কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিজয়ের মাসে দুই মুক্তিযোদ্ধা খুন

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এক মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিবেশিরা। এ ছাড়া জেলার মুরাদনগরে এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। অন্যদিকে টাঙ্গাইলের সখীপুরে ৫ দিন আগে নিখোঁজ এক মুক্তিযোদ্ধার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। খবর নিজস্ব সংবাদদাতা ও বাংলা নিউজের।

কুমিল্লা ॥ কুমিল্লায় জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হুমায়ূন কবির নামের একজন মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে এবং মুরাদনগরে পারিবারিক কলহের জের ধরে নীলা আক্তার নামের এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, সোমবার সকালে সদর দক্ষিণ উপজেলার বারপাড়া ইউনিয়নের বড় ধর্মপুর গ্রামে জমিসংক্রান্ত বিরাধের জের ধরে হুমায়ূন কবির (৭০) নামের এক পল্লী চিকিৎসক ও মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। হুমায়ূন কবিরের সঙ্গে দীর্ঘদিন যাবত পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোকজনের জমিসংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। এ ঘটনার জের ধরে সকাল ১০টায় আজাদ মিয়াসহ অন্যরা তাঁকে পিটিয়ে আহত করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে কুমেক হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় পুলিশ একই গ্রামের রশিদ

মাস্টারের পুত্র মঞ্জিল মিয়াকে গ্রেফতার করেছে। অপর দিকে মুরাদনগরে পারিবারিক কলহের জের ধরে নীলা আক্তার নামের এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। সোমবার ভোরে উপজেলার পূর্বধৈর পূর্ব ইউনিয়নের জানঘর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্বামী আমিরুল ইসলাম খোকনকে গ্রেফতার করেছে।

টাঙ্গাইল ॥ বিজয়ের মাসের শুরুতেই টাঙ্গাইলের সখীপুরে মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার (৬৫) গলা কাটা মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি কাদেরিয়া বাহিনীতে যোগ দিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করেছেন।

সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে সখীপুর পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের রামার জঙ্গলের পাশ থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়।

গোলাম মোস্তফার বাড়ি ওই ওয়ার্ডের গড়গোবিন্দপুর গ্রামে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার প্রতিমা বঙ্কী গ্যাস স্টেশন এলাকা থেকে তিনি নিখোঁজ হন। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাঁকে না পেয়ে রাতেই তাঁর ছেলে রফিকুল ইসলাম সখীপুর থানায় নিখোঁজের ডায়েরি করেন। এর পাঁচ দিন পর সোমবার দুপুরে পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের রামার জঙ্গলের পাশে তাঁর মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেন স্থানীয় লোকজন। পরে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

পুলিশ জানায়, দুর্বৃত্তরা গোলাম মোস্তফার গলা, দুই পায়ের রগ ও পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেছে।

সখীপুর মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের কমান্ডার এম এ গণি জানান, গোলাম মোস্তফা সখীপুর মুক্তিবাহিনীর একজন অন্যতম সংগঠক ও সাহসী মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। অবিলম্বে তাঁর খুনিদের গ্রেফতারের দাবি জানান তিনি।

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

০২/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: