মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

আসিফ আযিম ॥ বিগ বস

প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর ২০১৪
আসিফ আযিম ॥ বিগ বস
  • সালাউদ্দিন সাইফ

মডেল হওয়ার স্বপ্ন নিয়েই বেড়ে ওঠেন আসিফ আযিম। শৈশব থেকেই এই ভাবনায় ডুবে থাকতেন আন্তর্জাতিক পরিম-লে পা রাখা এই মডেল। বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষে পা রাখার পর সেই লালিত স্বপ্নের রূপ যোগাতে একদিন হাজির হন বাংলাদেশের ফ্যাশন আইকন বিবি রাসেলের নিকট। বিবির সোজাসাপটা উপদেশ, ‘আগে পড়াশোনাটা শেষ কর। তারপর মডেলিংয়ে কাজ কর। তাহলেই বহুদূর এগোতে পারবে।’ গুরুবাণীর মতোই বিবি রাসেলের উপদেশ অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলেন আসিফ। প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স করার আগে এ নিয়ে খুব একটা তোড়জোড় করেননি। বরং স্থানীয় সব ব্র্যান্ডের কাজের মাধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখেন নিজের গ-ি। অনার্স শেষ করার পর আসিফ বিবি রাসেলের তত্ত্বাবধানে র‌্যাম্প মডেল হিসেবে নিজেকে প্রস্তুত করেন।

২০০২ সালে আসে সেই কাক্সিক্ষত ফল। ভারতের বিখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনার সব্যসাচী মুখার্জীর একটি ফ্যাশন শোতে অংশ নেন। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিখ্যাত ফটোগ্রাফার নিও নটসোমা। নিও একটি ডকুমেন্টারি ছবির কাজে তখন ঢাকায়। নিওর ক্যামেরার চোখে আসিফ ধরা পড়েন এবং সেই ছবি বিখ্যাত এক ম্যাগাজিনে ছাপা হয়। আন্তর্জাতিক পরিম-লে প্রথম প্রবেশ ঘটে বাংলাদেশের আসিফ আযিমের।

বিজ্ঞাপনের কাজ নিয়ে আসিফ ছিলেন বেশ চুজি। কারণ আসিফ মনে করতেন এই সেক্টরে কাজ করার জন্য যথেষ্ট সময় তাঁর নেই। ২০০২ সালে বিজ্ঞাপনী সংস্থা ইউনিট্রেন্ড আসিফকে সিমেন্সের একটি ক্যাম্পেনে কাজ করার প্রস্তাব দেয়। সিমেন্স ও একটেলের যৌথ প্রযোজনায় এই বিজ্ঞাপন। এই বিজ্ঞাপন আসিফ আযিমকে বাংলাদেশজুড়ে জনপ্রিয়তার পাশাপাশি পরিচিত করে তোলে। বিভিন্ন বিজ্ঞাপনী সংস্থা থেকে প্রস্তাব আসতে থাকে বিজ্ঞাপনের, এমনকি সিনেমার। কিন্তু আসিফ র‌্যাম্প মডেলিং নিয়ে ব্যস্ত থাকতে চেয়েছেন বরাবর।

২০০৪ সালে আসিফ আড়ং ব্র্যান্ডের একটি বিজ্ঞাপন করতে ভারতে যান। সেখানে পরিচিত হন মিডিয়ার নানা স্তরের মানুষের সঙ্গে। প্রস্তাব পান নানা বিজ্ঞাপনের এবং মডেলিংয়ের। আসিফ আযিমের কাজ পছন্দ হয় ভারতের ফ্যাশন গুরু প্রাসাদ বিদাপ্পার। তিনি আসিফকে ভারতে কাজ করার প্রস্তাব দেন। সে যাত্রায় আসিফের আর ভারত থাকা হয়ে ওঠেনি। র‌্যাম্প মডেলিংয়ের কাজে স্পেন এবং অস্ট্রেলিয়া যেতে হয় তাঁকে। যাই হোক, বাংলাদেশে আসার পর, আসিফ প্রাসাদ বিদাপ্পার প্রস্তাব নিয়ে অনেক চিন্তা-ভাবনার পর পুনরায় ভারত পাড়ি দেন। গন্তব্য, ভারতের আইটি শহর বেঙ্গালুরু। এই যাত্রায় পাড়ি দেয়া আসিফ একে একে কাজ করেন ভারতের স্বনামধন্য সব ফ্যাশন ডিজাইনারের সঙ্গে। এই তালিকায় আছেনÑ মানিষ মালহোত্রা, রোহিত পাল, সুনীত ভার্মা, তারুণ তাহিলানী, রাজেস প্রতাপ সিং এবং হেমান্ত ত্রিবেদী। এ সব স্বনামধন্য ফ্যাশন ডিজাইনারের সঙ্গে কাজ করার পর আসিফ ব্যাঙ্গালুরু থেকে ভারতের ফ্যাশন শহর মুম্বাইয়ে হাজির হন। বিগ বসের কল্যাণে আসিফ এখন ভারতীয় উপমহাদেশের বেশ জনপ্রিয়। বিগ বস নিয়ে আসিফের অভিযোগও কম নয়। বিগ বসের সঙ্গী সাথীরা তার সঙ্গে প্রতারণা করেছেন বলে মন্তব্য করেন আসিফ।

সম্প্রতি পারিবারিক এক অনুষ্ঠানে ঢাকায় আসেন আসিফ আযিম। ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানা যায়, ভারতে সিনেমা জগতে প্রবেশের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশী এই মডেল। সেই সিনেমার প্রস্তুতি নিতেই এখন শিখছেন ঘোড়া চালানো এবং অভিনয়। মুম্বাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার পাশাপাশি আসিফ আযিম দুটো লক্ষ্য নিয়ে সামনে এগোচ্ছেন। প্রথম- নিজেকে বিশ্বের দরবারে একজন সুপার মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা। দ্বিতীয়- বাংলাদেশের র‌্যাম্প মডেলদের সহযোগিতা করা।

উদীয়মান সকল র‌্যাম্প মডেলের কাছে আসিফ আযিম এক অনুপ্রেরণা। আসিফ আযিমের হাত ধরে বাংলাদেশের র‌্যাম্প মডেলিং পরিচিত পাক বিশ্ব দরবারে, এই প্রত্যাশা সকলের।

প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর ২০১৪

২৫/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: