২০ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 

আর্থিক অনিয়ম ॥ ট্রাম্পকে ২০ লাখ ডলার জরিমানা

প্রকাশিত : ৯ নভেম্বর ২০১৯
  • ৮ অলাভজনক প্রতিষ্ঠানকে এ অর্থ দেয়ার নির্দেশ

২০১৬ সালে নির্বাচনী প্রচারে নিজ দাতব্য সংস্থা থেকে অর্থ অপব্যবহারের অভিযোগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ২০ লাখ ডলার জরিমানা করেছে নিউইয়র্কের একটি আদালত। বাংলাদেশী মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ১৬ কোটি টাকা। খবর বিবিসি অনলাইনের।

ট্রাম্পের ওই সংস্থার নাম দ্য ডোনাল্ড জে ট্রাম্প ফাউন্ডেশন। সংস্থাটি ট্রাম্পের ‘স্বার্থ’ উদ্ধারে বেশি কাজ করছে অভিযোগ এনে ২০১৮ সালে বন্ধ করে দেয়া হয়। বৃহস্পতিবার বিচারক সালিয়ান স্কারপুলা বলেন, ট্রাম্প ও তার তিন সন্তান যেই সংগঠনের প্রধান সেই সংগঠন কোন রাজনৈতিক কাজে ব্যবহার করা যাবে না। নির্বাচনী প্রচারের সময় খরচ করা অর্থ ট্রাম্পকেই পরিশোধ করতে হবে। বিচারক বলেন, আমি ট্রাম্পকে ২০ লাখ ডলার জরিমানা দিতে বলেছি। ট্রাম্প ফাউন্ডেশন এখন থাকলে এই টাকা সেখানেই জমা হতো। তবে এবার এমন আটটি সংগঠনে এই অর্থ দেয়া হবে যার সঙ্গে ট্রাম্প সংশ্লিষ্ট নন। তিনি বলেন, ট্রাম্প ফাউন্ডেশনের টাকা নিয়ে আইওয়াতে নির্বাচন করে তার দায়িত্বে অবহেলা করেছেন। নিউইয়র্কের এ্যাটর্নি জেনারেল লেতিতিয়া জেমস বলেন, সংস্থাটির অন্য তিন পরিচালক -ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র, এরিক ট্রাম্প এবং ইভাঙ্কা ট্রাম্পের বাধ্যতামূলক প্রশিক্ষণ প্রয়োজন যে দাতব্য সংস্থার অর্থ কর্মকর্তারা কিভাবে ব্যয় করতে পারেন। ট্রাম্পের দাবি, এই মামলা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

এজন্য নিউইয়র্কের ডেমোক্র্যাটদের দোষারোপ করেন তিনি। নিজের নামে প্রতিষ্ঠিত দাতব্য সংস্থার অর্থ অপব্যবহারের মামলাটি নিয়ে ট্রাম্প শুরু থেকেই ত্যক্তবিরক্ত। নিউইয়র্কের ধুরন্ধর ডেমোক্র্যাটরা ‘আমাকে ফাঁসানোর জন্য সবকিছুই করছে’ বলেও অভিযোগ করেছিলেন তিনি। ট্রাম্পের আইনজীবীরাও ২০১৮ সালের জুনে নিউইয়র্কের সাবেক এ্যাটর্নি জেনারেল বারবারা আন্ডারউডের করা মামলাটিকে ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ হিসেবে অভিহিত করেছিলেন।

প্রকাশিত : ৯ নভেম্বর ২০১৯

০৯/১১/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: