মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় গেলে ইসলাম শক্তিশালী হবে ॥ এরশাদ

প্রকাশিত : ২৯ অক্টোবর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় গেলে ইসলাম শক্তিশালী হবে- ওলামা-মাশায়েখ মহাসম্মেলনে যোগ দিয়ে এমন ঘোষণা দিলেন পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। এ জন্য নেতাকর্মীদের ঈমানী শক্তি নিয়ে কাজ করারও আহ্বান জানান তিনি।

এরশাদ বলেন, ঈমান শক্ত থাকলে কেউ আমাদের কিছু করতে পারবে না। মঙ্গলবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ওলামা পার্টির সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। এ সময় সাবেক মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীকে মুরতাদ ঘোষণা দেন এরশাদ।

সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, মুসলমানরা সন্ত্রাসী বলে পশ্চিমা বিশ্ব প্রচার করছে। আমি বলি যারা মানুষের কল্যাণ করে না, অত্যাচার নির্যাতনসহ মানুষ হত্যা করে তারা কখনই মুসলমান হতে পারে না। কারণ ইসলাম সন্ত্রাস মানে না। আল্লাহ সন্ত্রাস না করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা সকলে মিলে অন্যায়, অবিচার ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে জেহাদ করব, যুদ্ধ করব। অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়ে পৃথিবীর কাছে মুসলমানদের প্রমাণ করতে হবে আমরা সন্ত্রাসী নই, জেহাদী। কারণ অন্যায়ের বিরুদ্ধে জেহাদ করা বৈধ।’

এরশাদ বলেন, ‘সমাজে আজ কী দেখি। প্রতিদিন মানুষ হত্যা। রক্তে রাজপথ ভাসছে। অন্যায়কারীদের মনে কোন দাগ লাগে না। একজন আরেকজনের জমি-বাড়ি দখল করছে। এটা কোন মুসলমানের কাজ নয়। আমরা দিন দিন ধর্ম থেকে দূরে সরে যাচ্ছি। আল্লাহকে ভুলে যাচ্ছি। পাপ, পুণ্য বিবেচনায় নেই, তা হতে পারে না।

ক্ষমতা থেকে তাদের পদত্যাগের পর দেশের মানুষের ওপর ব্যাপক অন্যায় অত্যাচার হয়েছেÑএ কথা উল্লেখ করে এরশাদ বলেন, রাসুলের পথে ফিরলে দেশে শান্তি ফিরবে। তিনি দাবি করে বলেন, আমার দ্বারা মানুষ হত্যা হবে না। মানুষ হত্যা করে কোনভাবেই ক্ষমতায় থাকা যায় না। মানুষ পরিবর্তন চাচ্ছে। পরিবর্তন আনতে হবে। মানুষের খেদমত করলে মুক্তি আসবে।

তিনি বলেন, ইসলামের প্রকৃত অনুসারী হলে জেল-জলুমসহ শত অত্যাচারেও কোন ভয় নেই। ঈমান শক্ত থাকলে কেউ কিছু করতে পারবে না। জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় এলে ইসলাম শক্তিশালী হবে। আমরা মানুষের খেদমত করব। বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য মন্ত্রিসভা থেকে সদ্য বহিষ্কৃত লতিফ সিদ্দিকী প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, ‘লতিফ সিদ্দিকী মুরতাদ। তার নাম মুখে আনার দরকার নেই।’

এরশাদ বলেন, পত্রিকায় বলা হয় আমি কী চাই। ক্ষমতা ছাড়ার পর ১৪ বছর দল করতে পারিনি। দলকে শক্তিশালী করার সুযোগ পাইনি। নানা অত্যাচার আর নির্যাতনের মধ্যে আমাকে রাজনীতি করতে হয়েছে। এটা কারও অজানা নয়। মানুষ আমাকে ভালবাসে। তাদের ভালবাসায় এখনও টিকে আছি। ভবিষ্যতে জাপাকে নিয়ে সরকার গঠন করতে চাই। তিনি বলেন, সরকারের আর চার বছর ক্ষমতা আছে। নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে এটা পর্যাপ্ত সময় নয়। তবুও এ সময়ের মধ্যে নির্বাচন করে ক্ষমতায় যেতে চায় জাতীয় পার্টি। যত বিপদ আসুক আল্লাহ ছাড়া আর কারও কাছে মাথানত করব না। খালেদা জিয়ার সরকারের আমলে সকল হত্যাকা-ের বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করে জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, তাঁকে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে হবে। বেগম জিয়া ক্ষমতায় থাকতে মানুষ আর কৃষক হত্যা করেছে। তাঁর হাত রক্তে রঞ্জিত। অথচ তিনি অন্যদের ঘাতক বলেন। খালেদা জিয়ার শাসনামল ছিল মাথা থেকে পা পর্যন্ত রক্তে রঞ্জিত। আন্দোলনের নামে সাম্প্রতিক সময়ে বোমা মেরে মানুষ হত্যা করেছে বিএনপি।

বাবলু বলেন, এখনও খুন, গুম ও মানুষ হত্যা চলছে। সকল অন্যায় অত্যাচার থেকে মানুষ মুক্তি চায়। দুই নেত্রীর শাসনের অবসান চাই।

অনুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা ওলামা-মাশায়েখরা, ইসলামী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়ে বলেন, ইসলামী শাসন ছাড়া দেশে শান্তি ফিরবে না। রাষ্ট্রধর্ম ইসলামের বিকল্প বলে কিছু নেই। মহাসম্মেলনে মিলাদের কথা বলে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার মাদ্রাসা থেকে শিশুদের আনা হয়। ধোলাইপাড় আততাবলীগ ক্যাডেট মাদ্রাসা থেকে ৫-৮ বছরের প্রায় শতাধিক শিশুকে মিলাদের কথা বলে আনার কথা জানান নিজেরাই। অথচ রাজনৈতিক কর্মকা-ে শিশুদের ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- এমএ হান্নান, আবু হোসেন বাবলা, এসএম ফয়সাল চিশতি, রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, বদিউল আলম সরকার, নওয়াব আলী ভূঁইয়া, শফিউদ্দিন প্রমুখ।

প্রকাশিত : ২৯ অক্টোবর ২০১৪

২৯/১০/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: