কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

হোয়াইটওয়াশের স্বপ্নে বিভোর বাংলাদেশ

প্রকাশিত : ১২ নভেম্বর ২০১৪
হোয়াইটওয়াশের স্বপ্নে বিভোর বাংলাদেশ
  • আজ তৃতীয় টেস্ট শুরু

মিথুন আশরাফ, চট্টগ্রাম থেকে ॥ সকাল গড়িয়ে সূর্য্যরে তাপ মাথার উপর পড়তেই বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম উইকেটের দিকে গেলেন। হাঁটুগেড়ে বসে উইকেটে হাতের পরশ বুলিয়ে দিলেন। গভীর মনোযোগে উইকেটের দিকে তাকিয়ে থাকলেন। হয়ত ভাবলেনও, আহ্ যদি এবারও উইকেটটি মনের মতো আচরণ করে, তাহলেই হয়ে যায়। স্পিনে আবারও ঘায়েল করে জিম্বাবুইয়েকে প্রথমবারের মতো হোয়াইটওয়াশ করার স্বাদ নেয়া যাবে। আজ বাংলাদেশ-জিম্বাবুইয়ে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্ট শুরু হচ্ছে। সকাল সাড়ে নয়টায় চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হতে যাওয়া এ টেস্টে জিতে জিম্বাবুইয়েকে ৩-০’তে হারানোর সুখস্মৃতি কী ইতিহাসের পাতায় যুক্ত করতে পারবেন মুশফিক, সাকিব, তামিম, মাহমুদুল্লাহরা? সেই স্বপ্নেই বিভোর বাংলাদেশ।

প্রশ্ন থাকছেই। প্রতিটি ম্যাচের আগেই জিততে পারবে বাংলাদেশ? এমন প্রশ্নও থাকে। বাংলাদেশও প্রথম দুই টেস্টে ৩ উইকেট ও ১৬২ রানে জিতে উত্তরও দিয়েছে। এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নিয়েছে। এবার তৃতীয় ম্যাচে জেতার পালা। এ ম্যাচটির আগে এবার আরও কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হচ্ছে। টেস্ট ইতিহাসের পাতায় ইংল্যান্ডের পর কী বাংলাদেশ ইতিহাস গড়তে পারবে? কোন দল টেস্ট খেলা শুরু করে প্রথম ১৪ থেকে ১৫ বছরে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করেছে, এমন ইতিহাস গড়তে পেরেছে শুধু ইংল্যান্ড। ১৮৭৭ সালে খেলা শুরু করে ১৮৮৬ সালেই অস্ট্রেলিয়াকে ৩ ম্যাচের সিরিজের প্রতিটি ম্যাচে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। এছাড়া আর কোন দলই এমন কৃতিত্ব গড়তে পারেনি। এবার বাংলাদেশের সামনে এমন ইতিহাস গড়ার হাতছানি। ১২৮ বছর পর আবার সেই ইতিহাস গড়তে পারবে বাংলাদেশ?

চলমান সিরিজ ছাড়া ২০০০ সালে টেস্টে পা রাখার পর থেকে বাংলাদেশ ৪৩টি টেস্ট সিরিজ খেলেছে। জিতেছে ২টি টেস্ট সিরিজে। হেরেছে ৩৯টিতে। আর ড্র করেছে ২টি টেস্ট সিরিজে। কখনই বাংলাদেশ পূর্ণশক্তির দলকে হোয়াইটওয়াশ করতে পারেনি। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করেছে। কিন্তু পূর্ণশক্তির দল ছিল না। তাই এবার সুযোগ এসেছে জিম্বাবুইয়ের পূর্ণশক্তির দলকে হোয়াইটওয়াশ করে সেই অর্জন রেকর্ড বুকে যুক্ত করার। পারবে বাংলাদেশ?

এর আগে দুইবার তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। ২০০৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে, ২০০৭ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। দুটি সিরিজেই বাংলাদেশ হোয়াইটওয়াশ হয়েছে। এবার উল্টো হোয়াইটওয়াশ করার সুযোগ মিলছে। বাংলাদেশ কী পারবে প্রথমবারের মতো তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রতিটি ম্যাচ জিতে নিজেদের নাম আরও উপরে নিয়ে যেতে?

জিম্বাবুইয়ে ২০০১ সালে সর্বশেষ তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেই সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়। ১৩ বছর পর আবার জিম্বাবুইয়ে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলছে। বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলছে প্রথমবার। প্রথমবারেই কী বাংলাদেশ পারবে জিম্বাবুইয়েকে এত বছর পর আবার হোয়াইটওয়াশের তিক্ত স্বাদ দিতে?

জিম্বাবুইয়ের কাছে ২০০১ সালে বাংলাদেশ হোয়াইটওয়াশ হয়েছে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ২-০ ব্যবধানে হেরেছে। এরপর আর জিম্বাবুইয়ের কাছে বাংলাদেশ হোয়াইটওয়াশ হয়নি। ধীরে ধীরে জয়-হারের মধ্যেই কাটিয়েছে। তবে সিরিজ হেরেছে। এবার বাংলাদেশের সামনে সেই ২০০১ সালের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার প্রতিশোধ নেয়ার সময় এসেছে। পারবে বাংলাদেশ প্রতিশোধ নিতে?

এমন ম্যাচের আগে পেসার শাহাদাত হোসেন রাজিবকে তৃতীয় টেস্টের একাদশে না রাখার সিদ্ধান্তই হয়েছে। আবারও ফিটনেসের কারণে শাহাদাত একাদশ থেকে বাদ পড়ছেন। তবে পেসার শফিউল ইসলাম খেলবেন, না এনামুল হক বিজয় অথবা মার্শাল আইয়ুবের মধ্যে কেউ খেলবেন, তা নিশ্চিত হয়নি। যতদূর জানা গেছে, দল দুই পেসার নিয়েই নামবে। সেক্ষেত্রে রুবেল হোসেনের সঙ্গে থাকবেন শফিউল। আর শামসুর রহমান শুভর পরিবর্তে যে তৃতীয় টেস্টের দলে স্থান করে নিয়েছেন ইমরুল কায়েস, ওপেনিংয়ে তাকেই দেখা যাবে।

প্রকাশিত : ১২ নভেম্বর ২০১৪

১২/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: