২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 

আতিক ও তাপসের প্রতিশ্রুতি সচল ঢাকা গড়ার

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মহাপরিকল্পনার আওতায় ঢাকাকে পরিষ্কার, পরিচ্ছন্ন এবং সচল হিসেবে গড়ে তুলার স্বপ্ন দেখাচ্ছেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীরা। পর্যায়ক্রমে হকারদের পুনর্বাসনের মাধ্যমে রাস্তা-ফুটপাথ দখলমুক্ত করা হবে। শেখ হাসিনার উন্নয়নের বার্তা ঘরে ঘরে পৌঁছানোর কথাও বলছেন ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তরের আ’লীগ মনোনীত দুই মেয়র প্রার্থী।

সোমবার ১১তম দিনের ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন ও ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় নির্বাচনী প্রচার ও গণসংযোগকালে দুই মেয়র প্রার্থী এসব কথা বলেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, আমরা অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে রাস্তা নির্ধারণ করে সড়কগুলোর জন্য তথ্য ভান্ডার সৃষ্টি করব। সেই তথ্য ভান্ডার অনুযায়ী একদিকে ফুটপাথ দখলমুক্ত করব, অন্যদিকে হকারদের পুনর্বাসন করব। সোমবার দুপুরে রাজধানীর খিলগাঁও রেলগেট বাটার মোড় সংলগ্ন এলাকায় নির্বাচনী প্রচারে নেমে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। আগামী দু’একদিনের মধ্যে নির্বাচনী পূর্ণাঙ্গ ইশতেহার দেয়ার আশাও প্রকাশ করেন তিনি।

তাপস বলেন, পর্যায়ক্রমে একটি মহাপরিকল্পনার আওতায় ঢাকাকে পরিষ্কার, পরিচ্ছন্ন এবং সচল হিসেবে গড়ে তুলব। সেখানে রাস্তা হোক আর ফুটপাথ হোক যেগুলো দখলমুক্ত করার ব্যবস্থা নেব। তবে সেটা পর্যায়ক্রমে। কেন না যারা হকারি করেন তারা কিন্তু শোষিত। আমরা লক্ষ্য করি বিভিন্নভাবে তাদের শোষণ করা হয়। আমরা তাদের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা নেব। এর আগে পুনর্বাসনের অনেক কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু কার্যক্রম বাস্তবায়নে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

ঢাকার উন্নয়নের জন্য নয়, আন্দোলনের জন্য বিএনপি সিটি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে বলে মন্তব্য করে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী, তারা কিন্তু এই নির্বাচনে ঢাকার উন্নয়নের জন্য নয়, ঢাকাবাসীর সেবা করার জন্য নয়, ঢাকাবাসীর কষ্ট লাঘবের জন্য নয়, উন্নত ঢাকা উপহার দেয়ার জন্য নয় বরং তারা বারবার বলছে এটা তাদের একটি আন্দোলনে অংশ। তাদের নেত্রীকে মুক্ত করার আন্দোলনের অংশ হিসেবে এটি দেখছে। আমি মনে করি না, ঢাকাবাসী সেটাকে গ্রহণ করবে।

তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি ঢাকাবাসী আমাদের প্রাণের ঢাকাকে ভালবাসে এবং তারা উন্নত ঢাকা চায়। সেই প্রেক্ষিতে ১ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনে আমি আশা করব, ঢাকাবাসী একটি নব সূচনা গড়ার লক্ষ্যে এই সুযোগ নেবে। উন্নত ঢাকা গড়ার লক্ষ্যে তারা সকলেই ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে তাদের সেবক নির্বাচিত করবে। আমাদের সেবা করার সুযোগ দেবে।

প্রচারে আতিক

এদিকে একই দিনে নির্বাচনী প্রচারে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেন, কোন অভিযোগ নয় সমস্যার সমাধান করতে চান তিনি। তিনি বলেন, আমি মানুষের সমস্যার সমাধান করতে চাই। প্রতিপক্ষ অভিযোগ করবে কিন্তু আমি উন্নয়নের বার্তা মানুষের কাছে পৌঁছে দেব। নির্বাচনী প্রচারের দশম দিনে আতিকুল ইসলাম খিলক্ষেত রেলগেট এলাকায় গণসংযোগের শুরুতে এসব কথা বলেন।

আতিকুল ইসলাম বলেন, ডিএনসিসি নির্বাচনে আমার প্রতিপক্ষ তাবিথ আউয়াল বলেছেন আমি আচরণবিধি লঙ্ঘন করছি। আমি কোন অভিযোগ করতে চাই না, আমি চাই মানুষের সমস্যা কীভাবে সমাধান করা যায় সেই চেষ্টা করে যেতে। তাই উনি আচরণবিধি লঙ্ঘনের কথা বলবেন, আর আমি বলব কীভাবে এলাকার উন্নয়ন করা যায়। কাজেই প্রতিপক্ষ অভিযোগ করবে, আর আমি উন্নয়নের বার্তা মানুষের কাছে পৌঁছে দেব। নির্বাচনে নির্বাচিত হলে ঢাকা ওয়াসাসহ সকল সেবা সংস্থাকে সমন্বয় ও জবাবদিহিতার আনার ওপর গুরুত্ব দেন আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, মানুষের প্রত্যাশা সকল সেবা সংস্থার কাজ ত্বরিতগতিতে হোক, ভোগান্তি কম হোক। আমরা নির্বাচিত হলে সবার আগে সকল সেবা সংস্থার মধ্যে সমন্বয় সাধনের চেষ্টা করব। নির্বাচিত হলে সিটি কর্পোরেশনকে যেমন জবাবদিহিতার মধ্যে আনতে চাই, তেমনি ওয়াসাসহ সকল সেবা সংস্থাকেও জবাবদিহিতার মধ্যে আসতে হবে।

তিনি বলেন, আতিকুল ইসলাম একজন জনবান্ধব প্রার্থী। তিনি সকল শ্রেণীর মানুষের আস্থার প্রতীক। আশাকরি আগামী ১ ফেব্রুয়ারি সবার ভালবাসায় আবারও নৌকা প্রতীক বিজয়ী হবে। আতিক পুনরায় ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মানুষের জন্য কাজ করে উন্নত নগরজীবন উপহার দিতে পারবেন। ডাঃ শায়লা ইসলাম বস্তির ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে সব বয়সী নারী-পুরুষের কাছে আতিকের পক্ষে ভোট চান এবং নৌকার বিজয়ের জন্য সবার সমর্থন চান।

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০২০

২১/০১/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: