আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শার্শায় চার বাড়িতে হামলা

প্রকাশিত : ৯ ডিসেম্বর ২০১৪
  • যুবলীগ নেতা মৃত্যুর জের

স্টাফ রিপোর্টার, বেনাপোল ॥ শার্শায় যুবলীগ কর্মী নিহতের ঘটনায় নাভারনে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িসহ ৪ বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, মার্কেট ভাংচুর, লুটপাট ও সড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী। এ সময় ২ পুলিশ অফিসার ইটের আঘাতে আহত হন। অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সকালে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার নাভারনে একটি সালিশ বৈঠকে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদারের লোকজনের হাতে গুরুতর আহত হয় উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক ও নাভারন বুরুজ বাগান এলাকার সিরাজের ছেলে তোজাম হোসেন। তাকে ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সোমবার সকালে তোজাম হোসেন সেখানে মারা যান। এই সংবাদ বুরুজবাগান এলাকায় পৌঁছালে দক্ষিণ বুরুজ বাগান গ্রামের আনসার ক্যাম্প এলাকায় লোকজন ফুঁসে ওঠে। সকাল সাড়ে ৬টার সময় যুবলীগ কর্মী মোস্তফার নেতৃত্বে প্রায় ২শ’ ব্যক্তি দক্ষিণ বুরুজ বাগানস্থ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদারের বাড়িতে হামলা চালায়। রহিমের স্ত্রী ও মায়ের ওপরে হামলা চালিয়ে তাদের আহত করা হয়। পুলিশ সংবাদ পেয়ে তাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে রাখে। এ সময় হামলাকারীরা পুলিশের ওপর ইট-পাটকেল ছুড়লে শার্শা থানার এসআই মেহেদি ও এএসআই বখতিয়ার আহত হন। এ সময় পুলিশ পিছিয়ে গেলে হামলাকারীরা রহিমের বাড়িতে লুটপাট শুরু করে। লুটপাট শেষে বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এরপর একে একে রহিমের শ্বশুর ড্রাইভার নজরুল ইসলাম, রহিমের ভগ্নিপতি আব্দুল আজিজ, যুবলীগ নেতা শিশিরের বাড়িতে লুটপাট চালিয়ে অগ্নিসংযোগ করে তারা। অগ্নিসংযোগের ফলে প্রায় কোটি টাকার সম্পদের ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছে এলাকাবাসী। রহিমের বাড়ির সামনে সরদার মার্কেটে এ সময় হামলা চালিয়ে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করেছে হামলাকারীরা।

হামলাকারীরা নাভারন-সাতক্ষীরা মহাসড়ক অবরোধ করে। সকাল সাড়ে ৬টা থেকে ৮টা পর্যন্ত সড়কটিতে অবরোধ করে রাখে তারা। এদিকে আগুনের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট নাভারন সাতক্ষীরা মোড় পর্যন্ত পৌঁছালেও অবরোধকারীদের বাধার মুখে ফিরে যেতে বাধ্য হয়। পরে এএসপি আরিফের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সকালে শার্শা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়রম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম শরিফুল আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ মিন্টু ও সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল ঘটনাস্থ পরিদর্শন করেন।

এ ব্যাপারে শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহিদ জানান, পুরো পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এলাকায় বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। হামলাকারীদের ইটের আঘাতে দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এদিকে তোজাম হোসেন নিহতের ঘটনায় থানায় এখনও কোন মামলা হয়নি।

প্রকাশিত : ৯ ডিসেম্বর ২০১৪

০৯/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: