কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

গ্যালারি কায়ায় হামিদুজ্জামান খানের শিল্পকর্ম প্রদর্শনী শেষ আজ

প্রকাশিত : ১১ নভেম্বর ২০১৪
  • সংস্কৃতি সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ এক সময় আগে ব্রোঞ্জ মাধ্যমে অনেক কাজ করেছি। পরবর্তীতে স্টিলের ব্যবহার ও কাঠখোদাই করেও গড়েছি শিল্পকর্ম। এরপর বৈচিত্র্যের অনুসন্ধানে আশ্রয় নিলাম নতুন মাধ্যমের। পাথরের ওপর নানা আকার আর গড়নের সহায়তায় ভাস্কর্য নিমাণ শুরু করলাম। গত দুই বছর ধরে শিল্পের শ্রমসাধ্য এই মাধ্যমটি নিয়ে নিবিড়ভাবে কাজ করছি। এভাবেই নিজের নতুন শিল্পমাধ্যমে ধাবিত হওয়ার তথ্যটি উপস্থাপন করলেন খ্যাতিমান ভাস্কর হামিদুজ্জামান খান। সোমবার গ্যালারি কায়ায় নিজের শিল্পকর্ম প্রদর্শনীর একটি প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বরেণ্য ভাস্কর হামিদুজ্জামানের নিপুণ দক্ষতায় কঠিন পাথরের খ-টি হয়ে উঠেছে রূপময় শিল্প। প্রকাশিত হয়েছে অসীম প্রাণের ব্যঞ্জনায়। জড় বস্তুটি অবয়বের গুণে প্রাণসঞ্চারী হয়ে নজর কাড়ে শিল্পানুরাগীর। রাজধানীর উত্তরার গ্যালারি কায়ায় স্থান পাওয়া কাজগুলোতে পাথরের সেই সসীম অবস্থান থেকে অসীমের পানে প্রকাশিত হওয়ার কথাই যেন বলছে। এই প্রদর্শনালয়টিতে চলছে শিল্পীর একক শিল্পকর্ম প্রদর্শনী ‘স্টোনস’। আজ মঙ্গলবার প্রদর্শনীর শেষ দিন।

আলোচিত এ প্রদর্শনীর শেষ হওয়ার আগের দিন সোমবার দুপুরে শিল্পীর শিল্পকর্মের আলোকচিত্রসমৃদ্ধ প্রকাশনা স্টোনস-এর প্রকাশনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। গ্যালারি কায়ার উদ্যোগে প্রকাশিত এ গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচনে শিল্পী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বরেণ্য চিত্রশিল্পী আব্দুস শাকুর শাহ, স্থপতি রবিউল হুসাইন, শামসুল ওয়ারেস প্রমুখ। আরও উপস্থিত ছিলেন গ্যালারি কায়ার পরিচালক গৌতম চক্রবর্তী।

প্রকাশিত গ্রন্থটিতে শিল্পীর ‘স্টোনস’ প্রদর্শনীর শিল্পকর্মগুলোর আলোকচিত্র ছাড়াও শিল্পসমালোচক মঈনুদ্দিন খালিদের একটি রচনা রয়েছে। গ্রন্থটি উৎসর্গ করা হয়েছে শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনকে।

আজ প্রদর্শনীর শেষ দিন। শিল্পীর সৃজিত শিল্পকর্মে উঠে এসেছে নানা বিষয়। খোদাইকৃত পাথর রূপ নিয়েছে মাছের অবয়বে। আরেকটি শিল্পকর্মে পাথরের বুক চিরে বেরিয়ে এসেছে মানবের মুখাবয়ব। উদ্ভাসিত হয়েছে বিড়ালসহ প্রাণিজগতের নানা অনুষঙ্গ। কোথাও বা উঠে এসেছে প্রকৃতি ও পরিবেশ। রয়েছে কিছু বিমূর্ত আঙ্গিকের কাজও। আর ভাস্কর্যের পাশাপাশি শিল্পীর চিত্রিত চিত্রকর্মগুলো যেন প্রদর্শনীতে যোগ করেছে ভিন্নমাত্রা। রং-তুলির ছোঁয়ায় ভিন্ন আঙ্গিকে উদ্ভাসিত হয়েছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিসহ নানা বিষয়।

সব মিলিয়ে ৪৯টি শিল্পকর্ম দিয়ে সাজানো হয়েছে প্রদর্শনী। এর মধ্যে রয়েছে ৩১টি ভাস্কর্য। আছে ১৬টি ড্রইং ও দুটি পেইন্টিং। আজ বেলা ১২টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য উš§ুক্ত থাকবে।

প্রকাশিত : ১১ নভেম্বর ২০১৪

১১/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: