রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জাইদির সেঞ্চুরিতে রূপগঞ্জের সহজ জয়

প্রকাশিত : ১২ নভেম্বর ২০১৪

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নতুন নাম নিয়ে শুরুটা দুর্দান্ত হয়েছে গাজী ট্যাংক ক্রিকেটার্সের। গত আসরে চ্যাম্পিয়ন তারা। এবার লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ নাম নিয়ে খেলতে নেমে শুরুটা করেছে চ্যাম্পিয়নদের মতোই। ২০১৪-১৫ মৌসুমে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লীগের উদ্বোধনী দিনে রেকর্ড গড়েই জিতেছে তারা। বড় প্রতিপক্ষ হলেও ওল্ড ডিওএইচএসকে তারা হারিয়ে দিয়েছে ২৪৭ রানের বড় ব্যবধানে। গত আসরে লিস্ট ‘এ’ মর্যাদা নিয়ে শুরুর পর প্রিমিয়ার ক্রিকেটের ইতিহাসে এটিই সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়। গতবার শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব ২৩৯ রানে হারিয়েছিল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডকে। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটে ৩৫৭ রান তোলার পর ডিওএইচএসকে মাত্র ১১০ রানেই গুটিয়ে দেয় তারা। দেশের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে এটিই সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। গতবার প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ৩ উইকেটে ৩৫৩ রান করেছিল কলাবাগান ক্রিকেট একাডেমির বিরুদ্ধে। দিনের আরেক ম্যাচে প্রাইম দোলেশ্বরও বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে ১৩৯ রানের বড় ব্যবধানে জয় তুলে নিয়েছে কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের বিরুদ্ধে। তবে শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব শুরু করেছে হতাশা দিয়ে। ফতুল্লায় তাদের নবাগত পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব ১১ রানে পরাজিত করে অঘটনের জন্ম দিয়েছে।

টস জিতে প্রথমে ব্যাট হাতে তুলে নেয় রূপগঞ্জ। ৭১ রানে দুটি উইকেট হারিয়ে ফেলে রূপগঞ্জ। তৃতীয় উইকেটে ওপেনার জহুরুল ইসলামের সঙ্গে ১২২ রানের জুটি গড়ে দলকে বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে নিয়ে যান পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ ক্রিকেটার আশার জাইদি। জহুরুল ৯১ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৭৮ রানে সাজঘরে ফেরেন। দলকে বড় সংগ্রহ পেতে জাইদির বিস্ফোরক সেঞ্চুরিটাই যথেষ্ট ছিল। তিনি মাত্র ১০৩ বলে ১৮ চার ও ৫ ছক্কায় ১৪১ রানের একটি ইনিংস খেলে ফিরে যান। ৬ উইকেটে ৩৫৭ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় রূপগঞ্জ। দুটি করে উইকেট নেন আবু জায়েদ রাহী ও লঙ্কান শিহান জয়াসুরিয়া। জবাব দিতে নেমে শুরু থেকেই বিপর্যয়ে পড়ে ডিওএইচএস। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত ৪১.৫ ওভারে ১১০ রানেই থেমে যায় তাদের ইনিংস। কাপালি ২০ রানে তিনটি এবং মোহাম্মদ শহীদ ও শরীফুল্লাহ দুটি করে উইকেট নিয়ে ধসিয়ে দেন ডিওএইচএসের ইনিংস। বিকেএসপিতে দোলেশ্বর টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামে। উদ্বোধনী জুটিতে ৬৭ রান আসে। ওপেনার মেহেদী মারুফ মাত্র ৩৬ বলে ৯ চার ও ২ ছক্কায় ৫৫ রানের একটি বিধ্বংসী ইনিংস খেলে ফিরে যান। তবে এরপরে দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারিয়ে বসে তারা। মিডলঅর্ডারে আসিফ হোসেন রাতুলের অর্ধশতক ও অধিনায়ক ইলিয়াস সানির ৩৬ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ৪১ রানের সুবাদে ভাল সংগ্রহ পায় দোলেশ্বর। আসিফ ১০৩ বলে ৬ চার ও ১ ছক্কায় ৬৩ রান করেন। ৮ উইকেটে ২৭৩ রান তোলে দোলেশ্বর। ফজলে রাব্বি ১৮ রানে তিন উইকেট শিকার করেন। জবাব দিতে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়ে কলাবাগান কেসি। ৪ রানেই হারিয়ে বসে দুই উইকেট। এরপর একাই লড়েছেন ওয়ানডাউনে নামা শামসুর রহমান শুভ। তিনি ৮৫ বলে ৬ চারে সর্বোচ্চ ৫২ রান করেন। শেষ পর্যন্ত ৩৮.৪ ওভারে মাত্র ১৩৪ রানেই গুটিয়ে যায় কলাবাগানের ইনিংস। ইলিয়াস ২২ রানে তিনটি উইকেট নেন।

তবে লীগের প্রথম দিনেই বড় চমক উপহার দিয়েছে নবাগত পারটেক্স। তারা ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ফেবারিট শেখ জামালকে হারিয়ে দিয়েছে ১১ রানে। লো স্কোরিং ম্যাচে প্রথম ব্যাট করে শ্রীলঙ্কান রোশানে শিওয়াঙ্কা সিলভার অপরাজিত শতকের পরও মাত্র ৮ উইকেটে ২০০ রান তুলতে পেরেছিল পারটেক্স। রোশানে ১৩৮ বলে ১০ চার ও ১ ছক্কায় অপরাজিত ১১১ রান করেন। মেহেদী রানা তিনটি উইকেট নেন। জবাব দিতে নামা জামালের ব্যাটিংয়ে শুরু থেকেই ছিল দায়িত্বহীনতার ছাপ। দুর্দান্ত বোলিং করেছেন আজিম ও নুরুজ্জামান মাসুম। অধিনায়ক তুষার ইমরান একাই লড়ে ১০৪ বলে ৬ চার ও ১ ছক্কায় ৭২ রান করলেও নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে মাত্র ১৮৯ রান তুলতে সক্ষম হয়েছে জামাল। ১১ রানে হেরেই লীগ শুরু করল তারা।

স্কোর ॥ লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ-ওল্ড ডিওএইচএস

রূপগঞ্জ-৫০ ওভারে ৩৫৭/৬ (জাইদি ১৪১, জহুরুল ৭৮, রাজু ৩৫*; শিহান ২/৬৬, জায়েদ ২/৭৪)।

ডিওএইচএস-৪১.৫ ওভারে ১১০/১০ (এহসানুল ২৬, নিহাদুজ্জামান ১৪; কাপালি ৩/২০, শরীফুল্লাহ ২/৯, শহীদ ২/১৪)।

ফল ॥ রূপগঞ্জ ২৪৭ রানে জয়ী।

প্রাইম দোলেশ্বর-কলাবাগান কেসি ম্যাচ

দোলেশ্বর-৫০ ওভারে ২৭৩/৮ (আসিফ ৬৩, মেহেদী ৫৫, রনি ৪৫, ইলিয়াস ৪১; রাব্বি ৩/১৮)।

কলাবাগান কেসি-৩৮.৪ ওভারে ১৩৪/১০ (শামসুর ৫২, নাসুম ৩১; ইলিয়াস ৩/২২, আসিফ ২/১০)।

ফল ॥ প্রাইম দোলেশ্বর ১৩৯ রানে জয়ী।

শেখ জামাল-পারটেক্স স্পোর্টিং ম্যাচ

পারটেক্স-৫০ ওভারে ২০০/৮ (রোশানে ১১১*, আরমান ৪০; মেহেদী রানা ৩/৪১, আরাফাত ২/৩১)।

শেখ জামাল-৫০ ওভারে ১৮৯/৮ (তুষার ৭২, ডসন ৩৪; নুরুজ্জামান ৩/২৩, আজিম ৩/৪৩)।

ফল ॥ পারটেক্স স্পোটিং ক্লাব ১১ রানে জয়ী।

প্রকাশিত : ১২ নভেম্বর ২০১৪

১২/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: