আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বরিশালে ইউপি সদস্যের প্রতারণা

প্রকাশিত : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৪
  • কোটি টাকা আত্মসাত

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ বেসরকারী সাহায্য সংস্থা ইউনিসেফের আর্থিক সহযোগিতায় গভীর নলকূপ স্থাপনের নামে প্রভাবশালী এক ইউপি সদস্য কর্তৃক প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় পাঁচ শতাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে কোটি টাকা আত্মসাত ও এক ঠিকাদারকে জিম্মি করে কাজ করানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি জেলার উজিরপুর উপজেলার শোলক ইউনিয়নের দক্ষিণ ধামুড়া গ্রামের। সোমবার ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন, ওই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য দক্ষিণ ধামুড়া গ্রামের ফারুক হোসেন দীর্ঘদিন থেকে ইউনিসেফের আর্থিক সহযোগিতায় গভীর নলকূপ স্থাপনের জন্য উপজেলা সদর, শোলক, ওটরা ও বরাকোঠা ইউনিয়নের পাঁচ শতাধিক ব্যক্তির প্রত্যেকের কাছ থেকে ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা করে গ্রহণ করেন। ভুক্তভোগী জামাল হোসেনসহ একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করেন, ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন আংশিক নলকূপ স্থাপন করলেও টাকা গ্রহণ করা সিংহভাগ লোককে নলকূপ না দিয়ে টালবাহানা শুরু করেন। এ নিয়ে স্থানীয় পর্যায়ে একাধিকবার সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হলেও ফারুক কোন কিছুরই তোয়াক্কা করছেন না।

গভীর নলকূপ স্থাপনের ঠিকাদার বাবুগঞ্জের জাহাপুর গ্রামের তোফাজ্জেল হোসেন জানান, প্রতিটি টিউবওয়েল স্থাপনের জন্য বরিং শ্রমিক বাবদ তাকে ২৩ হাজার টাকা করে দেয়ার চুক্তিতে গত রমজান মাস থেকে শুরু করে তিনি ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১৫ শ্রমিক নিয়ে ৬০টি নলকূপ স্থাপন করেন। তিনি অভিযোগ করেন, শুরুতেই নলকূপ স্থাপনের টাকা চাওয়ায় ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন ও তার সহযোগীরা তাকে জিম্মি করে তিনবার মারধর করে জোরপূর্বক নলকূপ স্থাপন করতে বাধ্য করেন।

উপায়ান্তুর না পেয়ে তোফাজ্জেল হোসেন র‌্যাব-৮ এর কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গত ৮ ডিসেম্বর নলকূপ স্থাপনের পুরো সরঞ্জামাদি আটক করে ফারুক তাকে (তোফাজ্জেল) মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য ফারুক হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবি করলেও কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

ঢাকায় অপহৃত দুই শিশু নরসিংদীতে উদ্ধার

নিজস্ব সংবাদদাতা, নরসিংদী, ১৫ ডিসেম্বর ॥ শনিবার ঢাকার খিলবাড়িটেক এলাকা থেকে অপহরণের দুইদিন পর মোঃ তাওসিফ ও মিনহাজ মিয়া নামের পাঁচ বছরের দুই শিশুকে নরসিংদীর তরোয়া থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার রাত ১০টার দিকে শহরের তরোয়া এলাকার কাবুুলশাহ মাজার থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

জানা গেছে, শনিবার বিকেলে শিশু দুটি তাদের বাড়ির পাশে খেলাধুলা করছিল। এমন সময় নরসিংদীর তরোয়া এলাকার ভাড়াটিয়া মনির হোসেন ও কামারটেক এলাকার মামুন নামে দুইজন তাদের অপহরণ করে। তাদের তরোয়া এলাকায় রাখা হয়। ওইদিন তাওসিফের বাবা রফিকুল ইসলাম এবং মিনহাজের বাবা বাবুল মিয়ার কাছ ১২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অহরণকারীরা। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে ভাটারা থানায় অভিযোগের প্রেক্ষিতে নরসিংদীর তরোয়া এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় অপহরণকারী মনির হোসেনের স্ত্রী শাহিদা (২০) ও মামুনের ভাবি রহিমা বেগমকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ। নরসিংদী সদর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে সোমবার দুপুরে শিশু দুটিকে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

প্রকাশিত : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৪

১৬/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: