মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পুঁজিবাজারে সূচকের সঙ্গে লেনদেন বাড়ল

প্রকাশিত : ৩ ডিসেম্বর ২০১৪

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের পুুঁজিবাজারে টানা দ্বিতীয় দিনের মতো সূচকের উর্ধগতি অব্যাহত রয়েছে। ডিসেম্বর মাসের প্রথম দিকে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বাড়ার কারণে বড় মূলধনী কোম্পানির সঙ্গে সঙ্গে ছোট মূলধনী কোম্পানিরও চাহিদা বেড়েছে। বিশেষ করে গ্রামীণ ফোন ও স্কয়ার ফার্মার মতো হেভিওয়েট কোম্পানিগুলোর দর বৃদ্ধির দিনে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মঙ্গলবার মূল্য সূচক ও লেনদেন দুটোই বেড়েছে। জ্বালানি এবং শক্তি, প্রকৌশল, ওষুধ ও রসায়ন এবং বস্ত্রখাতের সবগুলোর দর বেড়েছে সমান তালে। ডিএসইতে আগের দিনের তুলনায় ৯ শতাংশ লেনদেন বেড়েছে। ঢাকার মতো দেশের অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জেও সব ধরনের সূচকের চাঙ্গা ভাব অব্যাহত ছিল। তবে সেখানকার লেনদেন সেই হারে বাড়েনি।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মঙ্গলবার ডিএসইতে ৩৭৩ কোটি ৫৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের তুলনায় ৩২ কোটি ৩ লাখ টাকা বেশি। সোমবার ডিএসইতে ৩৪১ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

সকালে বেশিরভাগ কোম্পানির দর বৃদ্ধি দিয়ে লেনদেন শুরু হয়। শুরুতে কিছুটা লেনদেন ও সূচকের গতি শ্লথ ছিল। কিন্তু আস্তে আস্তে লেনদেন ও সূচকের তীর উপরের দিকে উঠতে থাকে। তবে শেষ বিকেলে সূচক বেড়েছে বেশি। দিন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক বা ডিএসই এক্স ৬৪ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৯৩২ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ১৫৪ পয়েন্টে। আর ডিএস ৩০ সূচক ৩৮ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮৩৭ পয়েন্টে।

ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নিয়েছে ৩০২টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২২০টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ৫১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির।

আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের বাজার পর্যালোচনায় বলা হয়েছে, দিনটিতে বড় মূলধনী কোম্পানিগুলোর দর বেড়েছে ২ দশমিক ৫০ শতাংশ, বিশেষ করে গ্রামীণ ফোন ৪ দশমিক ৮০ শতাংশ, লাফার্জ সুরমা ৫ দশমিক ৬ শতাংশ এবং স্কয়ার ফার্মার ২ দশমিক ৮০ শতাংশ দরবৃদ্ধি সূচকে বড় ভূমিকা রেখেছে। টানা দুইদিনের সূচকের উত্থানের পরে দেশের প্রধান বাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জের সূচক ৪ হাজার ৯শ’ পয়েন্টের মনস্তাত্ত্বিক সীমাটি অতিক্রম করেছে। এছাড়া আগের চেয়ে কিছুটা নতুন ফান্ড বাজারে আসায় সার্বিক লেনদেনও আগের দিনের চেয়ে ৯ দশমিক ৪০ শতাংশ বেড়েছে। সারাদিনে টেলিযোগাযোগ খাতের দর বেড়েছে ৪ দশমিক ৭০ শতাংশ, সিমেন্ট ৩ দশমিক ৭ শতাংশ এবং জীবন বিমা খাতের দর বেড়েছে ৩ দশমিক ০ শতাংশ।

ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে গ্রামীণফোনের শেয়ার। এরপরে রয়েছে - এবি ব্যাংক, স্কয়ার ফার্মা, কেয়া কসমেটিকস, সামিট পোর্ট এ্যালায়েন্স, যমুনা অয়েল, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, বেক্সিমকো ফার্মা, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট এবং এমজেএলবিডি।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : সোনালী আঁশ, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, হাক্কানী পাল্প, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, প্রগতি ইন্স্যুরেন্স, স্টাইল ক্রাফট, সিভিও পেট্রো কেমিক্যাল, এ্যাপেক্স স্পিনিং, মেঘনা লাইফ ও দেশ গার্মেন্টস।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : নদার্ন জুটস, কোহিনূর, আইসিবি ইসলামিক, বিডি থাই, বিআইএফসি, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, এমবিএল ১ম মিউচুয়াল ফান্ড, ফু-ওয়াং সিরামিক, পপুলার ১ম মিউচুয়াল ফান্ড ও আরএন স্পিনিং।

অপরদিকে ঢাকার মতো চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জেও বেশিরভাগ কোম্পানির দর বাড়ার কারণে সূচকের উর্ধগতি বজায় ছিল। কিন্তু সূচকের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে লেনদেন বাড়েনি।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ২৭ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ২০৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ১৮৯ পয়েন্টে। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২১৮টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩২টির, কমেছে ৫৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : আর এন স্পিনিং, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, গ্রামীণফোন, কেয়া কসমেটিকস, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ, বে´িমকো, স্কয়ার ফার্মা, সামিট পোর্ট এ্যালায়েন্স, যমুনা অয়েল ও লাফার্জ সুরমা।

প্রকাশিত : ৩ ডিসেম্বর ২০১৪

০৩/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: