মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
মঙ্গলবার, ৮ জানুয়ারী ২০১৩, ২৫ পৌষ ১৪১৯
তেলের দাম ॥ বিএনপি বাড়িয়েছিল ১৩৬% আওয়ামী লীগ ৩৮%
সংবাদ সম্মেলনে হাছান মাহমুদ
স্টাফ রিপোর্টার ॥ পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ দাবি করেছেন জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে মিথ্য তথ্য দিয়ে বিএনপি জনগণকে বিভ্রান্ত করছে। সোমবার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী বলেন বিএনপি ২০০১-০৬ পর্যন্ত তাদের শাসন আমলে নয় বার তেলের দাম বৃদ্ধি করেছে। জোট সরকারের সময় ১৩৬ শতাংশ পর্যন্ত জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি করা হয়েছিল। পক্ষান্তরে আওয়ামী লীগ এ পর্যন্ত পাঁচ বার মূল্য বৃদ্ধি করেছে। বর্তমান সরকারের সময় পর্যন্ত ৩৮ শতাংশ তেলের দাম বেড়েছে।
ড. হাছান বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতা গ্রহণের সময় আন্তর্জাতিক বাজারে ব্যারেলপ্রতি পেট্রোলের দাম ছিল ২৩ মার্কিন ডলার, অকটেন ছিল ২৫ মার্কিন ডলার এবং ডিজেল ছিল ১৫ দশমিক পাঁচ মার্কিন ডলার। ২০০৬ সালে বিএনপি ক্ষমতা ত্যাগের সময় পেট্রোল, অকটেন ও ডিজেলের দাম রেখে যায় যথাক্রমে ৫৬, ৫৮ ও ৩৩ টাকা।
আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির কারণে ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মহাজোট সরকার দায়িত্ব গ্রহণের সময় পেট্রোল, অকটেন ও ডিজেলের মূল্য ছিল যথাক্রমে ৭৭, ৮০ ও ৪৮ টাকা। বর্তমানে এ মূল্য ৯৬, ৯৯ এবং ৬৮ টাকা।
তিনি বলেন, বিএনপির সময়ে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের মূল্য বাড়ে ৩২ মার্কিন ডলার। কিন্তু বিগত ৪ বছরে এ মূল্য ৪৫ ডলারেরও বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের এ দাম বৃদ্ধি সত্ত্বেও বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার যে হারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়েছে তা বিএনপির শাসনামলের চেয়ে ৯৮ শতাংশ কম।
সদ্য আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদকের দায়িত্বপ্রাপ্ত পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন বিএনপি মিথ্যা তথ্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে এবং অর্থনীতিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে মহাজোট সরকারের ঈর্ষান্বিত সাফল্যকে ম্লান করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। এ জন্য জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির তথাকথিত প্রতিবাদের নামে তারা মূলত যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা করার জন্য দেশে হরতালসহ বিভিন্ন নৈরাজ্যকর কর্মসূচী জনগণের ওপর চাপিয়ে দিচ্ছে। জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি হরতালের একটি অজুহাত মাত্র, এর প্রকৃত উদ্দেশ্য জামায়াতীদের সঙ্গে নিয়ে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বিঘিœত করা বলে মনে করেন তিনি।
পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন দেশের সঙ্গে জ্বালানি তেলের দামের তুলনা করে মন্ত্রী বলেন, ভারতে এখন প্রতিলিটার ডিজেলের মূল্য বাংলাদেশর মুদ্রার মূল্যমানে ৭৬.৪৭ টাকা, পাকিস্তানে ৯০.৩৭ টাকা এবং পেট্রোলের মূল্য যথাক্রমে ১১৩ টাকা এবং ৮৩.২ টাকা।
মন্ত্রী বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের সামগ্রিক মূল্য বর্তমানে বৃদ্ধি পেয়েছে ৭৬ শতাংশ, কিন্তু বাংলাদেশে বেড়েছে ৪৬ শতাংশ উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের সময় কৃষি, শিল্প, যোগাযোগ, এবং তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারসহ দেশের সর্বক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়নের প্রেক্ষাপটে জ্বালানি তেলের ব্যবহার ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে এ খাতে সরকারের ভর্তুকির পরিমাণও বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকার জ্বালানি খাতে বিদ্যুতখাতে প্রায় বছরে প্রায় ৩২ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি প্রদান করছে।
‘বর্তমান সরকারের কোন সাফল্য নেই’ ‘বিএনপির মুখপাত্র তরিকুল ইসলামের মন্তব্যের জবাবে মন্ত্রী আওয়ামী লীগের ওপর কোন দোষ চাপানোর আগে আয়নায় নিজেদের চেহারা ভাল করে দেখে নেয়ার জন্য বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান।