আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রাজশাহীতে নিলামে ৪৪ গাছ কিনে কাটলেন তিন শতাধিক

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ বাগমারায় সড়কের ৪৪টি গাছ উন্মুক্ত নিলামে নিয়ে কেটে নেয়া হয়েছে তিন শতাধিক। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের সহায়তায় গাছগুলো নিধন করছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা।

অভিযোগ উঠেছে, উপজেলার আউচপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা নিলামে নেয়ার অতিরিক্ত গাছ অবৈধভাবে কেটে নিয়েছেন। আর এ কাজে সহযোগিতা করেছেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহাতাবুর রহমান। উপজেলা পরিষদ সূত্র জানায়, আউচপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহাতাবুর রহমান তার এলাকার হাটগাঙ্গোপাড়া থেকে খালগ্রাম এবং কামারপাড়া সড়ক সম্প্রসারণ কাজের জন্য কয়েকটি গাছ কাটা প্রয়োজন বলে পরিষদের মাসিক সভায় জানান। এর পরিপ্রেক্ষিতে ওই দুটি সড়কের ৪৪টি গাছ বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গত ১২ নবেম্বর উন্মুক্ত ডাকের মাধ্যমে গাছগুলো বিক্রি করা হয়। আউচপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা শহিদুল ইসলাম ও সদস্য আফসার আলী ৯১ হাজার টাকায় ওই গাছগুলো কেনেন। ২১ নবেম্বর থেকে দলবল নিয়ে গাছ কাটা শুরু করেন। উপজেলা সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডির) উপ-সহকারী প্রকৌশলী প্রদীপ কুমার সিংহ জানান, হাটগাঙ্গোপাড়া থেকে খালগ্রাম সড়কের সম্প্রসারণের কাজ শুরু হলেও হাটগাঙ্গোপাড়া থেকে কামারপাড়া সড়কের কোন প্রক্রিয়াই শুরু হয়নি। সরেজমিনে দেখা যায়, লোকজন দেদারসে গাছ কাটছেন। বাবলা, কড়ই, মেহগনিসহ কয়েকটি জাতের তিন শতাধিক কাটা গাছের গোড়া রয়েছে। সেখান থেকে ট্রাকে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। স্থানীয়রা জানান, আউচপাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগিতায় তিন শতাধিক গাছ কেটে সাবাড় করা হয়েছে। তবে ইউপি চেয়ারম্যান মাহাতাবুর রহমান বলেন, শহিদুল ও আফসার এসব গাছ কেটেছেন। তারা আমার সহযোগিতা চেয়েছেন, তাই গাছ কাটতে সহযোগিতা করেছি। আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুল ইসলাম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি শুধু দরপত্রের মাধ্যমে পাওয়া বাবলাগাছ কেটেছি। অন্য গাছ আওয়ামী লীগের আরেক নেতা কেটেছেন। অভিযুক্ত পলাশ এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

০২/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: