আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জিরো পয়েন্ট থেকে ঝিলমিল পর্যন্ত ফ্লাইওভার হচ্ছে

প্রকাশিত : ১৫ ডিসেম্বর ২০১৪
  • হাজার কোটি টাকায় দেশের বৃহত্তম ফ্লাইওভারটি চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হবে ২১৯ সালে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আগামী ২০১৯ সালেই চালু হচ্ছে দেশের সর্ববৃহত ফ্লাইওভার। পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ-(পিপিপি) ভিত্তিতে রাজধানীর জিরো পয়েন্ট থেকে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) ঢাকার পাশে নতুন শহর হিসেবে পরিচিত ঝিলমিল আবাসিক প্রকল্প এলাকা পর্যন্ত ফ্লাইওভারটি নির্মাণ করা হবে। এছাড়া রাজউকের কাছ থেকে যেসব গ্রাহক একই নামে একাধিক প্লট গ্রহণ করেছে তা বাতিল করা হবে। রবিবার সকালে গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন রাজউকের ঝিলমিল প্রকল্প পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান। এ সময় স্থানীয় এমপি বিদ্যুত ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, রাজধানীর পাশে ঝিলমিল প্রকল্পকে গ্রীন ও স্মার্ট স্যালেলাইট সিটি হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এর জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। ১১ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে এ ফ্লাইওভার প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাই, জরিপ, সম্ভাব্য ব্যয় এবং নির্মাণের সময়কাল নির্ধারণে প্রয়োজনীয় কাজ চলমান রয়েছে। ফ্লাইওভারটি রাজধানীর জিপিওসংলগ্ন জিরো পয়েন্ট থেকে গুলিস্তান হয়ে পুরান ঢাকার বাবুবাজারের বুড়িগঙ্গা সেতুর পাশ দিয়ে ঢাকা-মাওয়া হাইওয়ে দিয়ে ঝিলমিল প্রকল্পের দ্বারপ্রান্তে গিয়ে পৌঁছাবে। তিনি বলেন, সর্বোচ্চ ১০ মাসের মধ্যে দেশের সর্ববৃহত এ ফ্লাইওভারটির টেন্ডার কাজ শুরু করা হবে। এটি তৈরিতে ব্যয় হবে প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা। ইতোমধ্যে এটি তৈরির জন্য এলাইনমেন্টের কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। এটির নির্মাণ কাজ শেষ হতে সময় লাগবে প্রায় ৩ বছর। পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) ভিত্তিেিত। আগামী ২০১৯ সালে এটির ওপর দিয়ে নাগরিকদের চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হবে। এ ফ্লাইওভার ব্যবহার করে খুব সহজেই ঢাকা থেকে ঝিলমিল প্রকল্পে যাওয়া সম্ভব হবে এবং এর মাধ্যমে পদ্মাপারবাসীকে আধুনিক সুবিধার আওতায় নিয়ে আসবে বলে মনে করে সরকার। পাশাপাশি পুরান ঢাকার ঘনবসতিপূর্ণ মানুষকে এবং বুড়িগঙ্গা নদীর অন্য পারকে আধুনিক ঢাকার উন্নয়নের ছোঁয়া দিতে এ ফ্লাইওভার খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এ ফ্লাইওভার নির্মিত হলে রাজধানীর সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গেরও যাতায়াত ব্যবস্থা নির্বিঘœ ও আরও সহজ হবে।

প্রকাশিত : ১৫ ডিসেম্বর ২০১৪

১৫/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: