আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

যুদ্ধাপরাধী বিচার ॥ পলাতক আব্দুল জব্বারের মামলার রায় যে কোন দিন

প্রকাশিত : ৪ ডিসেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত পিরোজপুরের পলাতক ইঞ্জিনিয়ার জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য রাজাকার কমান্ডার আবদুল জব্বারের বিচারিক কার্যক্রম শেষ হয়েছে। রায় ঘোষণার জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখা হয়েছে। যে কোন দিন এই মামলার রায় ঘোষণা করা হবে। জামায়াতের নায়েবে আমির আব্দুস সুবহানের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের জবাব প্রদান ও সমাপনী যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন পিছিয়ে আজ করা হয়েছে। একই মামলায় নেত্রকোনার মুসলিম লীগ নেতা আতাউর রহমান ননী (৬২) ও নেজামে ইসলামের ওবায়দুল হক তাহেরের (৬৪) বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) দাখিল করা হয়েছে। আজ মামলার দিন রয়েছে ট্রাইব্যুনাল-১ এ। বুধবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ ও ২ এ আদেশগুলো প্রদান করেছেন।

পিরোজপুরের পলাতক ইঞ্জিনিয়ার জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য রাজাকার কমান্ডার আবদুল জব্বারের বিচারিক কার্যক্রম শেষে রায় ঘোষণার জন্য সিএভি রাখা হয়েছে। যে কোন দিন এ মামলার রায় ঘোষণা করা হবে। চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে তিন সদস্য বিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ বুধবার এ আদেশ প্রদান করেছেন। ট্রাইব্যুনালে অন্য দুই সদস্য ছিলেন বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম ও বিচারপতি আনোয়ারুল হক। জব্বারের মামলা নিয়ে বর্তমানে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ ও ২ এ মোট তিনটি মামলা সিএভি রাখা হলো। সিএভিকৃত অন্য দুটি মামলার মধ্যে রয়েছে জাতীয় পার্টির সাবেক মন্ত্রী সৈয়দ মোঃ কায়সার ও জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজাহারুল ইসলাম।

মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে শীর্ষ নেতাদের বিচারের পর বর্তমান জেলা পর্যায়ের নেতাদের বিচার চলছে। বুধবার তেমনি পিরোজপুর জেলার রাজাকার কমান্ডার ইঞ্জিনিয়ার আবদুল জব্বারের মামলার রায় ঘোষণার জন্য সিএভি রাখা হয়েছে। বুধবার আবদুল জব্বারের পক্ষে আইনী পয়েন্টে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করেন রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী মোঃ আবুল হাসান। এর জবাবে রাষ্ট্রপক্ষে সমাপনী যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন প্রসিকিউটর জাহিদ ইমাম ও তাপস কান্তি বল।

প্রসিকিউশন পক্ষে শুনানি শেষে প্রসিকিউটর জাহিদ ইমাম সাংবাদিকদের বলেন, আবদুল জব্বারের বিরুদ্ধে মোট ২৪ জন সাক্ষী ট্রাইব্যুনালে সাক্ষ্য দিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধে হত্যা, গণহত্যা, নির্যাতন, আটক, অগ্নিসংযোগসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের মোট ৫টি অভিযোগের পক্ষে সাক্ষীরা সাক্ষ্য দিয়েছেন। সাক্ষীদের সাক্ষ্য ও দালিলিক প্রমাণের ভিত্তিতে এসব অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে উল্লেখ করে প্রসিকিউশনের পক্ষ থেকে ট্রাইব্যুনালের কাছে জব্বারের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- কামনা করেছেন তিনি। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে

তিনি জানান, পলাতক ইঞ্জিনিয়ার জব্বার কোথায় আছেন, এমন কোন তথ্য প্রসিকিউশনের কাছে নেই। অন্যদিকে পলাতক জব্বারের পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী মোঃ আবুল হাসান সাংবাদিকদের বলেন, রাষ্ট্রপক্ষে ২৪ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন।

তাদের সবাইকে জেরা করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আনা ৫টি অভিযোগের মধ্যে কোনটিতেই প্রত্যক্ষ ও সক্রিয়ভাবে তিনি জড়িত ছিলেন না। এ কারণে সব অভিযোগ থেকে জব্বার খালাস পাবেন বলে তিনি বিশ্বাস করেন। পলাতক জব্বারের পরিবারের কেউ দেশে থাকেন না জানিয়ে তিনি বলেন, মামলার শুরু থেকে আমি জব্বারের নিকটাত্মীয়দের সঙ্গে বিভিন্নভাবে যোগাযোগ করেছি। মামলা পরিচালনায় তাদের অনীহা ছিল। ট্রাইব্যুনালে দাখিল করা রাষ্ট্রপক্ষের দলিলপত্র অনুসারে ইঞ্জিনিয়ার জব্বার আমেরিকায় অবস্থান করছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

আব্দুস সুবহান ॥ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামায়াতের নায়েবে আমির আব্দুস সুবহানের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের জবাব প্রদান ও সমাপনী যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন পিছিয়ে আজ করা হয়েছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীনের নেতৃত্বোধীন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ বুধবার এ আদেশ প্রদান করেছেন। ট্রাইব্যুনালে অন্য দুই সদস্য ছিলেন বিচারপতি মোঃ মুজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মোঃ শাহিনুর ইসলাম।

বুধবার এ যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন ধার্য থাকলেও পেছানোর আবেদন জানান প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম।

ননী-তাহের ॥ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে নেত্রকোনার মুসলিম লীগ নেতা আতাউর রহমান ননী (৬২) ও নেজামে ইসলামের ওবায়দুল হক তাহেরের (৬৪) বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) দাখিল করেছে প্রসিকিউশন পক্ষ। বুধবার প্রসিকিউটর মোখলেসুর রহমান বাদল ও প্রসিকিউটর সাবিনা ইয়াসমিন খান মুন্নি ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে এ অভিযোগ দাখিল করেন।

সংশোধনী : মঙ্গলবার দৈনিক জনকণ্ঠের শেষের পাতায় যুদ্ধাপরাধীদের বিচারÑ সিরাজ মাস্টার কুপিয়ে আমার খালাতো ভাইকে হত্যা করে। সাক্ষী দিলীপ দাশের জবানবন্দী শীর্ষক শিরোনামে নিউজের ভেতরে চেয়ারম্যান ওবায়দুল হসান শাহীনের নেতৃত্বে তিন সদস্য বিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ মঙ্গলবার এ আদেশ প্রদান করেছেন। ভুলবশত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এর চেয়ারম্যানের নাম ছাপা হয়েছে। আসলে সেখানে হবে চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম।

প্রকাশিত : ৪ ডিসেম্বর ২০১৪

০৪/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: