কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চেলসির প্রথম হার, পরাজয় আর্সেনালেরও

প্রকাশিত : ৮ ডিসেম্বর ২০১৪
  • ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে লিভারপুলের ড্র, জয় পেয়েছে ম্যানসিটি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে দুর্দান্ত গতিতে ছুটছিল চেলসি। টানা ১৮ ম্যাচে অপরাজিত থাকার হাতছানি দিচ্ছিল তাদের। কিন্তু সেই চেলসিকে থামিয়ে দিল নিউক্যাসল ইউনাইটেড। শনিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে নিউক্যাসল ইউনাইটেডের কাছে ২-১ গোলে হেরেছে জোশে মরিনহোর দল। চেলসির বিপক্ষে ম্যাচে জোড়া গোল করেছেন নিউক্যাসলের বদলি খেলোয়াড় পাপিস ডেম্বা সিজে। ম্যাচের ৫৭ ও ৭৮ মিনিটে গোল দুটি করেছেন সেনেগালের এই ফরোয়ার্ড। চেলসির হয়ে ৮৩ মিনিটে একটি গোল শোধ করেন দিদিয়ের দ্রগবা। কিন্তু তারপরও জয় বঞ্চিত থাকতে হয় তাদের।

চেলসির জন্য এই হার লজ্জাজনক। কেননা শক্তির বিচারে চেলসির চেয়ে অনেক পেছনের সারির দল নিউক্যাসল। এর পর আবার এই ম্যাচের শেষ ১৫ মিনিট ১০ জন নিয়ে খেলেছে দলটি। দ্বিতীয়বারের মতো হলুদ কার্ড পাওয়ায় লাল কার্ড দেখে ৮১ মিনিটে মাঠ ছাড়তে হয়েছে নিউক্যাসলের স্টিভেন টেইলরকে। তবে নিউক্যাসলের কাছে হারলেও পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান হারাতে হয়নি জোশে মরিনহোর দলকে।

শনিবার শুধু পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা চেলসি নয়। এদিন পরাজয় দেখেছে শক্তিশালী আর্সেনালও। তবে স্টোক সিটির বিপক্ষে তিন গোলে পিছিয়ে থাকার পরও দারুণভাবে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিল আর্সেনাল। কিন্তু শেষ রক্ষা আর হয়নি। স্টোক সিটির মাঠে রোমাঞ্চকর এই ম্যাচে ৩-২ গোলে হেরে যায় আর্সেন ওয়েঙ্গারের শিষ্যরা। ফলে দুই ম্যাচ জেতার পর আবারও হারল আর্সেনাল। লীগে গত নবেম্বরে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে হারের পর ওয়েস্টব্রুমউইচ আলবিওন ও সাউদাম্পটনের বিপক্ষে জিতেছিল গানাররা। শনিবার নিজেদের মাঠ ব্রিটানিয়ায় ম্যাচ শুরুর মাত্র ১৯ সেকেন্ডেই আর্সেনালকে চমকে দেয় স্টোক সিটি। মামে বিরাম দিওফের পাস থেকে বল পেয়ে আর্সেনালের গোলপোস্টের খুব কাছাকাছি জায়গা থেকে জালে জড়ান পিটার ক্রাউচ। চলতি মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগে ক্রাউচের করা গোলটিই এখন পর্যন্ত দ্রুততম।

প্রথমার্ধে আরও দুই গোল করে আর্সেনালকে কোণঠাসা করে ফেলে স্টোক সিটি। ৩৫তম মিনিটে বোইয়ান কিরকিচ ও প্রথমার্ধের শেষ দিকে জোনাথন ওয়াল্টারসের গোলে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। ৬৮তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে ব্যবধান কমায় আর্সেনাল। স্টোক সিটির দিওফ প্রতিপক্ষের ম্যাথিউ ফ্লামিনিকে ডি বক্সের মধ্যে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। বলের লাইনে থাকলেও সান্তি কাজোরলার শট আটকাতে ব্যর্থ হন স্টোক সিটির গোলরক্ষক বেগোভিচ। দুই মিনিট পর আর্সেনালের এ্যালেক্সিস সানচেসের ক্রস থেকে এ্যারন রামসি গোল করলে ম্যাচ জমে ওঠে। কিন্তু ৭৮তম মিনিটে বড় একটা ধাক্কা খায় অতিথিরা। দ্বিতীয় হলুদ কার্ড পেয়ে মাঠ ছাড়েন ক্যালাম চেম্বার্স। এরপর আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি আর্সেন ওয়েঙ্গারের দল। পয়েন্ট হারিয়েছে লিভারপুলও। লীগ টেবিলের তলানিতে থাকা সান্ডারল্যান্ডের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে গতবারের রানার্সআপরা। মৌসুমের শুরু থেকেই লিভারপুলের পারফর্মেন্সে ধারাবাহিকতার অভাব ছিল। তবে টানা তিন ম্যাচ হারের পর টানা দুই জয়ে ছন্দে ফেরার আভাস দিয়েছিল দলটি। কিন্তু শনিবার ঘরের মাঠে সমর্থকদের ফের হতাশ করল ব্রেন্ডন রজার্সের শিষ্যরা।

এ্যানফিল্ডে ম্যাচের শুরুতে দুই দল আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে লড়াই করে ম্যাচ জমিয়ে তোলার আভাস দিয়েছিল। কিন্তু সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে উভয় পক্ষের খেলা ছন্দহীন হয়ে পড়ে। প্রথমার্ধে দুই দলের কেউই নিশ্চিত কোন সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। বিরতির পর আক্রমণে আরও মনোযোগী হয় স্বাগতিকরা। প্রতিপক্ষের রক্ষণের উপর চাপ বাড়িয়ে তাদের ডি বক্সের আশপাশেই বেশিরভাগ সময় বল নিয়ে ঘোরাঘুরি করতে থাকে লিভারপুল। কিন্তু সান্ডারল্যান্ডের রক্ষণ কিছুতেই ভাঙ্গতে পারেনি তারা। ফলে ড্রয়েই শেষ হয় ম্যাচটি।

দিনের শুরুতে চেলসি হেরে যাওয়ায় শীর্ষস্থানধারীদের সঙ্গে ব্যবধান কমানোর সুযোগ পেয়ে যায় ম্যানচেস্টার সিটি। আর এভারটনকে হারিয়ে সুযোগটা দারুণভাবে কাজে লাগিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। শনিবার রাতের এই ম্যাচে পেনাল্টি থেকে ইয়াইয়া তুরের একমাত্র গোলে জয়ের স্বাদ পায় ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির দল। লীগে সিটির এটা টানা চার এবং সর্বমোট দশম জয়। ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরুতেই বড় ধাক্কা খায় সিটি। চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন দারুণ ফর্মে থাকা আর্জেন্টিনার স্ট্রাইকার সার্জিও এ্যাগুয়েরো। তাতে অবশ্য বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের আক্রমণের ধার একটুও কমেনি। ২৪তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে সিটিকে এগিয়ে দেন ইয়াইয়া তুরে। ডি বক্সের মধ্যে ইংলিশ মিডফিল্ডার জেমস মিলনারকে এভারটনের ডিফেন্ডার ফিল জাগিয়েলকা ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। শেষ পর্যন্ত এই গোলেই পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে সিটি। এভারটনকে হারিয়ে চেলসির সঙ্গে ব্যবধান তিন পয়েন্টে নামিয়ে এনেছে সিটি। ১৫ ম্যাচ শেষে শীর্ষে থাকা চেলসির পয়েন্ট ৩৬। আর সিটির পয়েন্ট ৩৩।

প্রকাশিত : ৮ ডিসেম্বর ২০১৪

০৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: