মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

নবেম্বরে বেড়েছে ডিএসইতে বিও হিসাব

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বিনিয়োগকারীদের মুনাফা তোলার চাপে বাজারে মন্দাবস্থা থাকলেও পুঁজিবাজারে বাড়ছে বিও হিসাব (বেনিফিশিয়ারি ওনার্স) খোলার প্রবণতা। গত ৩ নবেম্বর থেকে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিও হিসাব বেড়েছে প্রায় দেড় লাখ। সেকেন্ডারি মার্কেটে কিছুটা দরপতন চলতে থাকায় প্রাইমারী মার্কেটের প্রতি বিনিয়োগকারীদের বেশি আগ্রহী হতে দেখা যায়। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর পুরনো কোম্পানির তুলনায় বেশি দাম বাড়ার কারণে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের লটারি বিজয়ীদের লাভ বেশি হয়েছে, তাই আগের তুলনায় প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে আবেদনও বেশি পড়েছে। অনেকেই বেশি লাভের আশায় নিজেদের আত্মীয়-স্বজনদের নামে আইপিও আবেদনের জন্য নতুন করে বিও হিসাবে খুলেছেন।

সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি অব বাংলাদেশ (সিডিবিএল) সূত্রে জানা গেছে, ডিসেম্বরের ১ তারিখ পর্যন্ত বিও হিসাবের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩০ লাখ ৬৮ হাজার ৯৮৭টি। নবেম্বরের ৩ তারিখ পর্যন্ত এ সংখ্যা ছিল ২৯ লাখ ১৮ হাজার ৭৬৭টি। অর্থাৎ এই সময়ে বিও হিসাব বেড়েছে ১ লাখ ৫০ হাজার ২২০টি।

সূত্রমতে, চলতি বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত পুরুষ এ্যাকাউন্টের সংখা ৫৭ হাজার ৫৩৮টি বেড়েছে। বর্তমানে পুরুষ বিও হিসাব রয়েছে ২২ লাখ ৪৪ হাজার ৫৩৮টি, যা নবেম্বরে ছিল ২১ লাখ ৮৭ হাজারটি।

এদিকে নারী বিও হিসাবের সংখ্যা ২৫ হাজার ৬৪৮টি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ লাখ ১৪ হাজার ১৬৭টি। নবেম্বর মাসে বিও এ্যাকাউন্টধারী নারী ছিলেন ৭ লাখ ৮৮ হাজার ৫১৯ জন। এছাড়া বেড়েছে স্থানীয় বিও হিসাবের সংখ্যা। ডিসেম্বর মাসে এই হিসাব ৭৭ হাজার ৮৯৬টি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৯ লাখ ১১ হাজার ৯০৫টি, যা আগের মাসে ছিল ২৮ লাখ ৩৪ হাজার ৯টি। একইসাথে বেড়েছে প্রবাসী বিনিয়োগকারীর সংখ্যা। বর্তমানে প্রবাসী বিও হিসাবের সংখ্যা ১ লাখ ৪৬ হাজার ৮০০টি, যা নবেম্বরে ছিল ১ লাখ ৪২ হাজার ৩৫৭টি। অপরদিকে আলোচিত সময়ে কোম্পানি বিও সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ২৮২টি। নবেম্বর মাসে ছিল এই এ্যাকাউন্টের সংখ্যা ১০ হাজার ১৯৯টি।

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

০২/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: