার। যদিও বা চলতি মৌসুমের শেষদিকে এসে আলোচনায় উঠে আসেন তিনি। শুধু তাই নয় দুর্দান্ত পারফর্মেন্স উপহার দিয়ে টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থেকে মৌসুম শেষ করারও সুযোগ এসেছিল তার সামনে। কিন্তু ডব্লিউটিএ ফাইনালসের শিরোপা জিতে শেষ পর্যন্ত শীর্ষে থেকে মৌসুম শেষ করার গৌরব অর্জন করেছেন নোভাক জোকোভিচ। তবে রজার ফেদেরারের লক্ষ্য নতুন মৌসুমে নিজের সেরাটা ঢেলে দেবার। এ বিষয়ে সুইস এক্সপ্রেসের অভিমত হলো, ‘এখন আমি অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের দিকেই তাকিয়ে আছি। এরপরই সিদ্ধান্ত নিব নতুন মৌসুমে আমার খেলার সম্ভাবনা কতটুকু।’ সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে ১৭টি গ্র্যান্ডসøাম জিতেছেন ফেদেরার। এই আসরে ইন্ডিয়ান এইসের হয়ে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিয়েছেন সানিয়া মির্জা। শেষ পর্যন্ত শিরোপা নিয়েই ইভেন্ট শেষ করেছেন তিনি। চলতি মৌসুমটা দুর্দান্ত কেটেছে সানিয়ার। ভারতের সেরা এই তারকা খেলোয়াড়ের লক্ষ্য এখন নতুন মৌসুমে ভালো পারফর্ম করার। চলতি মৌসুমের শুরুটা তেমন ভালো হয়নি আনা ইভানোভিচেরও। কিন্তু শেষমুহূর্তে এসে আইপিটিএলের শিরোপা জিতে মৌসুমের শেষটা দারুণভাবেই শেষ করলেন সার্বিয়ার এই টেনিস তারকা। পারফরর্মেন্সের এই ধারাবাহিকতা নতুন মৌসুমেও দেখাতে চান তিনি

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪

১৭/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: