আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‘ঘটনাটি আপনাকে যেভাবে বিব্রত করেছে তার জন্য আমি দুঃখিত’

প্রকাশিত : ১২ নভেম্বর ২০১৪
  • গ্রানাডা আগ্রাসন নিয়ে থ্যাচারের ক্ষোভ কমাতে ফোন করেন রিগ্যান

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যান গ্রানাডা আগ্রাসনের বিষয়ে তৎকালীন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী মার্গারেট থ্যাচারের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন। ব্রিটেনের সঙ্গে পরামর্শ না করে কমনওয়েলথভুক্ত একটি দেশে সেনা অভিযান চালানোয় ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন ব্যারোনেস থ্যাচার। খবর বিবিসি অনলাইনের।

রিগ্যান ও থ্যাচারের মধ্যকার সেই অডিওটেপটি এখন প্রকাশ করা হয়েছে। এতে, মার্কিন নেতা বলেছেন, ‘আপনাকে বিব্রত করার এ ঘটনার জন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত।’ মার্কসবাদী শাসককে উৎখাতের জন্য যুক্তরাষ্ট্র ক্যারিবীয় দেশ গ্রানাডায় ১৯৮৩ সালে সৈন্য পাঠিয়েছিল। সৈন্যরা অভিযানে থাকা অবস্থাতেই রিগ্যান থ্যাচারের কাছে ফোন করে দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘যদি আমি আপনার জায়গায় থাকতাম, আমিও ঘরে ঢোকার আগে হ্যাট খুলে রাখতাম।’ যুক্তরাষ্ট্রে গৃহযুদ্ধ চলাকালে (ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষার্ধে) এই পরিভাষাটি ব্যবহার করা হতো। তখন গৃহে আগন্তুক ব্যক্তিকে তার হ্যাটটি খুলে রাখতে হতো। যদি অনাকাক্সিক্ষত হতো তবে হ্যাটটি ছুড়ে ফেলা বা তাকে গুলি করা হতো। জবাবে থ্যাচার বলেছিলেন, ‘না তার কোন প্রয়োজন ছিল না।’ রিগ্যান বলেন, ‘এই ঘটনা আপনাকে যেভাবে বিব্রত করেছে তার জন্য আমরা গভীরভাবে দুঃখিত। বিষয়টি আমাদের দিক থেকে আপনার কাছে তুলে ধরছি।’ হাতে মাত্র কয়েকঘণ্টা সময় ছিল। নিরাপত্তাজনিত কারণে এ নিয়ে কারও খোলাখুলিভাবে আলোচনা করা যায়নি। রিগ্যানের যুক্তি মেনে নিয়ে থ্যাচার বলেন, ফকল্যান্ড অভিযানের সময়ও তার সামনে একই রকম বাধ্যবাধকতা ছিল। এরপর সুর কিছুটা নরম করে তিনি বলেন, ‘অভিযান এখন চলছে (গ্রানাডায়), আমরা আশা করি এটি সফল হবে। এখনও অনেকে কিছু করা বাকি আছে, রোন।’ থ্যাচার বলেন, তাকে এখন ফোনটি রাখতে হচ্ছে। কারণে হাউস অব কমন্সে বিষয়টি নিয়ে এখন বিতর্ক হবে। হোয়াইট হাউসের সিচুয়েশন রুমে বসে করা ওই টেলিফোন বার্তা রিগ্যান নিজ উদ্যোগে রেকর্ড করেন। এ বিষয়ে কোন ফোন রেকর্ড থাকলে তা প্রকাশের তথ্য অধিকারের আইনে আবেদন জানানোর ১৮ বছর পর অডিওটেপটি প্রকাশ করা হলো। থ্যাচারের জীবনীকার ও মার্কিন লেখক উইলিয়াম ডয়েল আবেদনটি করেছিলেন। ডয়েল জানিয়েছেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট নিক্সনের মতো রিগ্যানেরও নিজের ফোন কল রেকর্ড করার একটি অভ্যাস ছিল। তবে তিনি সব কলই রেকর্ড করতেন তা নয়। ১৯৮৩ সালের ২৫ অক্টোবর গ্রানাডায় প্রায় আট হাজার মার্কিন সেনা ঢোকার একদিন পর রিগ্যান ওই ফোনটি করেন।

প্রকাশিত : ১২ নভেম্বর ২০১৪

১২/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: