মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

চট্টগ্রামে অবৈধ বিলবোর্ড উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ

প্রকাশিত : ৭ ডিসেম্বর ২০১৪
  • পুরনো চেহারায় নগরী

মাকসুদ আহমদ, চট্টগ্রাম অফিস ॥ উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞার পর চট্টগ্রামে বন্ধ হয়ে গেছে অবৈধ বিলবোর্ড উচ্ছেদ অভিযান। গত ১ ডিসেম্বর থেকে চট্টগ্রামে চউকের পক্ষ থেকে বিলবোর্ড উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ হলেও চসিক এ কার্যক্রম বন্ধ করে ৫ ডিসেম্বর। বিভিন্ন কর্মসূচীর নামে নগরবাসীর বাহবা নিতে সিএমপি এ কর্মসূচীতে চসিক ও চউকের সঙ্গে অংশ নেয়।

অবৈধ বিলবোর্ড স্থাপনে অসাধু চক্র যেমন গভীর রাতকে ব্যবহার করেছে তেমনি উপড়ে নিতেও গভীর রাতেই কার্যক্রম চালিয়েছে। নগরীর ঢাকা ট্রাঙ্ক রোডসহ বিভিন্ন সড়ক ডিভাইডারে পাঁচ শতাধিক বিলবোর্ড স্থাপন করা হয়েছিল। গভীর রাতে অবৈধ বিলবোর্ড উপড়ে নেয়ায় নগরীর সৌন্দর্য যেমন বিনষ্ট হয়েছে তেমনি যানবাহন চলাচলেও ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে চালক ও মালিকরা।

চউক চেয়ারম্যান বলেছেন, অবৈধভাবে গেড়ে বসা এসব বিলবোর্ড যারা লাগিয়েছে তারাই তুলে নিচ্ছে। কারণ দিনেরবেলাতে বিশাল এসব বিলবোর্ড উপড়ে নেয়া সম্ভব নয়।

চউক সূত্রে জানা গেছে, গত ২৩ নবেম্বর এডফ্রেম ও ডিজিটাল কনসেপ্টের মালিক আরশেদুল আলম বাচ্চু সুপ্রীমকোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনে রিট মামলা দায়ের করেন। সিটি কর্পোরেশনের ২০০৯ সালের ৬০নং আইনের ধারায় ৮২ ও ৯২ তফসিলে এবং ২০১২ সালের চার ধারা অনুযায়ী সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বিলবোর্ড উচ্ছেদে চউক কোন ধরনের পদক্ষেপ নিতে পারে না। এমনকি এ ধরনের উচ্ছেদ অভিযান সম্পূর্ণ আইনবহির্ভূত হওয়ায় উচ্চ আদালতের পক্ষ থেকে এ রিট পিটিশনের আওতায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ৩০ নবেম্বর উচ্চ আদালতের পক্ষ থেকে শুনানি শেষে এ নিষেধাজ্ঞা দেয়ার পর গত ১ ডিসেম্বর থেকে চউক তাদের উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ রেখেছে। কিন্তু চসিকের পক্ষ থেকে উচ্ছেদ অভিযান চলমান ছিল। ৫ ডিসেম্বর থেকে চসিকের পক্ষ থেকেও অবৈধ বিলবোর্ড উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ হয়ে গেছে।

বিলবোর্ড উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম জনকণ্ঠকে জানান, উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞার কারণে উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ করা হয়েছে। রিট ভ্যাকেট হলে আবারও উচ্ছেদ অভিযান শুরু হবে। নগরীর ডিটি রোডে সড়ক ডিভাইডার থেকে রাতের আঁধারে বিলবোর্ড উচ্ছেদের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, যারা রাতের আঁধারে লাগিয়েছে তারাই আবার তুলে নিচ্ছে। এতে সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আবারও মেরামত করে তা ঠিক করে দেয়া হবে। তাছাড়া দিনেরবেলায় এসব বিশালাকৃতির বিলবোর্ড উচ্ছেদ করা হলে যান চলাচল বিঘ্নিত হবে।

প্রকাশিত : ৭ ডিসেম্বর ২০১৪

০৭/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: