মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
মঙ্গলবার, ৮ জানুয়ারী ২০১৩, ২৫ পৌষ ১৪১৯
নদী রক্ষায় কমিশন গঠন আইনের খসড়া মন্ত্রিসভার অনুমোদন
বিশেষ প্রতিনিধি ॥ দেশের নদী রক্ষায় কমিশন হচ্ছে। এ লক্ষ্যে একটি কমিশন গঠনের আইনের খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়। এ ছাড়াও ‘সার্ক এগ্রিমেন্ট অন র‌্যাপিড রেসপনস্ টু নেচারাল ডিজাসটার’ অনুসমর্থনের প্রস্তাবও অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।
এ আইনের আওতায় কমিশনে তিন বছরমেয়াদী একজন চেয়ারম্যান ও নদী, পরিবেশ, নদী জরিপ ও আইনে (মানবাধিকার) চার বিশেষজ্ঞ নিয়োগ দেবে সরকার। কমিশন নদী রক্ষায় পরামর্শ ও বিভিন্ন ধরনের দিকনির্দেশনা দেবে। শুধু নদী নয়, খাল-বিল, জলাশয় রক্ষায়ও কাজ করবে এ কমিশন।
বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররফ হোসাইন ভূঁইয়া সাংবাদিকদের বলেন, বৈঠকে জাতীয় নদী রক্ষা কমিশন আইন, ২০১৩-এর খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। বিগত ৩ জুলাই এ আইনের খসড়ায় নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়।
কমিশন নদী রক্ষায় পরামর্শ ও বিভিন্ন ধরনের দিকনির্দেশনা দেবে। নদী দূষণ বন্ধ করা, অবৈধ দখল উচ্ছেদ, তীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ইত্যাদি কার্যক্রমেও এ আইন সহযোগী হবে বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান। বাংলাদেশে ৪০০টির বেশি নদী রয়েছে।
এছাড়া ‘সার্ক এগ্রিমেন্ট অন র‌্যাপিড রেসপনস্ টু নেচারাল ডিজাসটার’ অনুসমর্থনের প্রস্তাব মন্ত্রিসভা অনুমোদন দিয়েছে। এর ফলে সার্কভুক্ত দেশগুলো একটি দুর্যোগ মোকাবেলায় সমন্বিত কর্মপরিকল্পনা তৈরি করবে এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে একে অপরকে সহযোগিতা করবে।
প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় সাহায্যকারী দেশ কোন যানবাহন, টেলিযোগাযোগ সামগ্রী বা অন্য দ্রব্যাদি আনলে কর মওকুফ পাবে।
বিগত ২১-২৮ নবেম্বর প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের মরিশাস, মালয়েশিয়া ও অস্ট্রেলিয়া সফর সম্পর্কে মন্ত্রিসভাকে অবহিত করা হয়।
এ প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, মালয়েশিয়া সফরে জনশক্তি রফতানির বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে, এ প্রক্রিয়ায় বিদেশে কর্মী পাঠাতে জনপ্রতি ৪০ হাজার টাকা খরচ হবে, রেজিস্ট্রেশন অনলাইনে হচ্ছে এবং আগামী ১৬ থেকে ১৮ জানুয়ারি লটারি হবে। আগামী ১০ জানুয়ারি কর্মী পাঠানোর পদ্ধতির বিষয়ে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক মন্ত্রণালয় একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে বলেও জানান সচিব।
অস্ট্রেলিয়া সফরের বিষয়ে সচিব বলেন, ২০১৫ সালের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ায় ২৪ লাখ দক্ষ কর্মী পাঠানো যাবে। এ জন্য একটি পাইলট প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে যাতে উন্নত দেশে দক্ষ শ্রমিক পাঠানো যায়।
বিগত ২৮ থেকে ৩০ নবেম্বর রোমে অনুষ্ঠিত ‘সিক্স সেশন অব দ্য মিটিং অব দি পার্টিস টু দ্য কনভেনশন অন দ্য প্রটেকশন এ্যান্ড ইউজ অব ট্রান্সবাউন্ডারি ওয়াটারকোর্সেস এ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল লেকস্’এ পানি সম্পদমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের প্রতিনিধিদলের অংশগ্রহণ সম্পর্কে মন্ত্রিসভাকে অবহিত করা হয়েছে।
বাংলাদেশে ৪০০টির বেশি নদীর মধ্যে ৫৭টি অন্যান্য দেশের সঙ্গে প্রবাহিত হচ্ছে জানিয়ে সচিব বলেন, বাংলাদেশের পক্ষে নদীগুলো সম্পর্কে অবহিত করা হয়েছে।
বৈঠকে গত ১৯ থেকে ২৩ নবেম্বর বাণিজ্যমন্ত্রীর চেক প্রজাতন্ত্র এবং এবং জার্মানি সফর সম্পর্কেও মন্ত্রিসভাকে অবহিত করা হয়।