মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বুদ্ধি খাটালে ছাদেই হবে বেগুন টমেটো ফুলকপি লাউ

প্রকাশিত : ৬ নভেম্বর ২০১৪

পাওয়া যাচ্ছে সব চারা

জনকণ্ঠ ফিচার

সামান্য শ্রম ঘাম দরকার হয় বটে। তবে বুদ্ধি খরচ করাটা বেশি জরুরী। আর তা হলে শহুরে মানুষও টাটকা শাক-সবজি খেয়ে পার করতে পারেন শীতকালটা। এ জন্য নিচে নয়, তাকাতে হবে উপরের দিকে। হ্যাঁ, এখন ছাদে তৈরি হচ্ছে সবজি বাগান। অনেকেই কাজটি বেশ আনন্দ নিয়ে করছেন। আর তাই শীত সামনে রেখে বিশেষ প্রস্তুতি নিয়েছে নার্সারিগুলো। ফুল-ফলের পাশাপাশি এখন সেখানে বিপুল পরিমাণ সবজি চারা। আছে শিম, বরবটি, বেগুন, টমেটো, ফুলকপি ও বাঁধাকপি থেকে কাঁচামরিচ পর্যন্ত। পলিপ্যাকে সাজানো চারাগাছের বিক্রিও বেশ ভাল। দেখতে দেখতে এসব চারা বড় হয়ে যাবে। শীতের সবজিতে ভরে উঠবে বাগান। পূরণ হবে পরিবারের চাহিদা।

গত কয়েকদিন আগারগাঁয়ের বিভিন্ন নার্সারি ঘুরে দেখা যায়, বিশাল জায়গা জুড়ে শীতের সবজির চারা। সারি সারি সাজানো। ছোট ছোট পলিপ্যাকে সামান্য মাথা তুলে আছে চারা গাছ। কোনটি কোন গাছের চারা, দেখে বোঝা দায়। নিয়মিত এসব চারাগাছে পানি দেয়া হচ্ছে। একইসঙ্গে চলছে নতুন পলিপ্যাক তৈরির কাজ। কৃষিবিদ উপকরণ নামের একটি নার্সারিতে গিয়ে দেখা যায়, মাঝখানের সবটুকু জায়গাজুড়ে চারাগাছ। অধিকাংশ চারার বয়স ৫ থেকে ৭ দিন। ফলে খুব ছোট চারা। এখনও স্পষ্ট আকার আকৃতি পায়নি। তবে বেগুনের চারাগুলো অপেক্ষাকৃত আগে লাগানো। ফলে মোটামুটি বড়। নার্সারি কর্মী শাহাদাত জানান, এগুলো উন্নত জাতের চারা। নরসিংদীর বেগুন নামে পরিচিত। বাসায় নিয়ে ২০ দিনের মতো অপেক্ষা করলেই চলবে। খাওয়া যাবে নিজ গাছের বেগুন। একটি গাছে ৫ থেকে ৬ কেজি বেগুন হয়। কয়েকটি গাছ লাগালে পুরো পরিবারের চাহিদা পূরণ হয়ে যাবে বলে জানান তিনি। ইয়ামিন নার্সারিতে দেখা গেল, বড় পলিপ্যাকে মোড়ানো টমেটোর চারা। নার্সারি কর্মী লোকমান জানান, এই জাতটির নাম ‘শোভা’। খুব ভাল জাত। পরিবেশ সহায়ক নামের একটি নার্সারিতে পাওয়া গেল টমেটো ধরা চারা গাছ। পলিপ্যাকে থাকা অবস্থায় ছোট ছোট টমেটো ধরেছে। কাঁচা সবুজ টমেটো ধীরে ধীরে পরিণত হবে। এই গাছ কিনলে খুব কম সময়ের মধ্যে খাওয়া যাবে টমেটো। দামও অল্প। মাত্র ৫০ টাকা। খামারবাড়ি নার্সারিতে গিয়ে পাওয়া গেল লাউ, মিষ্টি কুমড়া, বরবটি, শিমের চারা। লাউ গাছের চারাগুলোর আপাতত তিনটি করে পাতা। দুটি পাতা বড় হতে শুরু করেছে। মাঝেরটি কুড়ির মতো দেখতে। এই চারাগুলোর দাম ২০ টাকা করে। এখানেই শেষ নয়, পটুয়াখালী নার্সারিতে গিয়ে দেখা গেল, কাঁচামরিচের চারা। ফুলের টবে বড় হচ্ছে। দোকানি নাজমুল জানালেন, ৩০ থেকে ৪০ দিনের মাথায় কাঁচামরিচ পাওয়া যাবে।

এভাবে প্রায় সব রকমের সবজির চারা পাওয়া যাচ্ছে নার্সারিগুলোতে।

কেউ চাইলে কিনতে পারেন বীজও। সব ধরনের সবজির বীজ পাওয়া যাচ্ছে নার্সারিগুলোতে।

প্রকাশিত : ৬ নভেম্বর ২০১৪

০৬/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: