কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কেনা সম্পদের মালিকানা পায়নি মেঘনা পেট্রোলিয়াম

প্রকাশিত : ১১ ডিসেম্বর ২০১৪

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ মেঘনা পেট্রোলিয়াম মার্কেটিং কোম্পানি লিমিটেড (এমপিএমসিএল) পদ্মা পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের (পিপিএল) কাছ থেকে কেনা অস্থাবর সম্পদের আইনগত মালিকানা এখনও মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের অনুকূলে হস্তান্তর হয়নি। বিষয়টি নিয়ে ভবিষ্যতে আইনগত জটিলতা দেখা দিতে পারে। কোম্পানিটির ২০১৪ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনে আপত্তি তুলে ধরে এমন মন্তব্য করেছেন নিরীক্ষক। সোমবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটে এই মন্তব্য প্রকাশিত হয়।

২০১৪ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের আর্থিক প্রতিবেদনে মন্তব্য অংশে কোম্পানিটির নিরীক্ষক নোট ৩.১তে উল্লেখ করেছেন, আগের এমপিএমসিএল ও পিপিএলের থেকে কেনা অস্থাবর সম্পদের আইনগত মালিকানা এখনও কোম্পানির অনুকূলে হস্তান্তর হয়নি। ভবিষ্যতে বিষয়টি নিয়ে আইনগত জটিলতা দেখা দিতে পারে। এছাড়া নোট ৬.৩তে উল্লেখ করা হয়েছে, কোম্পানির স্টক বাবদ দেখাচ্ছে ৩ কোটি ৫৩ লাখ ৮২ হাজার ৭৭২ টাকা (আদায়যোগ্যতার সম্ভাবনার ভিত্তিতে সঞ্চিতি ২ কোটি ৬৪ লাখ ৪৪ হাজার ১৭৪ টাকা), যা চলতি দামে দ্রব্যের প্রকৃত মূল্যের ভিত্তিতে বিপিসির অন্য ইউনিটকে ঋণ হিসেবে দেয়া হয়েছে। ওই পরিমাণ অর্থ ২০০৩ সাল থেকে বকেয়া রয়েছে, যা ভবিষ্যতে আদায়ের সম্ভাবনা ক্ষীণ।

এদিকে বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, ডিএসইতে বুধবার মেঘনা পেট্রোলিয়ামের শেয়ারদর কমে ১ দশমিক ২৯ শতাংশ বা ২ দশমিক ৯০ টাকা। দিনভর দর ২২২ টাকা ৫০ পয়সা থেকে ২২৭ টাকা ৯০ পয়সায় ওঠা-নামা করে। সর্বশেষ লেনদেন হয় ২২২ টাকা ৫০ পয়সায়, যা সমন্বয় শেষে দাঁড়ায় ২২৩ টাকা ৩০ পয়সায়। এদিন ৩২৮ বারে এর মোট ১ লাখ ৯০০টি শেয়ার লেনদেন হয়। গত এক মাসে এ শেয়ারের সর্বনিম্ন দর ছিল ২২২ টাকা ৫০ পয়সা ও সর্বোচ্চ ২৬৪ টাকা ১০ পয়সা। গত ছয় মাসে এর সর্বনিম্ন দর ২২২ টাকা ৫০ পয়সা ও সর্বোচ্চ ২৮৪ টাকা ৮০ পয়সা। অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) কোম্পানিটির মুনাফা বেড়েছে ৩ শতাংশ। এ তিন মাসে কর-পরবর্তী নেট মুনাফা হয়েছে ৬৩ কোটি ৪১ লাখ ৬০ হাজার টাকা, যা আগের হিসাব বছরের একই সময় ছিল ৬১ কোটি ৬৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এ সময় শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬ টাকা ৪৫ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময় ছিল ৬ টাকা ২৭ পয়সা।

২০১৪ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ৯৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ও ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার সুপারিশ করেছে। নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে এ হিসাব বছরে কর-পরবর্তী নেট মুনাফা হয়েছে ২৩৫ কোটি ৯৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা ও শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ২৩ টাকা ৯৯ পয়সা। আগামী বছরের ১৬ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ১০টায় চট্টগ্রামে হোটেল আগ্রাবাদে এর বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে।

কোম্পানিটি ২০১৩ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ৭০ শতাংশ নগদ ও ২০ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দিয়েছে। ওই হিসাব বছরে এর কর-পরবর্তী নেট মুনাফা হয়েছে ১৮৬ কোটি ৪৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা, ইপিএস ২৫ টাকা ৬১ পয়সা ও শেয়ার প্রতি নেট সম্পদমূল্য (এনএভি) ৭০ টাকা ৫৪ পয়সা।

২০০৭ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত রাষ্ট্রায়ত্ত এ কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ৪০০ কোটি টাকা ও পরিশোধিত মূলধন ৯৮ কোটি ৪০ লাখ টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৪১৯ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। মোট শেয়ার ৯ কোটি ৮৩ লাখ ৭৮ হাজার ২৮০টি; এর মধ্যে সরকার ৫৮ দশমিক ৬৭ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ২৩ দশমিক ৯৭ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে রয়েছে ১৭ দশমিক ৩৬ শতাংশ। প্রতিটি শেয়ারের অভিহিত দর ১০ টাকা ও ১০০টিতে মার্কেট লট। সর্বশেষ বার্ষিক আর্থিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে এ শেয়ারের দর-আয় অনুপাত ১১ দশমিক ৭৮।

প্রকাশিত : ১১ ডিসেম্বর ২০১৪

১১/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: