আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ব্যাট হাতে উজ্জ্বল আফ্রিদি, মিসবাহর সন্তোষ

প্রকাশিত : ১০ ডিসেম্বর ২০১৪

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পাকিস্তান ‘আনপ্রেডিক্টেবল’, পাকিস্তান আসলে পাকিস্তানেরই মতো, সেটি আরও একবর দেখল ক্রিকেট বিশ্ব। শারজায় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৩ উইকেটে জয়ী ম্যাচে রং বদলানো ক্ষণে ক্ষণে। ২৪৭ রানের লক্ষ্যে নেমে এক পর্যায়ে ২৫.২ ওভারে মাত্র ৮৬ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ধুঁকল পাকিরা, মনে হলো মিসবাহ-উল হকদের জন্য হারটা সময়ের ব্যাপর, সেখান থেকেই আবর জয় তুলে নিল ৩ বল হাতে রেখে! ব্যাট হাতে অবিশ্বাস্যভাবে নায়ক হারিস সোহাইল (৮৫*) ও শহীদ আফ্রিদি (৬১)। পাঁচ ওয়ানডের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার পর দুই সতীর্থকে নিয়ে প্রশংসা ঝড়ল অধিনায়কের কণ্ঠে। মিসবাহ ফের জানিয়ে দিলেন, বিশ্বকাপের দল বেছে নিতে এই সিরিজের গুরুত্বের কথা। ‘সত্যি এটি দারুণ এক ম্যাচ। নিউজিল্যান্ডকে ২৪৬Ñএ আটকে রাখার কৃতিত্ব বোলারদের। আমিরাতের শুকনো উইকেটে পেসাররা চমৎকার করেছে। এটা বিশ্বকাপে দল সাজাতে সহায়ক হবে। পাশাপাশি রান তাড়া করতে গিয়ে, শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে হারিস-আফ্রিদি যেভাবে ব্যাটিং করেছে, তাতে প্রশংসা ওদের প্রাপ্য। আফ্রিদির কথা আলাদা করে বলতে হয়, সময়ের দাবি মিটিয়ে ধীরস্থিরভাবে খেলেছে ও। জয়ের পাশাপাশি প্রতি ম্যাচের শিক্ষা বিশ্বকাপে কাজে লাগবে।’ বলেন মিসবাহ। হারিসে মুগ্ধতা প্রকাশ করেন পাক অধিনায়ক। ১২৪ রানে ৬ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ১১৮ বলে ১২৩ রান। ঠিক তখনই জ্বলে ওঠেন হারিস-আফ্রিদি। সপ্তম উইকেট জুটিতে ১৭ ওভারে ১১০ রান তুলে দলকে নাটকীয় জয় এনে দেন তারা। ১০৯ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় অপরাজিত ৮৫ রান করে ম্যাচের নায়ক হারিস। তবে এদিন আফ্রিদি খেলেছেন সত্যি এক ব্যতিক্রম ইনিংস। ঠিক তার নিজের মতো ‘বুম বুম’ নয়, একেবারে শান্তশিষ্ট পরিকল্পিতভাবে ব্যাটিং করছেন সাবেক অধিনায়ক। পরিস্থিতি বুঝে দায়িত্বশীল ব্যাটিং বলতে যা বোঝায়। ৪৭ বলে হাফসেঞ্চুরি পূরণ করেছেন, কোন ছক্কা ছাড়াই! ছক্কা ছাড়া হাফসেঞ্চুরিÑ আফ্রিদি তার ক্যারিয়ারে এর আগে একবারই করেছেন, ১৯৯৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। রস টেইলরের সরাসরি থ্রোতে রান আউট হওয়ার আগে ৫১ বলে করেছেন ৬১। চার ৭ ও ছক্কা ১টি। ৩৮৫ ওয়ানডেতে ৩৪ বছর আফ্রিদির এটি ৩৭ নম্বর হাফসেঞ্চুরি। আট ম্যাচ পর হাফসেঞ্চুরির দেখা পেলেন পাকিস্তানী তারকা, আগেরটি ছিল গত মার্চে এশিয়া কাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে (২৫ বলে ৫৯)। অবৈধ বোলিং এ্যাকশনের জন্য একদিন আগেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন মোহাম্মদ হাফিজ। তবু টেস্টে ব্যাটিং ফর্মের কথা চিন্তা করে এই ম্যাচে খেলানো হয় তাঁকে। কিন্তু ৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন তারকা ওপেনার। অথচ ওপেনিংয়ে রেসে আছেন নাসির জামসেদ, শারজিল খানের মতো প্রতিভা। অলরাউন্ডার হিসেবে অপেক্ষায় অভিজ্ঞ শোয়েব মালিক। আছেন আকমল ভ্রাতৃদ্বয় উমর ও কামরান। সুতরাং অধিনায়ক মিসবাহ যে বিশ্বকাপের দল বাছাইকে বড় করে দেখছেন, সে হিসেবে পরের ম্যাচেই দেখা যেতে পারে বড় পরিবর্তন। আফ্রিদি থাকলেও এদিন ছিল না বিশেষজ্ঞ স্পিনার, পেসার চারজনÑ উমর গুল, মোহাম্মদ ইরফান, ওয়াহাব রিয়াজ ও হারিস।

প্রকাশিত : ১০ ডিসেম্বর ২০১৪

১০/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: