কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মিসরকে সামনে তাকাতে হবে, পেছনের দিকে নয় ॥ সিসি

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

‘আদালতের রায় মেনে নিয়েছি’

মিসরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আলসিসি রবিবার এক বার্তায় বলেছেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারককে হত্যাসহ অন্যান্য অভিযোগ থেকে খালাস দিয়ে আদলতের রায়কে তিনি মেনে নিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘মিসরকে এখন সামনের দিকে তাকাতে হবে, পেছনের দিকে নয়’। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

সিসি এর মধ্য দিয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগের ব্যাপারে মোবারকের বিরুদ্ধে আর কোন আইনগত ব্যবস্থা অব্যাহত না রাখার ইঙ্গিত দিলেন। মোবারকের তিন দশকের শাসনামল এবং তার পদত্যাগের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলনের সময় ব্যাপক মানবাধিকার ঘটে বলে অভিযোগ ছিল। ২০১১ সালে মোবারক পদত্যাগ করেন। আন্দোলনে নিহত শত শত প্রতিবাদকারীকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার একটি সরকারী আদেশ পর্যালোচনা করে দেখার জন্য সিসি প্রধানমন্ত্রীকে নির্দেশ দিয়েছেন। শনিবার আদালতের রায়ে মোবারক তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো থেকে খালাস পান। এদিকে মোবারক অভিযোগ থেকে মুক্তি পাওয়ায় বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠছে মিসরের তরুন সমাজ। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে এ পর্যন্ত দুজন বিক্ষোভকারী নিহত হওয়ার খবর সরকারী গণমাধ্যম দিয়েছে। সামরিক বাহিনীর মদদপুষ্ট সিসির সরকার যে কোন ধরনের অনুনোমোদিত বিক্ষোভ নিষিদ্ধ করেছে এবং এর শাস্তি কয়েক বছর জেল পর্যন্ত হতে পারে। তা সত্ত্বেও আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে কয়েকটি ইউনিভার্সিটির ছাত্ররা দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ করেছে। রাজধানী কায়রো ছাড়াও উত্তরের শহর আলেক্সান্দ্রিয়া, ফাইয়ুম, দক্ষিণে আসসুয়ুত, নীলের বদ্বীপ জাগাজিগ ও অন্যান্য কিছু জায়গায় বিক্ষোভ হয়েছে। সাবেক সেনাপ্রধান সিসি প্রধান ক্ষমতাসীন হওয়ার পর থেকেই মোবারক আমলের কর্মকর্তারা তার প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণগুলোতে ফেরত এসেছেন। সিসির এই নীরব বার্তা স্পষ্টতই তার পূর্বসূরী ইসলামপন্থী দল মুসলিম ব্রাদারহুড সমর্থিত ও দেশটির ইতিহাসে প্রথম অবাধ ভোটে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসির প্রতি তার দৃষ্টিভঙ্গির সম্পূর্ণ বিপরীত।

গত বছর সিসি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করেছিলেন। এক বছর ক্ষমতায় থাকাকালে মুরসিকে মোবারকের বিচার ও হত্যার অভিযোগ তদন্তের জন্য বিশেষ কমিটি গঠন করেছিলেন। কারণ প্রাথমিকভাবে যে আদালতে মোবারকের বিচার শুরু হয়েছিল তার বিচারকদের মোবারক সরকারের নিয়োগপ্রাপ্ত হওয়ায় তাদের কর্মকা- পক্ষপাতহীন ছিল না। মোবারক অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পাওয়ার পর মিসরের মিডিয়ায় এখন প্রশ্ন উঠেছে বিক্ষোভকারীদের হত্যার জন্য মোবারক দায়ী হয়ে না থাকলে তার জন্য দায়ী কে?

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

০২/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: