হালকা কুয়াশা, তাপমাত্রা ১৮.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কবিতা

প্রকাশিত : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৪

বাংলাদেশের বিজয়

রবিউল হুসাইন

আমার দেশের মাটির মানুষ

পরাধীন আর দুঃশাসনে

হাজার বছর ধরে ছিল

নির্যাতিত জর্জরিত নিপীড়নে

ইংরেজ আর পাক সেনারা

অত্যাচার আর অনাচারে

বাংলাদেশে শুরু করে অমানবিক

শাসন-শোষণ নির্বিচারে

তারা মায়ের ভাষা নিষেধ করে

বাংলা কথা চলবে না উর্দু হবে

না না না ছাত্ররা সব প্রতিবাদে

বুকের রক্তে গড়ে তোলে গৌরবে

ভাষা থেকেই জন্ম নিল নিজস্বতা

শেখ মুজিবের বজ্র কণ্ঠে উঠল জেগে

স্বাধীনতার মুক্তি পাগল মুক্তিযোদ্ধা

জয় বাংলার বিজয় গাথা সেই আবেগে

তামার শ্যামল মানুষগুলো ঝাঁপিয়ে পড়ে

বাংলাদেশের বিজয় তারা ছিনিয়ে আনে

সামনে তাদের উজ্জ্বল সময়

স্বপ্ন-সবার মনে প্রাণে

সারেন্ডার

আলম তালুকদার

পাকবাহিনীর অত্যাচারে

আকাশ-বাতাস কাঁপছিল

ইয়াহিয়া-টিক্কা খানের

সাগর সমান পাপ্ ছিল।

স্বেরাচারের কালো মনে

অহংকারের তাপ ছিল

কেউ বোঝেনি বীর বাঙালী

পাকিস্তানের বাপ্ ছিল।

ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে

বীর জনতা লড়ছিল

সবাই মিলে দেশের জন্যে

অনেক কিছু করছিল।

যাদের কাছে বীর বাঙালী

পানির মতো ’চিপ্’ ছিল

তারাই আবার ডিসেম্বরে

সারেন্ডারে টিপ্ দিল।

ষোলোই ডিসেম্বর

আসলাম সানী

রাত পোহাতে হোক না যতোই বাকী

সূর্য জানি উঠবেই

মানুষ জাগবে পাখিরা ডাকবে

ফুলেরা জানি ফুটবেই

জোয়ারে নদী ছুটবেইÑ

আঁধার পালাবে জানি

মহান মজিবের বাণী

থাকবে না কোনো গ্লানি

মুক্তি ছিনিয়ে আনিÑ

সশস্ত্র সংগ্রামে ওঠে

জয় বাংলা স্বর

উনিশ শত একাত্তরের

ষোলেই ডিসেম্বর

স্বাধীনতার বিজয় গানে

ছন্দিত ভাস্বর-আলোকিত ঘর।

পাকসেনারা পরাজিত

মোশাররফ হোসেন ভূঞা

বর্গী গেছে অনেক আগে

সে সব আমার জানা,

পাকসেনারাও পরাজিত

আর দেবে না হানা।

এখন আমি মুক্ত স্বাধীন

তানা নানা নানা,

যেথায় খুশি ঘুরে বেড়াই

কেউ করে না মানা।

মায়ের মতো স্বাধীন স্বদেশ

সবুজ রঙে ঘেরা।

পথেরই টানের মেঠো পথে

হয় না ঘরে ফেরা।

পাখির গানে মুগ্ধ মুখোর

এমন সোনার দেশে,

সাগর কূলে হাজার নদী

জল তরঙ্গে মেশে

শর্ত

নাসের মাহমুদ

তুই যদি ভাই ছড়া পাঠক

গান কবিতার ভক্ত,

সকল সবুজ তোকেই দেবো

আকাশ নীলে তখ্তো।

তুই যদি ভাই এই শেকড়ের

বাঙ্গাল পরিচয়ের,

সবগুলো ফুল তোকেই তবে

মেডেল সকল জয়ের।

তুই যদি ভাই একাত্তরের

মুক্তিযুদ্ধ পক্ষ,

তোকেই তবে সূর্য তারা

আলোর সকল কক্ষ।

বিজয় দিবস

মিলন সব্যসাচী

বিজয় দিনে আজকে খোকার

মন বসে না পাঠে,

লাল-সবুজের নিশান নিয়ে

ছুটছে দূরের মাঠে।

মা ডেকে কয় খোকারে তুই

ইতিহাসে মন দে,

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে

বারুদ পোড়ার গন্ধে।

মরলো কতো অবুঝ শিশু

মরলো মুক্তিসেনা,

তাদের কাছে সবার আছে

অনেক অনেক দেনা।

রাজাকারের মদদ ছিলো

পাকসেনাদের পক্ষে

তাদের হাতে মুক্তি সেনার

ছিলোনাতো রক্ষে।

বুকের মানিক কেড়ে নিয়ে

করতো তারা গুলি,

ভাঙতো মায়ের বুকের পাঁজর

উড়তে মাথার খুলি।

তাদের জানাই ধিক শত ধিক

এই বিজয়ের দিনে,

একাত্তরের ঘৃণ্য ঘাতক

নিতেই হবে চিনে।

প্রকাশিত : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৪

১৩/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: